অক্টোবর মাসে ভারতে বন্ধ হচ্ছে গুগল প্লে মিউজিক, ইউজাররা পাবে ইউটিউব মিউজিকের সুবিধা

google-play-music-stop-working-october-india-youtube-music-replace

গান শুনতে কে না ভালোবাসে। কিন্তু রেডিও বা রেকর্ডারের যুগ গেছে, এখন হাতের স্মার্টফোন বা কম্পিউটারে গান শুনতেই আমরা বেশি অভ্যস্থ। অনলাইন মিউজিক প্ল্যাটফর্ম হিসাবে Google Play Music একটি জনপ্রিয় নাম। কিন্তু এবার গুগলের এই পরিষেবার সমস্ত উপভোক্তাদের জন্য রয়েছে একটি দুঃসংবাদ! চলতি বছরের অক্টোবর মাসের পর থেকে ভারতসহ বিশ্বের বিভিন্ন মার্কেটে বন্ধ হবে গুগল প্লে মিউজিক। সংস্থাটি ঘোষণা করেছে, Google Play Music ইউজাররা তাদের সমস্ত কন্টেন্ট, YouTube Music-এ ট্র্যান্সফার করার জন্য ডিসেম্বর পর্যন্ত সময় পাবেন। অর্থাৎ গুগল প্লে মিউজিকের সমস্ত পরিষেবা এবার থেকে ইউটিউব মিউজিকে পাওয়া যাবে।

টেক জায়ান্ট গুগল একটি ব্লগ পোস্টে লিখেছে, এইমাস থেকেই গুগল প্লে মিউজিক ইউজাররা, মিউজিক কিনতে, প্রি-অর্ডার করতে, এবং ডাউনলোড বা আপলোড করতে পারবেননা এবং আগামী মাস থেকে Google Play Music থেকে আর কোনো গান শোনা যাবেনা। ব্লগ পোস্ট অনুযায়ী, নিউজিল্যান্ড এবং দক্ষিণ আফ্রিকার ইউজাররা সেপ্টেম্বর থেকে এই অ্যাপটি আর ব্যবহার করতে পারবেননা। ভারত সহ অন্যান্য আন্তর্জাতিক বাজারে অক্টোবরের পর থেকে অ্যাপটি অ্যাক্সেস করা যাবেনা।

অন্যদিকে YouTube একটি ব্লগ পোস্টে জানিয়েছে, গুগল প্লে মিউজিক পরিষেবাটি ইউটিউব মিউজিকের মাধ্যমে রিপ্লেস করা হবে। এবছরের ডিসেম্বর মাস অবধি সময়ের মধ্যে প্লে মিউজিক ইউজাররা তাদের প্লে-লিস্ট, মিউজিক লাইব্রেরি এবং প্রেফারেন্সগুলি ইউটিউব মিউজিকে ট্রান্সফার করতে পারবেন। ডিসেম্বরের পরে এই ধরণের ট্রান্সফার আর করা যাবেনা।

কীভাবে গুগল প্লে মিউজিক থেকে ইউটিউব মিউজিকে কন্টেন্ট ট্রান্সফার করবেন?

১. কন্টেন্ট ট্রান্সফারের জন্য music.youtube.com/transfer ওয়েবসাইটে গিয়ে ট্রান্সফার অপশনে ক্লিক করতে পারেন।
২. অ্যাপে একটি ট্রান্সফার টুল পেয়ে যাবেন। এর জন্য প্রথমে নিজের প্রোফাইল পিকচার> সেটিংস> ট্রান্সফারে ক্লিক করুন এবং গুগল প্লে মিউজিক থেকে ডেটা ট্রান্সফার করুন। আপনারা এর মধ্যে মধ্যে যে কোনও একটি পদ্ধতি অনুসরণ করতে পারেন।

গুগল তাদের গুগল প্লে মিউজিক সাবস্ক্রিপশনটিকে ইউটিউব মিউজিক প্রিমিয়াম বা ইউটিউব প্রিমিয়ামে রূপান্তর করবে। টেক জায়ান্ট সংস্থাটি আরো জানিয়েছে আসন্ন দিনগুলিতে গুগল প্লে স্টোর এবং মিউজিক ম্যানেজারে বেশ কিছু পরিবর্তন দেখা যাবে।

ইতিমধ্যেই YouTube Music অ্যাপে বেশ কয়েকটি নতুন ফিচার এনেছে সংস্থাটি। এই অ্যাপ্লিকেশনে উন্নত প্লেব্যাক কন্ট্রোল উপভোগ করতে পারবেন ইউজাররা। এছাড়া ইচ্ছেমত প্লে লিস্ট বানানো যাবে। ইউটিউব মিউজিক মোবাইল এবং ওয়েব, উভয় প্ল্যাটফর্মেই উপলব্ধ।