বিদেশি নয়, আসছে হোয়াটসঅ্যাপের ভারতীয় ভার্সন, জানালেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী

indian-version-of-whatsapp

করোনা মহামারীর মধ্যে আজ ইন্ডিয়া টুডের দ্বারা একটি ই-এজেন্ডা কার্যক্রমের আয়োজন করা হয়েছিল। এই কার্যক্রমে মোদি সরকারের ১৭ জন মন্ত্রী সামিল ছিলেন এবং তারা সরকারের পরবর্তী পরিকল্পনার ব্যাপারে আমাদের জানিয়েছেন। ‘আরোগ্য’ যন্ত্রে জয়ের মন্ত্র নামক কার্যক্রমে আজ মোদি সরকারের আইটি এবং সঞ্চার মন্ত্রী রবি শংকর প্রসাদ অংশগ্রহণ করেছিলেন। তিনি আজ আলোচনার মধ্যে একটি গুরুত্বপূর্ণ তথ্য আমাদের সাথে শেয়ার করেন। তিনি জানান যে, ভারত সরকার ভারতীয় হোয়াটসঅ্যাপ তৈরি করার জন্য কাজ করতে শুরু করে দিয়েছে।

আরোগ্য যন্ত্রে জয়ের মন্ত্র সেশনে রবি শংকর প্রসাদ বলেন, ভারতে ন্যাশনাল ইনফোম্যাটিক্স সেন্টার বা এনআইসি এবং সেন্টার ফর ডেভেলপমেন্ট অফ টেলিম্যাটিক্স বা সি ডট দ্বারা ভারতীয় হোয়াটসঅ্যাপ তৈরি করার উপর কাজ চলছে।

এছাড়াও ভিডিও কনফারেন্সিং অ্যাপ্লিকেশন জুমের বিষয়ে জানতে চাওয়া হলে মন্ত্রী জানান, ভারত সরকার এই অ্যাপ্লিকেশনের বিকল্প তৈরি করার প্রকল্প নিয়েছে। এছাড়াও ভারত সরকার ভারতীয় আইটি প্রোডাক্ট তৈরি করার জন্য মানুষকে উৎসাহিত করছে। এর জন্য ছোট এবং বড় ৩,০০০টি কোম্পানির আবেদনপত্রও সরকারের কাছে এসেছে।

এছাড়াও ওয়ার্ক ফ্রম হোম নিয়েও আলোচনা হয়েছে, এবং সেখানে আইটি এবং সঞ্চার মন্ত্রী জানিয়েছেন ‘ওয়ার্ক ফ্রম হোম’ -র সুবিধা আমরা আরো মজবুত করেছি এবং এটিকে স্থায়ী করার জন্য কাজ চলছে।

এছাড়াও আলোচনা হয়েছে ভারত সরকারের কন্ট্যাক্ট ট্রেসিং অ্যাপ্লিকেশন আরোগ্য সেতু নিয়েও। এখানে তিনি আরোগ্য সেতু অ্যাপ্লিকেশনের উপরে ওঠা বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দিয়েছেন। কিছুদিন আগে কংগ্রেসের প্রাক্তন অধ্যক্ষ রাহুল গান্ধী দাবি করেছিলেন যে, এই অ্যাপ্লিকেশন মানুষের প্রাইভেসির ওপর একটি প্রশ্ন চিহ্ন তুলে দেয়। এই আলোচনায় তিনি রাহুল গান্ধীর এই দাবিকে সম্পূর্ণরূপে নাকচ করেন এবং জানান, যে আরোগ্য সেতু অ্যাপ্লিকেশনটি সম্পূর্ণরূপে সুরক্ষিত এবং আরো জানান যে, যদি কোন টেকনোলজি এক্সপার্টের মনে হয় যে এই অ্যাপ্লিকেশনে আরও কিছু পরিবর্তন করা প্রয়োজন তাহলে তা ভারত সরকারকে জানাক। তিনি আরো জানান যে, এই অ্যাপ্লিকেশন এর সমস্ত তথ্য এনক্রিপটেড এবং এই অ্যাপ্লিকেশনে সাধারণত ৩০-৬০ দিনের মধ্যে স্টোর করা তথ্য আপনা থেকেই সরে যায়।