Hop OXO: Hero, Honda, TVS- দের টেক্কা দিতে আসছে এই বৈদ্যুতিক মোটরসাইকেল, টেস্টিং শুরু

hop-electric-to-launch-oxo-electric-bike-testing-phase-under-way

জয়পুর-স্থিত স্টার্টআপ সংস্থা হপ ইলেকট্রিক (Hop Electric) তাদের প্রথম হাই-পারফরম্যান্স ইলেকট্রিক মোটরসাইকেল OXO-র পরীক্ষা শুরু করল। দেশের সড়কপথে চালানোর জন্য Hop OXO কতটা উপযুক্ত, এখন তা পর্যবেক্ষণ করে দেখা হচ্ছে। স্টাইল, আরাম পারফরম্যান্স, ও রেঞ্জের মিশেলে তৈরি Hop OXO পেট্রোলচালিত বাইকের উপযুক্ত বিকল্প হিসেবে উঠে আসবে বলেই মত সংশ্লিষ্ট মহলের। আবার প্রস্তুতকারক সংস্থার দাবি, OXO-র হাত ধরে ইলেকট্রিক মোটরসাইকেলের বাঁধাধরা ধারণাগুলি ভেঙে দেওয়ার ব্যাপারে তারা আত্মবিশ্বাসী।

Hop OXO ডিজাইন ও স্টাইলিং

হপ অক্সো-র রোড টেস্টংয়ের একটি ভিডিও প্রকাশ্য এসেছে। তাতে দেখা যাচ্ছে, বাইকটি ক্যামোফ্ল্যাজ করা। বাইকটির বডি জুড়ে ক্যামোফ্ল্যাজ উপকরণের উপর কোম্পানির লোগো বসানো। একঝলক দেখলেই স্পোর্টি ই-বাইক বলে মনে হবে হোপ অক্সো-কে। সামনের অংশ অ্যাগ্রেসিভ। বডি প্যানেল বেশ স্লিক। বাইকটিতে ফুল-এলইডি লাইটিং সেটআপ দেওয়া হয়েছে বলেই মনে করা হচ্ছে।

এছাড়া হপ অক্সো-র উল্লেখযোগ্য ফিচারগুলির মধ্যে ট্রেন্ডি ভাইজার, বর্শাকৃতি টার্ন ইন্ডিকেটর, স্লিক এলইডি ডে-টাইম-রানিং-লাইটস, সিঙ্গেল সিট ডিজাইন, শর্ট টেল সেকশন অন্যতম।

Hop OXO নানা রঙের বিকল্পের সাথে আসতে পারে৷ সঙ্গে থাকতে পারে স্পোর্টি গ্রাফিক্স। এটি হয়তো নেকেড বাইক হিসেবেই আসবে। বাইকটি আপরাইট রাইডিং পোশ্চার অফার করবে। অর্থাৎ ব্যবহারকারীরা সোজা হয়ে বসে বাইকে টালাতে পারবে৷ কোমর বা শিরদাঁড়ায় চাপ পড়বে না।

Hop OXO টপ স্পিড, রেঞ্জ

হপ অক্সো-র সর্বোচ্চ গতিসীমা ঘন্টায় ৮০-৯০ কিলোমিটারের আশেপাশে হতে পারে। এটি এক চার্জে ১০০ কিলোমিটারের কাছাকাছি রেঞ্জ দেবে। হপ অক্সো কোম্পানির অন্যান্য ইলেকট্রিক স্কুটারের মতো সিঙ্গেল বা ডুয়েল ব্যাটারির বিকল্পে আসবে বলে আশা করা যায়।

Hop OXO কবে লঞ্চ হবে?

অগস্টের শেষান্তে হপ ইলেকট্রিকের সিইও কেতন মেহতা এক সাক্ষাৎকারে জানিয়েছিলেন, দশেরার সময় অক্সো ইলেকট্রিক বাইকের একটি লঞ্চ ইভেন্ট আয়োজনের ব্যাপারে ভাবা হচ্ছে। অক্টোবরের প্রথমে মডেলটির প্রথম লুক সামনে আনা হবে।

Hop OXO গ্রাহকদের কাছে কবে পৌঁছবে?

কেতন মেহতা আরও বলেছিলেন, অক্সো-র লঞ্চের দিন থেকেই চালু হবে অগ্রিম বুকিং। ইলেকট্রিক মোটরসাইকেলটি সামনের বছর গ্রাহকদের কাছে পৌঁছে দেওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে।

তিনি যোগ করে বলেছিলেন “১১০ সিসি থেকে ১২৫ সিসি সেগমেন্টের বাইকগুলি ভারতে সবচেয়ে জনপ্রিয়। লুকস এবং সমস্ত দিক থেকে এই সেগমেন্টে বিকল্প হিসেবে উঠে আসবে হপ অক্সো। আমরা সত্যিই হোন্ডা শাইন, হিরো স্প্লেন্ডার-এর মতো মেইনস্ট্রিম বাইকের থেকেও ভাল মডেল ক্রেতাদেরকে দিতে চাই।”

হোয়াটসঅ্যাপে খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন

Shuvro primarily writes about smartphone and automobile industry. He is an assistant editor for techgup. Shuvro has a bachelor degree in English literature. His interest also includes cosmopolitan affairs, scientific discoveries, and quizzing.