RBI Retail Direct Scheme: সরকারি ঋণপত্রে সাধারণ মানুষের লগ্নির করার সুযোগ দেবে কেন্দ্রের নয়া প্রকল্প

RBI গভর্নর বলেছেন, প্রকল্প দুটির মাধ্যমে দেশে বিনিয়োগ-ক্ষেত্র আরও প্রসারিত হবে এবং বিনিয়োগ বিষয়ে পুঁজিবাদের ব্যবহারও অনেক বেশী নিরাপদ হবে

government-launches-rbi-retail-direct-for-common-people-investment-heres-how-it-works

রিজার্ভ ব্যাংকের গ্রাহক পরিষেবা ও দেশের অর্থনৈতিক ক্ষেত্রে খুচরো বিনিয়োগ বৃদ্ধির উদ্দেশ্যে, সম্প্রতি, নয়া দুই প্রকল্প শুরু করা হল কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে। শুক্রবার, একটি ভার্চুয়াল বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী, আনুষ্ঠানিক ভাবে সর্বসাধারণের জন্য এই দুই প্রকল্প উদ্বোধন করেন। সদ্য চালু হওয়া প্রকল্প দুটির পোষাকি নাম ‘RBI রিটেল ডাইরেক্ট স্কিম’ (RBI Retail Direct Scheme) ও ‘ইনট্রিগেটেড ওমবুডস্ম্যান স্কিম’ (Integrated Ombudsman Scheme)।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ছাড়াও, এই ভার্চুয়াল অনুষ্ঠানটিতে উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমন (Nirmala Sitharaman) ও রিজার্ভ ব্যাংকের বর্তমান গভর্নর শক্তিকান্ত দাস (Shaktikanta Das)। এদিন অনুষ্ঠান শেষে প্রধানমন্ত্রী বলেন, প্রকল্প দুটির মাধ্যমে দেশে বিনিয়োগ-ক্ষেত্র আরও প্রসারিত হবে এবং বিনিয়োগ বিষয়ে পুঁজিবাদের ব্যবহারও অনেক বেশী নিরাপদ হবে।

প্রসঙ্গত জানিয়ে রাখা দরকার, চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি মাসেই RBI-এর তরফে গভর্মেন্ট সিকিউরিটিজে (G-securites) ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীদের যোগদান বৃদ্ধির উদ্দেশ্যে ‘আর বি আই রিটেল ডাইরেক্ট স্কিম’ টি চালু করার কথা ঘোষণা করা হয়। এই স্কিমের মাধ্যমে খুচরো বিনিয়োগকারীরা অনলাইনে গভর্মেন্ট সিকিউরিটিজে অর্থ লগ্নি করতে পারবেন। প্রাথমিক ও সেকেন্ডারি উভয় মার্কেটেই বিনিয়োগের পরিষেবা প্রদান করা হবে। রিজার্ভ ব্যাংকের রিপোর্ট অনুযায়ী, এই প্রকল্পের আওতায় ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীরা কোনো কর প্রদান ছাড়াই নিজের নামে ‘রিটেল ডাইরেক্ট গিল্ট অ্যাকাউন্ট’ (Retail Direct Gilt Account) নামে একটি সরকারি সিকিউরিটিজ অ্যাকাউন্ট খুলতে পারবে।

চলতি বছরের জুলাই মাসে, RBI দ্বারা জারিকৃত একটি বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী, ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীদের RDG – অ্যাকাউন্ট খোলার জন্য একটি ভারতীয় সেভিংস ব্যাংক অ্যাকাউন্ট, আয়কর দপ্তরের প্রদান করা একটি PAN-কার্ড, যে কোনো একটি বৈধ সরকারি নথি (Aadhaar card, Votar card ইত্যাদি), একটি বৈধ ইমেল আইডি ও একটি রেজিস্টার্ড মোবাইল নাম্বার থাকা প্রয়োজনীয়। এককভাবে অথবা উপরের শর্তগুলি পূরণ করছে এমন কারো সাথে যুগ্ম ভাবেও RDG- অ্যাকাউন্ট খোলা যাবে।

একটি ফর্ম ফিলাপের মাধ্যমে, অনলাইন পোর্টালটিতে রেজিস্টার করে খুব সহজেই এই RDG অ্যাকাউন্টটি খুলে ফেলা সম্ভব। অ্যাকাউন্ট খোলার পর খুচরো বিনিয়োগকারীরা প্রাইমারি মার্কেট (যেখানে গভর্মেন্ট বন্ডগুলি প্রথম বারের জন্য চালু করা হয়েছে) থেকে বন্ডগুলি কিনতে অথবা সেকেন্ডারি মার্কেট (যেখানে আগে থেকেই বন্ডগুলির অস্তিত্ব ছিল) থেকে কিনতে বা বেচতে পারবেন। আরবিআই এর তথ্য অনুযায়ী, RDG- অ্যাকাউন্ট খোলার ক্ষেত্রে কোনো আলাদা ফি লাগছে না। এমনকী মধ্যস্থতাকারীদের ক্ষেত্রেও আলাদা কোনো ফি দাবি করা হবে না। শুধু পেমেন্ট মাধ্যমের ফি-গুলি বিনিয়োগকারীদের নিজেদের বহন করতে হবে। এছাড়াও RDG- অ্যাকাউন্টে বিনিয়োগকারীদের জন্য থাকছে আরও কিছু পরিষেবা। যেমন, অ্যাকাউন্টটিতে জমা সিকিউরিটিজ থেকে প্রয়োজনে লোন নেওয়ার সুবিধা, নিজের অ্যাকাউন্টে থাকা G-securities অন্য কোনো খুচরো বিনিয়োগকারীকে উপহারস্বরূপ প্রদান করার ব্যবস্থা, অভিযোগ ও তথ্য সম্পর্কিত বিষয়ে জানানো ও জানতে চাওয়ার জন্য একটি আলাদা পোর্টালের ব্যবস্থা,অ্যাকাউন্ট টিতে ট্রান্সজাকশন সম্পর্কিত তথ্য ও উপলব্ধ ব্যালেন্স দেখিয়ে দেওয়ার ব্যবস্থা এবং সর্বশেষ, রেজিস্টার্ড ইউজার দের জন্য থাকছে মনোনয়ন সুবিধাও।

ShareIndia-র সভাপতি ও রিসার্চ টিমের প্রধান, ড: রবি সিং (Dr. Ravi Singh) জানান, ভারতে রিটেল ব্যবসায়ীদের জন্য এধরনের উদ্যোগ প্রথম। নিরাপদ মূল্য ফেরতের জন্য, ইকুইটি (equity) মার্কেটের তুলনায় অনেকাংশে কম ঝুঁকিহীন এই বিনিয়োগের সুযোগ হাতছাড়া না করাই উচিত খুচরো বিনিয়োগকারীদের। মূলধন বিশেষজ্ঞ অজিত দে (Ajit Dey) র মতে, গিল্টে অর্থলগ্নি অনেকটা হাতে নগদ রাখার মতো, যখন খুশি বিক্রি করে হাতে টাকা পেতে পারেন লগ্নিকারীরা। এখন, সরকারের এই নয়া উদ্যোগে খুচরো বিনিয়োগকারী মহলের কি প্রতিক্রিয়া, তা সময় বলবে।

টেকগাপের মেম্বাররা ও সদ্য যোগ দেওয়া লেখকরা এই প্রোফাইলের মাধ্যমে টেকনোলজির সমস্ত রকম খুঁটিনাটি আপনাদের সামনে আনে।