Hero, TVS, Yamaha, Honda-সহ যে সব সংস্থার বৈদ্যুতিক বাইক-স্কুটারের অপেক্ষায় আমরা

World EV Day' উপলক্ষ্যে আমরা এমন কতগুলি ইলেকট্রিক স্কুটার-বাইকের কথা আপনাদেরকে জানাবো, যাদেরকে নিয়ে প্রত্যাশা খুব বেশি

hero-tvs-yamaha-honda-upcoming-electric-bike-scooter-you-should-know-world-ev-day

পেট্রোল-চালিত মোটরসাইকেল-স্কুটারের বাজারে রমরমা Hero MotoCorp, Honda, Yamaha ও Suzuki-র। কিন্তু সংস্থাগুলি এখনও ভারতের বাজারে কোনও বাইক বা স্কুটারের ইলেকট্রিক অবতার এনে হাজির করাতে পারেনি। প্রস্তুতি অবশ্যই চলছে! কিন্তু সেগুলি কবে অফিসিয়ালি আত্মপ্রকাশ করবে, তার টাইমলাইন সত্যিই বলা খুব মুশকিল। আবার হালে Ultraviolette, Ather-এর মতো সংস্থার আসন্ন ইলেকট্রিক টু-হুইলার নিয়েও চলছে হৈচৈ। ‘World EV Day’ উপলক্ষ্যে আমরা এমন কতগুলি ইলেকট্রিক স্কুটার-বাইকের কথা আপনাদেরকে জানাবো, যাদেরকে নিয়ে প্রত্যাশা খুব বেশি৷ সূদূর ভবিষ্যতে তাদের হাত ধরেই বদলে যেতে পারে ভারতের দু’চাকা গাড়ির দুনিয়া।

Hero MotoCorp Scooter

সময়ের সাথে তাল মিলিয়ে চলতে না পারলে খুব মুশকিল। বর্তমানে জীবাশ্ম জ্বালানি চালিত বাইক-স্কুটারের বাজারের নিয়ন্ত্ৰণ রয়েছে হিরোর হাতে। কিন্তু ফিউচার যে ইলেকট্রিক! সে কথা মাথায় রেখেই পদক্ষেপ নিচ্ছে সংস্থাটি। তাইওয়ানের সংস্থা গোগোরো (Gogoro)-র সাথে জোট বাঁধার কথা আগেই ঘোষণা করেছে হিরো। কৌশলগত অংশিদারিত্বের অধীনে হিরো তাদের আপকামিং ইলেকট্রিক টু-হুইলারগুলিতে গোগোরো-র অত্যাধুনিক প্রযুক্তির সমন্বয়সাধন করবে। সেইসঙ্গে গোগোরো-র অত্যাধুনিক ব্যাটারি সোয়াপিং প্ল্যাটফর্ম বা Gogoro Network ভারতবর্ষে নিয়ে আসবে হিরো মোটোকর্প।

সম্প্রতি দশ বছর পূর্তি উপলক্ষ্যে একটি ভার্চুয়াল ইভেন্ট হোস্ট করেছিল Hero। ইভেন্টের একদম শেষে দেখানো হয় কোম্পানির ইলেকট্রিক স্কুটারের প্রথম ঝলক। প্রথম দর্শনেই বেশ স্লিক বলে মনে হয়েছে মডেলটিকে। কার্ভড বডি ছিল সেটিতে৷ গায়ে ছিল সাদা ও কালো রঙের মিশ্রণ। স্কুটারটিতে ফ্লাইস্ক্রিন এবং লম্বা স্প্লিট সিট দেখা গিয়েছিল। হিরো মোটোকর্পের প্রথম ব্যাটারি চালিত স্কুটারের স্পেসিফিকেশন, ফিচার, বা কবে নাগাদ লঞ্চ হতে পারে, সে ব্যাপারে অবশ্য কোনও তথ্য উপলব্ধ নেই৷ শুধু বলা হয়েছিল, মডেলটি শীঘ্রই প্রকাশ্য আনা হবে।

Suzuki Burgman Electric

ভারতে সুজুকির স্কুটার লাইনআপে Burgman Street 125 এখন টপ মডেল। বিগত কয়েকমাস ধরেই সুজুকি এই ম্যাক্সি-স্কুটারটির (আকারে একটু বড় হয়) ইলেকট্রিক ভ্যারিয়েন্টের উপর পরীক্ষা-নিরীক্ষা করছে। এটি রাস্তায় চালানোর বিভিন্ন ছবিও অনলাইনে ফাঁস হয়েছে। স্কুটারটি প্রোডাকশনের জন্য প্রস্তুত বলেই মনে করছে ওয়াকিবহল মহল। লুকসের দিক থেকে Burgman Street 125 ICE ও আপকামিং Electric ভার্সনের মধ্যে পার্থক্য খোঁজা মুশকিল। পরিবর্তন বলতে, বৈদ্যুতিন শক্তি দ্বারা পরিচালিত হওয়ার জন্য স্কুটারে এগজস্ট সিস্টেম নেই। রিয়র হুইলে আছে হাব মোটর। এছাড়া শক আবজর্ভার ডানদিকে অবস্থান করছে৷ উল্লেখ্য, স্কুটারটির পেট্রোল ভ্যারিয়েন্টে শক আবজর্ভার থাকে বাম দিকে।

Yamaha Electric Scooter

ভারতের রাস্তা ও পরিবেশের সঙ্গে মানিয়ে নিতে পারবে এমন ইলেকট্রিক স্কুটার তৈরির কাজে ইতিমধ্যেই হাত লাগিয়েছে Yamaha। তবে লঞ্চ করার ক্ষেত্রে ধীরে চলো নীতি রাখছে সংস্থাটি। বৈদ্যুতিক গাড়িতে উত্তোরণের জন্য সরকার কী দিশা দেখায়, চাহিদা কীরকম থাকে – আপাতত এই বিষয়গুলির উপর নজর রাখছে তারা।

