করোনা ভাইরাস সংক্রান্ত পোস্ট শেয়ারের আগে পপ-আপ নোটিফিকেশান পাবেন ফেসবুক ইউজাররা

facebook-users-will-get-warning-before-sharing-articles-about-covid-19

কোভিড -১৯ সংক্রান্ত তথ্য শেয়ার নিয়ে অত্যন্ত চিন্তিত ফেসবুক সহ অন্যান্য সোশাল নেটওয়ার্কিং সাইট। কারণ ব্যবহারকারীরা নিজেদের অজান্তেই কোভিড-১৯ সংক্রান্ত ভুল ও পুরানো তথ্য শেয়ার করে ফেলেছে। আপাতদৃষ্টি তে শেয়ার করার মাধ্যমে ভাইরাসটি সম্পর্কে অন্যদের জানানো বা সচেতনতা বৃদ্ধির চেষ্টা থাকলেও, এই সংক্রান্ত ভুল তথ্য অহেতুক ভয়ের কারণ হয়ে উঠছে। আর সেকারণেই Facebook সম্প্রতি একটি আপডেট নিয়ে আসতে চলেছে। যার ফলে এখন থেকে কোনো Facebook ইউজার কোভিড ১৯ সর্ম্পকিত কোনো খবর ওয়ালে শেয়ার করার আগে, সতর্কতা হিসাবে একটি পপ-আপ নোটিফিকেশান পাবেন।

এই আপডেটটি এখন সারা বিশ্বজুড়ে ফেসবুক ব্যবহারকারীদের জন্য নিয়ে আসা হচ্ছে। আসলে কোনো ফেসবুক ইউজার যাতে কোভিড ১৯ নিয়ে আর্টিকেল শেয়ার করার আগে সেটির কনটেক্সট সম্পর্কে আরো বেশী অবহিত হন, সেজন্য ফেসবুকের পক্ষ থেকে এই পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। ফেসবুক জানিয়েছে, এই নতুন নোটিফিকেশান স্ক্রিন কোভিড ১৯ সংক্রান্ত কোনো আর্টিকেল কতটা সাম্প্রতিক ও তথ্যটির উৎস কোথায়, তা জানাতে ফেসবুক ব্যবহারকারীদের সাহায্য করবে। তবে ব্যতীক্রম হিসাবে বিভিন্ন গর্ভমেন্ট হেলথ অথোরিটি এবং গ্লোবাল হেলথ অর্গানাইজেনস যেমন হু- এর থেকে কোভিড ১৯ সর্ম্পকিত কোনো তথ্য ফেসবুকে শেয়ার করার সময় এই পপআপ নোটিফিকেশানটি দেখা যাবে না।

তবে অন্যান্য উৎস থেকে কোভিড ১৯ রিলেটেড আর্টিকেল শেয়ার করার সময় ফেসবুক এই নোটিফিকেশানের মাধ্যমে দেখাবে পোস্টগুলির সর্ম্পকে বিস্তারিত তথ্য, অরিজিনাল সোর্স এমনকি পোস্টটি প্রথম কবে শেয়ার করা হয়েছিল সেটির তারিখও। এমনটা নয় যে , ফেসবুক ব্যবহারকারীদের করোনাভাইরাস সংক্রান্ত আর্টিকেল শেয়ার করা থেকে বিরত রাখতে চাইছে। আসলে ফেসবুক এই আপডেটটির মাধ্যমে ভুয়ো তথ্য ছড়ানোর প্রক্রিয়াটি প্রতিহত করতে চাইছে।

প্রসঙ্গত Facebook চলতি বছরের জুন মাসে একটি নোটিফিকেশান স্ক্রিন রোলআউট করেছিল। বলা যেতে পারে এই নতুন আপডেটটি সেটারই সম্প্রসারণ। এখন থেকে কোভিড ১৯ সংক্রান্ত কোনো পোস্ট শেয়ার করতে চাইলে ফেসবুক ব্যবহারকারীদের সতর্ক করছে। যেমন, কোনো পোস্ট যদি ৯০ দিনের পুরানো হয়, তাহলে শেয়ার করার আগে পপআপ নোটিফিকেশান আসবে, যে এই আর্টিকেলটি ৯০ দিনের পুরানো। এখন এটি নিতান্তই ব্যবহারকারীদের ওপর নির্ভর করছে তারা এই ওয়ার্নিং পাওয়ার পরেও পোস্টটি শেয়ার করবেন কিনা। তবে এই ফিচারের কারণে ভুল তথ্য ছড়ানো কমবে বলে মনে করছে ফেসবুক।