দেশের সমস্ত উৎপাদন কেন্দ্র অস্থায়ীভাবে বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত Hero-র

hero-motocorp-temporary-shut-down-manufacturing-in-india-due-to-covid-19

করোনার দ্বিতীয় ঢেউ আছড়ে পড়ার ফলে বিপর্যস্ত গোটা দেশ৷ প্রতিদিনই আক্রান্তের সংখ্যা লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে৷ দৈনিক সংক্রমণ এখন প্রায় ৩ লক্ষ ছুঁইছুই। এই পরিপ্রেক্ষিতে কর্মীদের স্বাস্থ্যের কথা মাথায় রেখে ভারতের বৃহত্তম টু-হুইলার ব্র্যান্ড হিরো মটো কর্প (Hero Moto Corp), গ্লোবাল পার্টস সেন্টার (জিপিসি) সহ সারা দেশের উৎপাদন কেন্দ্রগুলিতে কার্যক্রম অস্থায়ীভাবে বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। কোম্পানি জানিয়েছে যে, স্থানীয় পরিস্থিতির ওপর নির্ভর করে ২২ এপ্রিল থেকে ১ মে এর মধ্যে চারদিন প্রত্যেকটি প্ল্যান্ট ও জিপিসি-তে সমস্ত কাজকর্ম বন্ধ থাকবে।

হিরো মটো কর্প বিবৃতিতে বলেছে, এই দিনগুলি ম্যানুফ্যাকচারিং প্ল্যান্টে প্রয়োজনীয় রক্ষণাবেক্ষণের কাজে লাগানো হবে। এই শাটডাউন চাহিদা পূরণে সংস্থার ক্ষমতার ওপর প্রভাব ফেলবে  না, যা অনেক রাজ্যে লকডাউনের ফলে প্রভাবিত হয়েছে। ত্রৈমাসিকের বাকি সময়ে ঘাটতি পুষিয়ে নেওয়া হবে৷  সংক্ষিপ্ত শাটডাউনের পর আবার প্রত্যেকটি প্ল্যান্টে স্বাভাবিক কাজকর্ম শুরু হবে।

হিরো এও জানিয়েছে যে, কোম্পানির সমস্ত কর্পোরেট অফিসের কর্মীরা ইতিমধ্যে বাড়ি থেকেই কাজ করছেন। এবং প্রয়োজনীয় পরিষেবাগুলির জন্য খুব সীমিত সংখ্যক কর্মচারীদের রোটেশান বেসিসে অফিসে এনে কাজ করানো হচ্ছে।

উল্লেখ্য, হিরো মটো কর্প তার সমস্ত স্থায়ী ও চুক্তিভিত্তিক কর্মচারীদের কোভিড-১৯ টিকাকরণের খরচ নিজেরাই বহন করবে বলে আগেই ঘোষণা করেছে। আবার হিরো ফিনকর্প, হিরো ফিউচার এনার্জিস, এজি ইন্ডাস্ট্রি সহ হিরো গ্রুপের অন্যান্য কোম্পানিগুলির কর্মীদের ক্ষেত্রেও একই উদ্যোগ নেওয়া হবে বলে হিরো বিবৃতিতে জানিয়েছে।

হোয়াটসঅ্যাপে খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন