ভারতে লঞ্চ হল FAU-G, কোন ফোনে সাপোর্ট করবে এবং কত সাইজ জেনে নিন

fau-g-gaming-app-is-available-today-how-to-download-supported-device-and-size.jpg

অবশেষে ভারতীয় গেমারদের জন্য উপলব্ধ হল দীর্ঘ প্রত্যাশিত ব্যাটেল গেম FAU-G (ফিয়ারলেস অ্যান্ড উইনাইটেড গার্ডস)। পূর্ব ঘোষণা মতই আজ ৭২তম প্রজাতন্ত্র দিবস উপলক্ষ্যে, অ্যান্ড্রয়েড ইউজারদের জন্য এই দেশীয় মাল্টিপ্লেয়ার মোবাইল গেমটি লঞ্চ করেছে বেঙ্গালুরু ভিত্তিক সংস্থা এনকোর (nCore) গেমস। আগ্রহীরা এখন গুগল প্লে স্টোর থেকে এই গেমিং অ্যাপ্লিকেশনটিকে বিনামূল্যে ডাউনলোড করতে পারবেন, সাইজ মাত্র ৪৬০ এমবি। তবে, FAU-G গেমটি ইন্সটল করে খেলার জন্য আপনার স্মার্টফোনটিতে নিদেনপক্ষে অ্যান্ড্রয়েড ৮ বা তার পরবর্তী অপারেটিং সিস্টেম থাকতে হবে।

ফৌ-জি (FAU-G) গেমটির সম্পর্কে আশা করি নতুন করে কিছু বলার নেই। গত বছর থেকে বহুবার এই নামটি আমাদের সামনে এসেছে। এমনকি গত নভেম্বর থেকে গেমটির ফ্রি-রেজিস্ট্রেশন প্রক্রিয়া শুরু হয়েছিল, যাতে অল্প সময়ের মধ্যেই লক্ষাধিক অ্যান্ড্রয়েড ইউজার আগ্রহ দেখিয়েছিল বলে জানা গিয়েছিল। এই মুহূর্তে গেমটি কেবলমাত্র অ্যান্ড্রয়েড ইউজাররাই উপভোগ করতে পারবেন। যদিও আইওএস ইউজারদের জন্য কবে ফৌ-জি উপলব্ধ হবে তা এখনও পর্যন্ত জানা যায়নি!

একটি সাক্ষাৎকারে এনকোর গেমসের প্রতিষ্ঠাতা বিশাল গন্ডাল জানিয়েছেন, প্রযুক্তিগত সমস্যা রোধ করার জন্য লঞ্চ হওয়ার দিন থেকে কিছু সময় অবধি গেমটি কেবল সিঙ্গল প্লেয়ার এবং কো-অপারেটিভ প্লে মোডে খেলা যাবে। তবে খুব শীঘ্রই, গেমটিতে ব্যাটেল-রয়্যাল মোড এবং পিভিপি (প্লেয়ার vs প্লেয়ার) মোড দেখা যাবে।

এদিকে, ভারতে নিষিদ্ধ হওয়া PUBG Mobile গেমটি ফের উপলব্ধ হবে কিনা বা হলেও এটি কবে রি-লঞ্চ হবে সে বিষয়ে কোনো সুস্পষ্ট আপডেট নেই। ফলে এই সুযোগ কাজে লাগিয়ে, আগামী দিনে FAU-G গেমটি যে ইউজারদের দৃষ্টি আকর্ষণের চেষ্টা করবে এবং Call Of Duty বা Free Fire-এর মত অন্যান্য গেমের জনপ্রিয়তায় ভাগ বসাবে – এমন সম্ভাবনা উড়িয়ে দেওয়া যায়না।

প্রসঙ্গত, গত সেপ্টেম্বরে জনপ্রিয় ব্যাটেল-রয়্যাল গেম PUBG Mobile ব্যান হওয়ার প্রায় সাথে সাথেই ফৌ-জি গেমটির কথা সর্বসমক্ষে আসে। অভিনেতা অক্ষয় কুমারের মেন্টরশিপে, প্রধানমন্ত্রী মোদীর আত্মনির্ভর কর্মসূচিকে সমর্থন করতে গেমটির ডেভেলপিং শুরু করে এনকোর গেমস। এই গেমটিতে বৈদেশিক শক্তির বিরুদ্ধে ভারতীয় সেনাদলের লড়াইয়ের প্রেক্ষাপট থাকবে এবং গেমটির মাধ্যমে দেশের বীর সৈনিকদের কাহিনী প্রচার করা হবে। এছাড়া গেমটির থেকে লাভের ২০% অংশ ‘ভারত কে বীর’ ট্রাস্টে অনুদান দেওয়া হবে। তবে নভেম্বর মাসে গেমটির আনুষ্ঠানিক লঞ্চ হওয়ার কথা থাকলেও কোনো কারণে তা হয়নি। দু-তিনটি টিজার প্রকাশ্যে আসার পর শেষ অবধি আজ গেমটি উপলব্ধ হয়েছে।

A person who enjoys creating, buying, testing, evaluating and learning about new technology.