Big Billion Days সেলে ১ হাজার বুর্জ খলিফার উচ্চতা সমান ফোন বিক্রির রেকর্ড Flipkart-এর

flipkart-big-billion-days-sale-report-revealed-smartphones-sold-like-1000-burj-khalifa-height

সদ্য গতকাল শেষ হয়েছে জনপ্রিয় ই-কমার্স প্ল্যাটফর্ম Flipkart-এর The Big Billion Days Sale। ৩ অক্টোবর, মধ্যরাত্রি থেকে সর্বসাধারণের জন্য এই সেল শুরু হয়েছিল, অবশ্য ফ্লিপকার্ট প্লাস ব্যবহারকারীরা ২ অক্টোবর থেকেই এই সেলের অ্যাক্সেস পেয়ে গিয়েছিলেন। উল্লেখ্য, এটি Flipkart Big Billion Days সেলের অষ্টম বছর ছিল। উৎসবের মরশুম উপলক্ষ্যে মানুষের কেনাকাটার আনন্দকে আরও বহুগুণে বাড়িয়ে দিতে এই সেলে ছিল অজস্র নজরকাড়া ডিল এবং অফার। তাছাড়া সেল শুরু হওয়ার পূর্বে বহু ক্রেতা তাদের পছন্দের প্রোডাক্ট প্রি-বুক করার সুযোগ পেয়েছিলেন। তাই প্রতি বছরের মতো এবারেও সেলটিকে ঘিরে ক্রেতামহলে ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনা লক্ষ্য করা গেছে। সেল শুরুর একেবারে প্রথম মুহূর্ত থেকে লক্ষ লক্ষ মানুষ সংস্থার অ্যাপ্লিকেশন এবং ওয়েবসাইটে ভিড় বাড়িয়েছেন। আর ফলস্বরূপ বিক্রিবাটার হার যে ব্যাপক মাত্রায় পরিলক্ষিত হয়েছে সেকথা আর নতুন করে বলার প্রয়োজন নেই।

এখনও পর্যন্ত ফ্লিপকার্ট বিগ বিলিয়ন ডেজ সেল যে পরিমাণ বিকিকিনির পরিসংখ্যান তুলে ধরছে তা নিঃসন্দেহে তাক লাগিয়ে দেওয়ার মতো। সংস্থার মতে, এই সেলে কেনাকাটার সুবাদে সকল ভারতীয় ক্রেতারা যে পরিমাণ টাকা সেভ করতে পেরেছেন, তার অঙ্কটা প্রায় ১১৫,০০০,০০০,০০০ টাকার কাছাকাছি! সংখ্যাটা দেখে মাথা ঘুরে গেল না তো? যদি গিয়ে থাকে, তাহলে এই ধরনের আরও অনেক চমকপ্রদ তথ্য আমরা আপনাদের জানাতে চলেছি।

ফ্লিপকার্ট বিগ বিলিয়ন ডেজ সেলে বিভিন্ন ক্যাটাগরির প্রোডাক্টের উপর আকর্ষণীয় ছাড় এবং অফার থাকলেও বিপুল সংখ্যক স্মার্টফোন বিক্রির এক সুস্পষ্ট চিত্র ফুটে উঠেছে, পাশাপাশি অন্যান্য প্রোডাক্ট বিক্রির পরিমাণও চোখে পড়ার মতো। সংস্থার মতে, সেল চলাকালীন মোট স্মার্টফোন বিক্রির সংখ্যাটা ১,০০০ বুর্জ খলিফার উচ্চতার চাইতেও বেশি! আবার সেকেন্ড পিছু দুটি করে ঘড়ি বিক্রি হয়েছে বলে জানা গেছে। এত বিপুল সংখ্যক ম্যাট্রেস বিক্রি হয়েছে যা দিয়ে পঁচিশটি ফুটবল মাঠ ঢেকে ফেলা যাবে। এছাড়া, যে পরিমাণ সোফা বিক্রি হয়েছে তাতে ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামের সমস্ত দর্শককে বসার জায়গা করে দেওয়া যাবে।

এখানেই শেষ নয়, আপনাদের চমকে দিতে এখনও অনেক তথ্য জানানো বাকি আছে। Flipkart Big Billion Days সেলে মোট বিক্রিত চায়ের পরিমাণ দিয়ে প্রায় ৫০ লাখ কাপ চা বানিয়ে ফেলা সম্ভব। মাত্র ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ১.২ লাখ চকোলেট বার বিক্রি হয়েছে। ক্রেতারা যে পরিমাণ জুতো কিনেছেন, তার সংখ্যাটা মাউন্ট এভারেস্টের উচ্চতার চেয়েও ১০০ গুণ বেশি। এসবের পাশাপাশি রান্নার কাজে ব্যবহৃত বিভিন্ন জিনিসের ক্ষেত্রেও ব্যাপক বিক্রির হার লক্ষ্য করা গেছে। এত বেশি পরিমাণ তেল বিক্রি হয়েছে যা দিয়ে প্রায় ৯ লক্ষ প্লেট ফ্রেঞ্চ ফ্রাই প্রস্তুত করা যাবে। এছাড়া, ১৫ টি নীল তিমির ওজনের সমান আটা এবং ডাল বিক্রি হয়েছে বলে জানা গেছে। সেলে বিক্রি হওয়া মোট রেফ্রিজারেটর ৫৫ মিলিয়ন সফট ড্রিংকসের ক্যানকে ঠান্ডা করতে সক্ষম।

পাঁচটি আইফেল টাওয়ারকে আলোকিত করতে পারে এত বিপুল সংখ্যক বালবও বিক্রি হতে দেখা গেছে এই সেলে। এসব জিনিসের পাশাপাশি পরিবেশ সুরক্ষার্থে ক্রেতারা এত বেশি মাত্রায় চারাগাছ কিনেছেন যা প্রতিদিন ৩৭ হাজার লিটার অক্সিজেন প্রদান করতে সক্ষম। জিনিসপত্র বিক্রির পাশাপাশি এই সেলে ১৩ মিনিটের মধ্যে দ্রুত ফোন ডেলিভারি এবং ১০ মিনিটের মধ্যে গ্রোসারি অর্ডার ডেলিভারি করেছে Flipkart। এককথায় বলতে গেলে, ক্রেতাদের সর্বাঙ্গীণভাবে এক উন্নত, সুসমৃদ্ধ, ও লাভদায়ক শপিং এক্সপেরিয়েন্স প্রদান করতে সম্পূর্ণভাবে সফল Flipkart-এর এই বছরের Big Billion Days Sale।

হোয়াটসঅ্যাপে খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন

শুভেচ্ছা বহুমুখী প্রতিভার অধিকারী। তিনি একদিকে যেমন ফটোগ্রাফার, তেমনি পাশাপাশি লেখিকাও। এছাড়াও তার শখের মধ্যে আছে বই পড়া, গান গাওয়া, ছবি আঁকা এবং ওয়েব ডিজাইন। শুভেচ্ছা আমাদের টেকগাপ পরিবারের একজন নতুন সদস্য।