WhatsApp এর পর এবার নির্বিঘ্নে Gmail পরিষেবা পেতে মানতে হবে নতুন পলিসি

google-introduce-new-policy-for-gmail-to-enjoy-all-features-in-us

সাম্প্রতিক সময়ে মেসেজিং মাধ্যম WhatsApp তার প্রাইভেসি পলিসিতে বদল আনার কথা জানানোর পর, সারা বিশ্ব জুড়ে কিভাবে বিতর্কের ঝড় বয়ে গেছে তা আমাদের সকলেরই জানা! ফেসবুকের মালিকানাধীন প্ল্যাটফর্মটির নীতিমালা সংক্রান্ত আকস্মিক সিদ্ধান্তটিকে কেন্দ্র করে গত দু-সপ্তাহ ধরে সরগরম ছিল সংবাদ মাধ্যম এবং সোশ্যাল মিডিয়া। ভারতসহ বিশ্বব্যাপী ইউজারদের তীব্র সমালোচনা এবং অসন্তোষের মুখে পড়ে অবশেষে WhatsApp, আরও কয়েক মাস পর তার নতুন পলিসি কার্যকর করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। ফলে ফের এই মেসেজিং মাধ্যমটিতে স্বচ্ছন্দে সময় কাটাচ্ছেন ইউজাররা। কিন্তু সোশ্যাল মিডিয়ায় মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে অন্য একটি জল্পনা, যার কেন্দ্রবিন্দুতে রয়েছে Gmail পরিষেবা! সাম্প্রতিক সময়ে, টেক জায়ান্ট Google-ও তার ইমেল পরিষেবার নীতিমালাতে কিছু পরিবর্তন আনে। এই বিষয়টি সামনে আসার পর আশঙ্কা শুরু হয় যে নতুন বিধি না মানলে বন্ধ হয়ে যাবে গুগল বা জিমেইল অ্যাকাউন্ট। ঠিক কী রয়েছে গুগলের নীতিমালায়? তবে কি হোয়াটসঅ্যাপের দেখানো পথেই হাঁটছে গুগল? আসুন জেনে নিই…

গুগল কর্তৃক নির্ধারিত জিমেইলের নতুন নীতিমালা অনুযায়ী, ইউজাররা এখন তাদের ব্যক্তিগত ডেটা এবং সাপোর্ট অপশনগুলি নিয়ন্ত্রণ করতে পারবেন। বিস্তারিতভাবে বললে, এই আপডেটের মাধ্যমে ইউজাররা জানতে পারবেন যে তারা গুগলের সাথে কী ধরণের ডেটা শেয়ার করছেন বা কোন ডেটা শেয়ার করছেন না। এক্ষেত্রে, কোনো ইউজার যদি গুগলের এই নতুন নিয়মে সায় দেয় তবে সে একটি পপ-আপ নোটিফিকেশন পাবে যা জিমেইল অ্যাপ খোলার সময় স্ক্রিনে প্রদর্শিত হবে।

নির্বিঘ্নে Gmail পরিষেবা ব্যবহার করতে হলে গুগলের এই নতুন নিয়ম অনুসরণ করা একান্ত প্রয়োজন। তবে জানিয়ে রাখি, কোনো ব্যবহারকারী যদি এই নিয়মগুলি না মানেন তবে আশঙ্কার কোনো কারণ নেই। জিমেইলের নতুন পলিসি না মানলেও তার অ্যাকাউন্টটি বন্ধ হবে না। তবে ওই ইউজার, জিমেইলের কিছু বিশেষ ফিচারের (যেমন অটোমেটিক ইমেল ফিল্টারিং, স্মার্ট কম্পোজ, অ্যাসিস্ট্যান্ট রিমাইন্ডার ইত্যাদি) সুবিধা নিতে পারবেন না।

এই প্রসঙ্গে বলে রাখি, অটোমেটিক ইমেল ফিল্টারিং ফিচারটি জিমেইল ইউজারদের ইনবক্সের মেইলগুলিকে প্রাইমারী, সোশ্যাল এবং প্রোমোশন – তিনটি সেকশনে ভাগ করে দেয়। আবার অ্যাসিস্ট্যান্ট রিমাইন্ডার ফিচারটির সাহায্যে ইউজাররা তাদের বিল মেটানোর তারিখ সম্পর্কে একটি রিমাইন্ডার পান, যাতে তারা সময়মত বিল পরিশোধ করতে সক্ষম হবেন। এছাড়া, স্মার্ট কম্পোজ ফিচারটি, ইউজারদের কোনো ইমেল লেখার সময় বানান এবং টাইপিং সংশোধন করতে সহায়তা করবে।

তবে আপনি যদি ভারতে বসবাস করেন এবং সোশ্যাল মিডিয়ার জল্পনা বা প্রতিবেদনের ওপরের অংশটুকু পড়ে উদ্বিগ্ন হয়ে থাকেন তাহলে বলব আপনার চিন্তা করার দরকার নেই, কারণ গুগল কেবল যুক্তরাজ্যের জিমেইল ব্যবহারকারীদের জন্য এই নতুন বিধিগুলি জারি করেছে। তাছাড়া, এই নীতিমালা ভারতের জন্য প্রযোজ্য হবে এমন কোনো আনুষ্ঠানিক ঘোষণা করেনি গুগল। তাই আপাতত ভারতীয়দের জিমেইলের নতুন নিয়ম অনুসরণ করা বা না করা নিয়ে মাথা ঘামানোর কিছুই নেই!