Honda Electric Scooter

গত জুনে দেশের সড়কে Honda Benley মডেলের ইলেকট্রিক স্কুটারের পরীক্ষা চালিয়েছিল অটোমোটিভ রিসার্চ অ্যাসোসিয়েশনের অফ ইন্ডিয়া (ARAI)। মূলত কমার্শিয়াল ক্ষেত্রে ব্যবহারের কথা মাথায় রেখেই ই-স্কুটারটি ডিজাইন করা। সে ক্ষেত্রে কমিউটার ইলেকট্রিক স্কুটার হিসেবে এটির লঞ্চ হওয়ার সম্ভাবনা কম৷ তাহলে?

ভারতের সবচেয়ে জনপ্রিয় স্কুটার, Honda Activa-র ইলেকট্রিক অবতার বাজারে আসবে বলে শোনা যাচ্ছে। এতে থাকবে রিমুভেবল ব্যাটারি। কারণ, হোন্ডা দেশজুড়ে ব্যাটারি সোয়াপিং স্টেশন গড়ে তোলার জন্য টেস্টিং শুরু করেছে। তবে এই নিয়ে কোম্পানির তরফে অফিসিয়াল কোনও ঘোষণা করা হয়নি।

Ather Electric Scooter

Ather-এর 450 সিরিজের ইলেকট্রিক স্কুটারগুলি বেশ উচ্চ প্রশংসিত। হাই-টেক প্রযুক্তি ও দুর্দান্ত পারফরম্যান্স অফার করে ভারতের ইলেকট্রিক টু-হুইলারের বাজারে আলাদা জায়গা করে নিয়েছে বেঙ্গালুরুর স্টার্টআপ সংস্থাটি। Ather যে নতুন ইলেকট্রিক স্কুটার তৈরির কাজ করছে, তা সম্প্রতি রবনীত খোলসা করেছিলেন। বর্তমানে তিনি Ather-এর ব্যাবসায়িক প্রধান পদে কর্মরত।

জানা গিয়েছে, Ather-এর সেই ইলেকট্রিক স্কুটারের দাম ১ লাখ টাকার মধ্যে রাখা হবে। তবে শীঘ্রই যে নতুন মডেলটি বাজারে আসবে না, সেটাও স্পষ্ট করে দিয়েছেন রবনীত। তাঁর কথায়, একটি নতুন প্রোডাক্টের ডেভেলপমেন্ট এবং অ্যাসেম্বলি লাইন থেকে বার করতে দেড় থেকে দু’বছর সময় লাগে। রবনীত জানান, সংস্থার নতুন ইলেকট্রিক স্কুটারটি ২০২৩ অর্থবর্ষের প্রথম ত্রৈমাসিকে অফিসিয়ালি লঞ্চ করা হবে।

Ultraviolette F77 Electric Bike

ভারতের প্রথম পারফরম্যান্স-ওরিয়েন্টেড ইলেকট্রিক বাইকে হল Ultraviolette F77। ২০১৯ সালে প্রথম কনসেপ্ট মডেল রূপে আত্মপ্রকাশ ঘটে এই ইলেকট্রিক স্পোর্টস বাইকের। ২০২২-এর প্রথম ত্রৈমাসিক থেকে বাইকটির উৎপাদন শুরু হবে। এটি আগামী মার্চের মধ্যে দেশের বাজারে পা রাখবে। 

সংস্থা দাবি করেছে, ২০১৯ সালে দেখানো Ultraviolette F77-এর প্রোটোটাইপ মডেলের চেয়ে প্রোডাকশন মডেলে অনেক পরিবর্তন দেখা যাবে। সামগ্রিকভাবে ভাল পারফরম্যান্স ও রাইডিং ডাইনামিক্স অফার করার জন্য চেসিস, কন্ট্রোল ইউনিট, ইনস্ট্রুমেন্ট প্যানেল, এবং ব্যাটারির উপর কাজ করেছে সংস্থা। Ultraviolette F77 নিয়ে ক্রমশ উদ্দীপনা বাড়ছে ভারতের বাইকপ্রেমীদের মধ্যে।

TVS Creon Electric Scooter

সম্প্রতি বৈদ্যুতিক গাড়ি নির্মাণে ১ হাজার কোটি টাকা বিনিয়োগ এবং ছ-ছ’টি ইলেকট্রিক টু-হুইলার লঞ্চ করার কথা ঘোষণা করেছে TVS। ছ’টির মধ্যে একটি টু-হুইলার সম্পর্কে আমরা ওয়াকিবহল। যার নাম TVS Creon। এটি ২০১৮ সালে অটো এক্সপো ইভেন্টে আত্মপ্রকাশ করেছিল। এই ইলেকট্রিক স্কুটারের প্রোটোটাইপ ভার্সন স্পোর্টি ডিজাইনের স্কুটারটি নজর কেড়েছিল সবার। রিপোর্ট বলছে, আগামী বছর TVS Creon-এর অফিসিয়াল লঞ্চ হতে পারে।

হোয়াটসঅ্যাপে খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন

টেকগাপে শুভ্রর প্রথম প্রযুক্তি বিষয়ক লেখায় হাতেখরি৷ স্নাতক স্তরের পড়াশোনার পাশাপাশি এখানেই চলতে থাকে শুভ্রর লেখালেখি৷ কলেজের অধ্যায় শেষ হওয়ার পর শুভ্র এখন টেকগাপের কনটেন্ট টিমের একজন গুরুত্বপূর্ণ সদস্য৷