এই দশটি ভুল আপনার ফোনের ব্যাটারি শেষ করে, জেনে নিন

আপনারা সবাই প্রায় স্মার্টফোন ব্যবহার করেন। এর মধ্যে কেউ নতুন ফোন ব্যবহার করেন আবার কেউ পুরানো ফোন ব্যবহার করেন। তবে আমরা প্রত্যেকেই কম বেশি ফোনের ব্যাটারির সমস্যায় ভুগি। অনেকেই অভিযোগ করেন তাদের ফোন চার্জে বসালেই গরম হয়ে যায়। আবার অনেকে অভিযোগ করেন তাদের ফোনে দ্রুত চার্জ শেষ হয়ে যায়। তো আসুন জেনে নেই দশটি ভুল সম্পর্কে যেগুলোর জন্য আপনাদের ফোনের ব্যাটারি শেষ হয়ে যায়।

সবার ফোনে অটো ব্রাইটনেস ফিচার আছে কিন্তু আপনার উচিত এই ফিচারটি ব্যবহার না করা। আপনি আপনার প্রয়োজন মতো ব্রাইটনেস সেট করে নিন। কারণ অটো ব্রাইটনেস ফোনের আলোর উপর নির্ভর করে। এতে ব্যাটারি বেশি শেষ হয়।

ফোনের চার্জ কখনো শেষ বা ফুল করবেন না। সব সময় 20% থেকে 90% এর মধ্যে চার্জ রাখবেন। কারণ এই দুটোই আপনার ব্যাটারির ক্ষমতা দেয়।

আমরা আমাদের ফোনের ব্রাউজারে বিভিন্ন ট্যাব খুলে রেখে দেই। এর ফলে ফোনের ব্যাকগ্রাউন্ডে ওই অ্যাপ্লিকেশন চলতে থাকে। এইভাবে আমাদের ফোনের ব্যাটারি দ্রুত শেষ হয়ে যায়। সেইজন্য কোনো অ্যাপ্লিকেশনের কাজ হয়ে গেলে ট্যাবটিকেও বন্ধ করে দিন।

দরকার না পড়লে জিপিএস, ওয়াইফাই ও ব্লুটুথ খোলা রাখবেন না। ওয়াইফাই বিভিন্ন নেটওয়ার্ক খোঁজার মাধ্যমে অধিক চার্জ খায়। এই সমস্ত কানেক্টিভিটি ব্যাটারি শেষ হওয়ার বড়ো কারণ।

ফোনের ভাইব্রেট মোড বন্ধ করে রাখুন। এটি স্বাস্থ্যের জন্যও ভালো নয়। এছাড়াও আপনি টাচ ভাইব্রেট ও বন্ধ করে রাখুন। এটি করলে ব্যাটারি বাঁচবে।

স্ক্রিন টাইম লক কম করে রাখুন। অর্থাৎ আপনি যেমুহূর্তে ফোনটি ব্যবহার করেছেন না তখন যেন আপনার ফোন লক হয়ে যায়। আপনি ফোন ব্যবহার না করলে স্ক্র্রিন লক করে রাখুন।

আপনি আপনার ফোন অটো সিঙ্ক এক্টিভ করে রাখলে সেটি অফ করুন। কারণ এর ফলে আপনার ফোনের সমস্ত ফোল্ডার ও ইমেল আপডেট করতে হবে। যা আপনার ব্যাটারিকে দ্রুত শেষ করে দেবে। এরজন্য যখন এই ফিচার প্রয়োজন তখন ব্যবহার করুন।

স্মার্টফোনের ব্যাটারির সর্বাধিক খরচ ইন্টারনেট ব্যবহারের ফলে হয়।আপনি যেইমুহূর্তে আপনার ফোনে ইন্টারনেট ব্যবহার করছেন না,আপনার ফোনের সেলুলার ডেটা বন্ধ করে রাখুন।এর ফলে ব্যাটারির ক্ষমতা প্রায় 20 শতাংশ বৃদ্ধি পায়।

আপনার ফোনের সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাপ যেমন ফেসবুক,হোয়াটসঅ্যাপ, ইউ-টিউব ইত্যাদিতে ভিডিও বা মিডিয়া অটো-প্লে এবং অটো ডাউনলোড বন্ধ রাখুন।এটি করার ফলে আপনার ফোনের ব্যাটারি ক্ষমতা 5 শতাংশ পর্যন্ত বৃদ্ধি পাবে।

আপনি যখন দূরে কোথাও যাচ্ছেন,চেষ্টা করুন যতটা সম্ভব সময়ে ফোনটাকে ফ্লাইট মুডে রাখার।কারণ ভ্রমণের সময় বারবার নেটওয়ার্ক সার্চের ফলে ব্যাটারি তাড়াতাড়ি শেষ হয়ে যায়।ফ্লাইট মুডে ফোন রাখার কারণে, আপনার স্মার্টফোন বারবার নেটওয়ার্ক অনুসন্ধান করতে পারবে না।এর ফলে প্রায় 5% ব্যাটারির ক্ষমতা বৃদ্ধি হয়।

সব খবর পড়তে আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে যুক্ত হোন – এখানে ক্লিক করুন

পড়ুন : মোবাইল নাম্বার দিয়ে কারো নাম ও ঠিকানা কিভাবে জানবেন

Last Updated on