লকডাউনের মধ্যে সারাদেশে যাতায়াতের জন্য কিভাবে আবেদন করবেন, জানুন ই-পাস পাওয়ার পদ্ধতি

lockdown-e-pass

কিছুদিন আগে আমরা আপনাকে জানিয়েছিলাম কিভাবে আপনারা ই-পাস ব্যবহার করে আপনার শহরের মধ্যে যাতায়াত করতে পারবেন। চতুর্থ দফার লকডাউন শুরু হওয়ার সাথে সাথে কিছুটা নিয়মের পরিবর্তন হয়েছে এবং এই সময় আপনারা শহরে চলাফেরার জন্য আরো কিছুটা ছাড় পেতে চলেছেন। সম্প্রতি ভারত সরকার একটি ওয়েবসাইট তৈরি করেছে করোনাভাইরাস ই-পারমিট পাসের সিঙ্গেল পয়েন্ট অ্যাকসেসের অ্যাপ্লাই-র জন্য। এর মাধ্যমে আপনারা আপনার রাজ্যের মধ্যে চলাফেরা করতে পারবেন যদি একান্ত প্রয়োজন থাকে।

ন্যাশনাল ইনফরমেটিক্স সেন্টার, NIC এই ওয়েবসাইটটি তৈরি করেছে যার অ্যাড্রেস http://serviceonline.gov.in/epass/ । এই লিংকে ক্লিক করলে আপনারা ১৭ টি রাজ্যের বিকল্প পাবেন যেখানে আপনারা ই-পারমিটের জন্য অ্যাপ্লাই করতে পারবেন। তবে এই পারমিট কেবলমাত্র কয়েকটি ক্যাটেগরির জন্যই উপলব্ধ- পড়ুয়া, নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসের সাপ্লায়ার, টুরিস্ট, তীর্থযাত্রী, ইমারজেন্সি এবং মেডিকেল ট্রাভেল এবং বিবাহের কারণে যাত্রা।

এই ওয়েবসাইটে আপনি নিজে অথবা আপনার গ্রুপের সাথে আবেদন করতে পারেন এবং আপনাকে সমস্ত প্রয়োজনীয় তথ্য সেখানে পূরণ করতে হবে। শুধু তাই নয় আপনাদের ওই তথ্যগুলির স্ক্যান করা কপি আপলোড করতে হবে ওয়েবসাইটে যদি এই পারমিট গ্রহণ করতে হয়। এছাড়াও আপনার প্রয়োজন হবে একটি মোবাইল নম্বর যেখানে ওয়ান টাইম পাসওয়ার্ড আসবে ভেরিফিকেশনের জন্য।

তবে আপনাকে সঙ্গে সঙ্গেই এই পারমিট ইস্যু করা হবে না। আবেদন করা হয়ে গেলে আপনার কাছে একটি রেফারেন্স নম্বর পাঠানো হবে যার মাধ্যমে আপনারা আপনার আবেদনের বর্তমান পরিস্থিতি যাচাই করে নিতে পারবেন। কিছুদিন পরে যদি আপনার আবেদনপত্র মঞ্জুর হয় তাহলে আপনার কাছে পারমিট পাঠিয়ে দেওয়া হবে। এতে থাকবে আবেদনকারীর নাম, বাড়ির ঠিকানা, একটি কিউ আর কোড এবং পারমিটের বৈধতা।

যখনই আপনারা বাইরে বের হতে চাইবেন তখন আপনার কাছে এই পারমিটের একটি সফট কপি অথবা হার্ড কপি সঙ্গে রাখতে হবে। কারন যাত্রার আগে আপনার কাছে এই পারমিট দেখতে চাইবেন সিকিউরিটি অফিসাররা ভেরিফিকেশনের জন্য।