লঞ্চ হওয়ার একদিনের মধ্যে দশ লক্ষ ডাউনলোড ছাড়ালো FAU-G এর

fau-g-has-crossed-1-million-download-in-one-day-after-launch

গতকাল ৭২তম প্রজাতন্ত্র দিবসে লঞ্চ হয়েছে ভারতীয় ব্যাটেল-রয়্যাল গেম FAU-G (ফিয়ারলেস অ্যান্ড উইনাইটেড গার্ডস)। আপাতত অ্যান্ড্রয়েড ইউজাররাই এই মোবাইল গেমটি উপভোগ করতে পারবেন। গেমের আইওএস সংস্করণটি লঞ্চ হতে এখনও ৩-৪ মাস সময় লাগবে। কিন্তু তাতে গেমটিকে জনপ্রিয়তা অর্জন করতে বিশেষ বেগ পেতে হবে না বলেই মনে হচ্ছে। কারণ লঞ্চের প্রথম দিন থেকেই অ্যান্ড্রয়েড ইউজারদের থেকে ব্যাপক সাড়া পেয়েছে FAU-G, ইতিমধ্যে দেশীয় গেমিং অ্যাপটি ১ মিলিয়নেরও বেশিবার ইনস্টল হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

গত সেপ্টেম্বরে ভারতে জনপ্রিয় ব্যাটেল-রয়্যাল গেম PUBG Mobile ব্যান হওয়ার পর দু-তিনদিনের মধ্যেই ফৌ-জি (FAU-G) গেমটির কথা সবার সামনে আসে। এরপর বিগত কয়েক মাস ধরে মোবাইল গেমপ্রেমীরা এটির লভ্যতার জন্য অপেক্ষা করছিলেন। সেক্ষেত্রে গতকাল গেমটি কেবল অ্যান্ড্রয়েড প্ল্যাটফর্মে প্রকাশিত হওয়ার কিছু সময়ের মধ্যে ৪.১ রেটিং এবং ১ লক্ষেরও বেশি ইনস্টলেশন পেতে সক্ষম হয়েছে।

দেখা গিয়েছে, টিজার বা বিকাশকারীদের ঘোষণা মতই গেমটি গ্যালওয়ান সীমান্তে নিয়োজিত ভারতীয় সেনাবাহিনীর লড়াইয়ের কাহিনীর ওপর ভিত্তি করে তৈরি হয়েছে। তবে এখন গেমটি কেবল সিঙ্গল প্লেয়ার এবং কো-অপারেটিভ প্লে মোডে খেলা যাবে। যদিও এতে আরও কয়েকটি মোড তালিকাভুক্ত হয়েছে যার মধ্যে 5v5 টিম ডেথমেচ মোড উল্লেখযোগ্য। মনে করা হচ্ছে, আসন্ন আপডেটে এই মোডগুলিকে খেলার জন্য সক্ষম করবে ফৌ-জি। সেক্ষেত্রে জানিয়ে রাখি খুব শীঘ্রই, গেমটিতে ব্যাটেল-রয়্যাল মোড এবং পিভিপি (প্লেয়ার vs প্লেয়ার) মোড দেখা যাবে – এমনটা আগেই নিশ্চিত করেছে এনকোর গেমস।

অন্যান্য অপশনের কথা বললে ফৌ-জি গেমটিতে ইন-অ্যাপ পারচেসের সুযোগ রয়েছে যার ফলে প্লেয়াররা নতুন অস্ত্র, এক্স এবং আরও অনেক কিছু কিনতে পারবেন। এক্ষেত্রে প্লেয়াররা নগদ অর্থ ব্যবহার করে বা গেমটি খেলে অর্জিত পুরষ্কারের মাধ্যমে এই আইটেমগুলি কিনতে পারবেন।

এদিকে ডাউনলোড সংখ্যা মিলিয়ন ছাড়ালেও প্লেয়ারদের প্রত্যাশা খুব বেশি মেটাতে পারেনি FAU-G। প্লে স্টোরে রিভিউ সেকশনে বহু ইউজারই অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন। অনেকে আবার পাবজি-র সাথে তুলনাও টেনে এনেছেন। দেখা গেছে বেশির ভাগ ডাউনলোডকারীই সিঙ্গেল মোডে গেমটি খেলতে উৎসাহী নন। তাই, আগামী দিনে গেমটিতে অন্যান্য মোডগুলি চালু হলে ইউজারদের এই অভিমত পরিবর্তন হবে বলে আশা করা হচ্ছে।

প্রসঙ্গত, এনকোর (nCore) গেমস বিকশিত গেমটি গত ৩০ নভেম্বর থেকে গুগল প্লে স্টোরে প্রি-রেজিস্ট্রেশনের জন্য উপলভ্য ছিল। সেবারেও অল্প সময়ের মধ্যে লক্ষাধিক মানুষ গেমটির জন্য রেজিস্ট্রেশন করায় বেশ হইচই শুরু হয়েছিল।