রিজার্ভ ব্যাংকের নির্দেশে ১০০টি লোন অ্যাপকে প্লে স্টোর থেকে সরালো Google

google-play-store-removes-100-loan-apps-as-per-rbi-order

অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইস যদি শপিং ব্যাগ হয় তবে গুগল প্লে স্টোর অবশ্যই শপিং মল! স্মার্টফোনের যাবতীয় অ্যাপ্লিকেশন ডাউনলোড বা আপডেটের জন্য এই অ্যাপ্লিকেশন স্টোরটির জুড়ি মেলা সত্যিই ভার। কিন্তু সাম্প্রতিক সময়ে নিজের এই প্লে স্টোর প্ল্যাটফর্মের নীতিমালাটিকে বেশ কড়া করে তুলেছে গুগল (Google)। এই কারণে টেক জায়ান্ট সংস্থাটি, প্রায়ই বহু অ্যাপ্লিকেশনকে রিমুভ করছে। গত মাসের মাঝামাঝি সময়েও কয়েকটি লোন (ঋণদানকারী) অ্যাপকে সরানো হয়েছিল বলে জানা গিয়েছিল। তবে মাস ঘুরতে না ঘুরতেই, রিজার্ভ ব্যাংক (RBI)-এর নির্দেশনা মেনে ভারতীয় অ্যান্ড্রয়েড প্লে স্টোর থেকে ফের ১০০টি লোন অ্যাপকে অপসারণ করল সংস্থাটি।

আসলে বিগত কয়েক মাস ধরে ভারত সরকার এবং ভারতীয় রিজার্ভ ব্যাংক বিভিন্ন অর্থ ঋণদানকারী অ্যাপগুলির বিষয়ে তদন্ত শুরু করেছে। কারণ অভিযোগ উঠেছে যে, এই অ্যাপ্লিকেশনগুলি ইউজার স্বল্প অঙ্কের লোন নেওয়ার সুযোগ দেয় যার টাকা ইউজাররা সরাসরি তারা সরাসরি ই-কমার্স সাইটগুলিতে ব্যবহার করতে বা ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে স্থানান্তর করতে পারেন। কিন্তু এই লোনগুলিতে ঋণ পরিশোধের মেয়াদ খুব কম দেওয়া হয় এবং অতিমাত্রায় সুদের হার ধার্য করা হয়। যার জেরে ইউজাররা এক ফাঁদে আটকে পড়েন এবং অনেক সময় আত্মহত্যা করতেও বাধ্য হন। তাই, প্লে স্টোরে উপলব্ধ ওই ফিনটেক অ্যাপগুলির বিরুদ্ধে অনেক ইউজার এবং সরকারী সংস্থা ক্ষোভ প্রকাশ করেন এবং এগুলির সত্বর অপসারণের দাবি করেন। এদিকে উক্ত পরিস্থিতির কথা জানা মাত্রই নড়েচড়ে বসে গুগল।

এর আগে, একটি ব্লগ পোস্টে গুগলের ভারতীয় শাখাটি জানিয়েছিল যে স্থানীয় আইন ও নীতি লঙ্ঘনকারী যেকোনো লোন অ্যাপকে তারা প্লে স্টোর প্ল্যাটফর্ম থেকে সরিয়ে ফেলবে। তাছাড়া গত মাসে Rupeeclick, 10MinuteLoan, Ex-Money, Extra Mudra, Cashguru, StuCred, LazyPay ইত্যাদি অ্যাপ রিমুভ করার সময়েও গুগল জানিয়েছিল যে, এই ধরণের অন্যান্য অ্যাপ্লিকেশনগুলির ডেভেলপারদের ইমেইলের মাধ্যমে সতর্ক করা হবে এবং ইমেইলের নির্দিষ্ট প্রত্যুত্তর না পাওয়া গেলে অ্যাপ্লিকেশনগুলিকে কোনো রকম বিজ্ঞপ্তি ছাড়াই প্লে স্টোর থেকে সরানো হবে। সেক্ষেত্রে দুইয়ে দুইয়ে চার করে মনে হচ্ছে, উপযুক্ত উত্তর না মেলাতেই বিপুল সংখ্যক লোন অ্যাপকে প্লে স্টোরে জায়গা দিতে অস্বীকার করেছে গুগল।

তবে তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রক (MEITY) জানিয়েছে যে, এই ১০০টি অ্যাপ্লিকেশনের ওপর ইউজারের ডেটা সংগ্রহ এবং সেই ব্যক্তিগত ডেটার অপব্যবহার জাতীয় একাধিক গুরুতর অভিযোগ রয়েছে। পাশাপাশি অ্যাপগুলি, ইউজারদের থেকে লোনের টাকা ফেরত নেওয়ার জন্য শারীরিক হুমকিসহ একাধিক অবৈধ পদ্ধতি অনুসরণ করত বলেও দাবি করা হয়েছে।

হোয়াটসঅ্যাপে খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন