Google Maps আনলো ইকো-ফ্রেন্ডলি রুট, বেড়ে যাবে আপনার বাইক বা গাড়ির মাইলেজ

Google Maps এর eco-friendly route ফিচার ব্যবহার করে কমানো যাবে পেট্রোল খরচ

google-rolls-out-eco-friendly-route-can-increase-your-car-or-bike-mileage

সড়ক পথ থেকে শুরু করে রাস্তার ধার বেয়ে সরীসৃপের মতো চলে যাওয়া গলিগালার নাড়ি-নক্ষত্র সবই Google Maps এর নখদর্পণে। ফলে জনপ্রিয় এই নেভিগেশন অ্যাপ্লিকেশনটি রাস্তা সম্পর্কে অনভিজ্ঞ ব্যক্তি বা আগন্তুকদের জন্য পরিত্রাতা স্বরূপ। রাস্তাঘাটের অবস্থান ছাড়াও, বাস, ট্রেন জাতীয় পরিবহন মাধ্যমের স্ট্যাটাস ট্র্যাক, বা যানজটের আভাস পেতে আমরা সকলেই প্রায় কম-বেশি এই অ্যাপটি ব্যবহার করে থাকি। টেক জায়ান্ট Google -ও ইউজারদের সুবিধার জন্য প্রায়শই নিত্যনতুন ফিচার জুড়তে থাকে তাদের এই ভার্চুয়াল মানচিত্র পরিষেবায়। যেমন কিছু দিন আগেই Google Maps -এ এমন একটি ফিচার যোগ করা হয়েছিল, যা টোল গেট ও ট্যাক্স সম্পর্কে আগেভাগেই জানিয়ে দিতে সক্ষম। তবে এবার Google Maps-এ এমন একটি ফিচার আসছে, যা দিকনির্দেশনার সাথে পেট্রোলের খরচাও বাঁচাবে।

Google Maps এর eco-friendly route ফিচার ব্যবহার করে কমানো যাবে পেট্রোল খরচ

গুগল ম্যাপসের নতুন ফিচার ইকো-ফ্রেন্ডলি রুট দেখাবে ইউজারদের। অর্থাৎ, সবথেকে কম জ্বালানি খরচ হবে এমন রাস্তার বিকল্পও এবার থেকে দেখা যাবে নেভিগেশন অ্যাপটিতে। ফলে পেট্রোলের দাম এখন ১০৪ টাকা ছুঁলেও, গুগল ম্যাপসের এই নতুন ফিচারের সহায়তায় আপনারা নিজেদের মাসিক পেট্রোল খরচকে খানিকটা হলেও কমাতে পারবেন। জানিয়ে দিই, ছোট আকৃতির সবুজ পাতা দ্বারা চিহ্নিত থাকবে এই ‘ফুয়েল-সেভিং’ রুট। ‘ইকো-ফ্রেন্ডলি রুট’ ছাড়াও, ‘ফাস্টেস্ট রুট’ নামে আরেকটি বিকল্প থাকছে। ফলে উল্লেখিত দুটি রুটের মধ্যে যেকোনো একটিকে ইচ্ছানুসারে চয়ন করা যাবে।

চলতি বছরের শুরুর দিকে, গুগল, একটি ব্লগ পোস্টের মাধ্যমে এই নয়া ফিচার লঞ্চ করার ঘোষণা করেছিল। তৎকালীন সময়ে বলা হয়েছিল, নতুন রুট মডেলটি গন্তব্যে পৌঁছনোর ‘ফাস্টেস্ট’ রুট দেখানোর পাশাপাশি, কম জ্বালানি খরচ হবে এমন রুটের বিকল্পও দেখাবে। ফাস্টেস্ট ও ইকো-ফ্রেন্ডলি রুটের পার্থক্য বুঝিয়ে, গুগল ম্যাপের ট্রান্সপোর্টেশন বিভাগের সিনিয়র ডিরেক্টর রাসেল ডিকার (Russell Dicker) বলেছেন, ইকো-ফ্রেন্ডলি বা ফুয়েল সেভিং (জ্বালানি-সাশ্রয়ী) রুট বেছে নেওয়ার ক্ষেত্রে তুলনায় দীর্ঘ পথ ধরতে হবে, যা দূরত্ব, সময় ও স্পিডের উপর প্রভাব ফেলবে। অন্যদিকে, যারা পেট্রোল খরচের থেকেও সময়কে বেশি প্রাধান্য দেন তাদের জন্য হলো ফাস্টেস্ট রুট। উক্ত দুটি রুটের মধ্যে কোনটিতে কম পেট্রল খরচ করে চটজলদি গন্তব্যে পৌঁছনো যাবে তার তুলনামূলক গ্রাফ দেখানো হবে ম্যাপে।

গুগল ম্যাপসে, সময় ও জ্বালানির খরচের সাথেই, ইউজারদের কাঙ্খিত ঠিকানায় পৌঁছতে তাদের বাহন ঠিক কতটা কার্বন নির্গমন করবে তা দেখাতে একটি ডিফল্ট অপশন নিয়েও কাজ করছে গুগল। এই ফিচার, যানবাহনের জন্য প্রতি বছর নির্গত ১ মিলিয়ন টন কার্বনের হারকে বৃদ্ধি পাওয়ার থেকে রুখতে পারবে বলে বিশ্বাস গুগলের।

Google Map এর নতুন ফিচার রোলাআউট হলো মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে

গুগল ম্যাপের রুট মডেল সংক্রান্ত এই নয়া ফিচার ইতিমধ্যেই মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে রোলআউট করে দেওয়া হয়েছে বলে জানা গেছে। অ্যান্ড্রয়েডের পাশাপাশি আইওএস ডিভাইসেও এই ফিচারটি ব্যবহার করা যাবে। আগামী বছরের মধ্যে ভারত সহ বিশ্বের প্রতিটি দেশে এই গুগল ম্যাপস ফিচারটি উপলব্ধ করা হবে বলে আমরা আশা করছি।

শীঘ্রই আসছে Google Map এর Lite Navigation

গুগল ম্যাপস, সাইকেল আরোহীদের জন্য খুব শীঘ্রই লাইট নেভিগেশন নিয়ে আসতে চলেছে। রাসেলের বিবৃতিতে, “গত এক বছরে গুগল ম্যাপসে বাইকিং ডিরেকশন সার্চের পরিমান দেখে লাইট নেভিগেশন ফিচার লঞ্চ করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।” লাইট নেভিগেশনের সাহায্যে সাইক্লিস্ট বা সাইকেল আরোহীরা চটজলদি রুট ডিটেইলস অ্যাক্সেস করতে পারবেন। এর জন্য তাদের ফোনে এই নেভিগেশন অ্যাপ অন রাখতে হবে। এই ফিচার অ্যান্ড্রয়েড এবং আইওএস উভয় ডিভাইসের সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ হবে।

হোয়াটসঅ্যাপে খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন

শুভেচ্ছা বহুমুখী প্রতিভার অধিকারী। তিনি একদিকে যেমন ফটোগ্রাফার, তেমনি পাশাপাশি লেখিকাও। এছাড়াও তার শখের মধ্যে আছে বই পড়া, গান গাওয়া, ছবি আঁকা এবং ওয়েব ডিজাইন। শুভেচ্ছা আমাদের টেকগাপ পরিবারের একজন নতুন সদস্য।