পুরনো সাইকেল আছে? এখানে নতুন ইলেকট্রিক বাইসাইকেলের সঙ্গে এক্সচেঞ্জ করে নিতে পারেন

gozero-mobility-offers-conventional-bicycles-switch-to-electric-ones

ইলেকট্রিক বাইসাইকেলের দুনিয়ায় অতি পরিচিত নাম GoZero Mobility। বহু ভারতীয় তাঁদের পথ চলার সঙ্গী হিসেবে বেছে নিয়েছেন ব্রিটিশ সংস্থার এই ই-বাইকগুলি। এবার এক চমকদার সুবিধা নিয়ে হাজির হল GoZero Mobility। কী সেই সুবিধা? সম্প্রতি সংস্থাটি ঘোষণা করেছে যাদের প্রথাগত বাইসাইকেল রয়েছে, যেগুলির বাজার মূল্য ৭,০০০-২৫,০০০ টাকার মধ্যে তাদের দেওয়া হবে এক্সচেঞ্জ বেনিফিট। অর্থাৎ নিজের যে কোনো ব্র্যান্ডের পুরানো সাইকেলটির বদলে এবং অল্প কিছু অর্থের বিনিময়ে বাড়ি নিয়ে যেতে পারবেন GoZero ইলেকট্রিক বাইক।

এরকম একটি বিশেষ অফার নিয়ে আসার জন্য মাসখানেক আগেই গোজিরো মোবিলিটি (GoZero Mobility) ইন্দো-জার্মানি ই-মোবিলিটি ফ্র্যাঞ্চাইজি স্টোর চেইন Electric One Mobility-র সাথে কৌশলগত অংশীদারিত্বে প্রবেশ করার কথা ঘোষণা করেছিল। এছাড়া Saradhy Traders, Greaves EV Automart ও Aryendra Mobility সংস্থাগুলির সাথেও হাত মিলিয়েছে গোজিরো মোবিলিটি। দেশের উত্তর, পশ্চিম এবং দক্ষিণাংশের গ্রাহকরা এই অফার পাবেন বলে জানিয়েছে কোম্পানিটি।

এই পদক্ষেপের প্রসঙ্গে সংস্থার সহ-প্রতিষ্ঠাতা সুমিত রঞ্জন বলেছেন, “এই অভিযানের মাধ্যমে ইলেকট্রিক ভেহিকেলের চাহিদার বৃদ্ধি ঘটানোই লক্ষ্য সংস্থাটির। ঐতিহ্যগত বাইসাইকেলগুলি বদলে নতুন ইলেকট্রিক বাইসাইকেল বিক্রি করা হবে গ্রাহকদের কাছে। পুরানো সাইকেলগুলির আভ্যন্তরীণ সংস্কার করে তার বিভিন্ন অংশ ব্যবহার করা হবে।”

রঞ্জনের কথায়, “উপভোক্তারা সবসময় একটু আলাদা জিনিস পছন্দ করেন। মানুষ যুগ যুগ ধরে প্রচলিত বাইসাইকেল চালিয়ে আসছেন, এখন সময় এসেছে তাদের GoZero-র আরও প্রচলিত এবং আপগ্রেডেড ই-বাইকে পরিবর্তিত হওয়ার কথা বিবেচনা করার। একজন বাইসাইকেল ব্যবহারকারীর জন্য আমাদের এক্স (X) সিরিজের ই-বাইকগুলি সমস্ত রেগুলার এবং অফ-রোড উভয় ক্ষেত্রের প্রয়োজনীয়তা পূরণ করার জন্য উপযুক্ত।”

প্রসঙ্গত, সংস্থাটি জানিয়েছে এই অফার ৯ এপ্রিল, ২০২২ পর্যন্ত GoZero Mobility-র সমস্ত রিটেইল আউটলেটে উপলব্ধ থাকবে। অন্যদিকে এদের ই-সাইকেলে মোটর যুক্ত থাকায় চালকের পরিশ্রম কমাতে সাহায্য করে এগুলি। আবার এর রাইডিং রেঞ্জও সন্তোষজনক।

শুভদীপ টেকগাপে অটোকার বিষয়ক লেখালিখি করে। এর আগে বিভিন্ন পোর্টালের সাথে যুক্ত থাকলেও, অটোকার নিয়ে টেকগাপে তার হাতেখড়ি। দিনকে দিন সে টেকগাপের গুরুত্বপূর্ণ সদস্য হয়ে উঠেছে।