স্মার্টফোন কিনছেন? নকল বা চুরি যাওয়া ডিভাইস কিনা কিভাবে বুঝবেন

how-to-check-original-and-not-stolen-smartphone-before-buy

নতুন, ব্যবহৃত অথবা রিফার্বিশড স্মার্টফোন কেনার সময় সাবধান, নইলে ফোনের সঙ্গে বিনামূল্যে জুটতে পারে চোরের তকমা! মশকরা করছিনা, স্মার্টফোনের বাজারে এখন চোরাই মালের রমরমা। সেক্ষেত্রে অন্যের চুরি যাওয়া মোবাইলকেই নতুন রূপে, নতুন মোড়কে বিক্রি করে ফায়দা লুটছেন কিছু অসাধু ব্যবসায়ী। সারা দেশজুড়েই এই কারবার বৃদ্ধি পেয়েছে। এছাড়াও রয়েছে নকল মাল গছিয়ে দেওয়ার ধান্দা। অর্থাৎ একদিকে মোবাইলগাত্রে কোম্পানীর নাম জ্বলজ্বল করছে, অথচ কাজের সময়ে দেখা যাচ্ছে প্রোডাক্টটি সম্পূর্ণ জাল! এবার প্রশ্ন হলো এই ধরণের সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়ার কি কোন উপায় নেই? একটি স্মার্টফোন নকল কিনা কিংবা সেটা চুরির মাল কিনা – – সেটা জানার কি কোন নির্দিষ্ট পদ্ধতি আছে? আমাদের উত্তর, আছে। এজন্য আপনাকে সেন্ট্রাল ইক্যুয়িপমেন্ট আইডেন্টিটি রেজিস্টারের (Central Equipment Identity Register) শরণাপন্ন হতে হবে। যেখানে ফোনের বৈধ আইএমইআই (IMEI) নম্বরটির প্রয়োজন পড়বে। আসুন জেনে নিই কোনো স্মার্টফোন নকল বা চুরি যাওয়া ডিভাইস কিনা কিভাবে জানতে পারবেন।

প্রথমেই বলি, যে কোন ফোনের ক্ষেত্রেই তার ১৫ অঙ্কের আইএমইআই নম্বরটি খুব গুরুত্বপূর্ণ। এই আইএমইআই নম্বর ব্যবহার করেই আমরা একটি ফোন আসল না নকল তা জানতে পারি। মনে রাখতে হবে বৈধ আইএমইআই ছাড়া ভারতে ফোন বিক্রয় সম্পূর্ণ বেআইনি। নিজের ফোনের আইএমইআই নম্বর জানার জন্য ইউজারকে *#০৬# লিখে ডায়াল করতে হবে। এছাড়াও নতুন ফোন কিনলে দোকানের বিল বা পার্চেজ ইনভয়েস, ফোনের প্যাকিং বাক্স, এমনকি অনেকক্ষেত্রে ফোনের ব্যাক প্যানেলে লাগানো স্টিকার থেকেও আমরা তার আইএমইআই নম্বর জানতে পারি। এই আইএমইআই নম্বরের বৈধতা যাচাই করে স্মার্টফোন ক্রেতা ফোনটির বিশুদ্ধতা সম্পর্কে নিজের প্রাথমিক সংশয় দূর করতে পারেন।

তাহলে বোঝা যাচ্ছে যে বৈধ আইএমইআই নম্বর না থাকলে সেই প্রোডাক্টের নকল বা চোরাই মাল হওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায়। এক্ষেত্রে ক্রেতারা যাতে পুরোপুরি নিঃসন্দেহ হতে পারেন সেজন্যেই সরকারের পক্ষ থেকে সিইআইআর বা সেন্ট্রাল ইকুইপমেন্ট আইডেন্টিটি রেজিস্টার নামক একটি নতুন প্ল্যাটফর্ম লঞ্চ করা হয়েছে। এর মাধ্যমে সমস্ত ভারতীয় অপারেটরের আইএমইআই ডেটাবেস অ্যাক্সেস করা সম্ভব। মূলত নকল মোবাইলের ব্যবসাকে রুখে দেওয়ার জন্যেই এই প্ল্যাটফর্মটি তৈরী করা হয়েছে।

ফোনের আইএমইআই নম্বর পরীক্ষার জন্য সিইআইআর -এর ওয়েবসাইটে (http://ceir.gov.in/home/index.jsp) গিয়ে তার ডিভাইস ভেরিফিকেশন ওয়েবপেজটি ওপেন করতে হবে। এখানে ফোনের আইএমইআই নম্বরটি দাখিল করলেই, সিইআইআর একটি স্ট্যাটাসের মাধ্যমে ফোনের আইএমইআই নম্বরটি বৈধ কিনা তা জানিয়ে দেবে। অবশ্য এজন্য মোবাইল নম্বর এন্ট্রির করে ওটিপি ভেরিফিকেশনের প্রক্রিয়া পার করতে হবে।

CEIR -এর ওয়েবসাইটে আইএমইআই নম্বর দাখিল করার পর যদি স্ট্যাটাসে ‘Blacklisted’, ‘Duplicate’ বা ‘Already in use’ লেখা ভেসে ওঠে তবে সেই ফোনটি চুরির জিনিস বা জাল হতে পারে। তাই একমাত্র ‘IMEI is valid’ স্ট্যাটাস দেখতে পেলে তবেই ফোনটি কেনা উচিত।

এছাড়াও আইএমইআই নম্বর সম্পর্কে তথ্য পেতে যে কোন ফোন থেকে ‘KYM’ লেখার পর ১৫ অঙ্কের আইএমইআই নম্বরটি টাইপ করে ১৪৪২২ নম্বরে সেন্ড করুন। এই KYM বা Know Your Mobile পরিষেবাটিও The Centre of Development of Telematics বা সংক্ষেপে C-DOT এর পক্ষ থেকে সদ্য সামনে আনা হয়েছে। এর মাধ্যমেও ক্রেতা ফোনের আইএমইআই নম্বরের বৈধতা সম্পর্কে নিশ্চিত হতে পারবেন।

হোয়াটসঅ্যাপে খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন