হ্যাকাররা নাগাল পাবে না, অনলাইন ফ্রড থেকে বাঁচতে কীভাবে শক্তিশালী Password সেট করবেন

How to make strong password to prevent online fraud
পাসওয়ার্ডকে শক্তিশালী করার জন্য এই কৌশলগুলি প্রয়োগ করুন

গত কয়েক বছরে ভারতে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা কয়েকগুণ বেড়েছে। বিশেষত তরুণ প্রজন্ম এখন ইন্টারনেট এবং সোশ্যাল মিডিয়ার ব্যস্ত। আর ডিজিটাল দুনিয়ার চাকচিক্যে মানুষ যত আকর্ষিত হচ্ছে, ততই হ্যাকাররা তাদের পরিসরকে বিস্তার করে বেআইনি কারসাজিকে পরিনাম দিচ্ছে। এমত পরিস্থিতিতে, একটা সামান্য গাফিলতির কারণেও কিন্তু আপনার যাবতীয় সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্ট হ্যাক হয়ে যেতে পারে। আর এমনটা হলে আপনার অনেক ব্যক্তিগত তথ্য চলে যাবে হ্যাকারদের কাছে। এক্ষেত্রে, অনেকেই মনে রাখার সুবিধার্থে সহজ পাসওয়ার্ড সেট করে হ্যাকারদের কাজ সহজ করে দেন। তাই আজ আমরা আপনাদের এমন কয়েকটি কৌশল সম্পর্কে জানাবো যেগুলিকে অনুসরণ করে আপনি একটি শক্তিশালী পাসওয়ার্ড তৈরী করতে পারেন।

পাসওয়ার্ডকে শক্তিশালী করার জন্য এই কৌশলগুলি প্রয়োগ করুন

এই ভাবে পাসওয়ার্ড সেট করুন

একটি শক্তিশালী পাসওয়ার্ড সেট করার জন্য তাতে অন্ততপক্ষে ৮টি অক্ষর থাকা উচিত। এই ৮টি অক্ষরের মধ্যে আপনাকে একটি আপার কেস বা ক্যাপিটাল লেটার এবং একটি লোয়ার কেস বা স্মল লেটার রাখতে হবে। সাথে নম্বর এবং সিম্বলও ব্যবহার করুন। সহজেই অনুমান করা যাবে এমন পাসওয়ার্ড কখনো সেট করবেন না। আর আপনার ব্যক্তিগত তথ্য যেমন, নাম, ঠিকানা, ফোন নম্বর বা ই-মেইল ভুলেও পাসওয়ার্ডে অন্তর্ভুক্ত করবেন না। সর্বোপরি, কিছু সময় অন্তর-অন্তর আপনার পাসওয়ার্ডটি অবশ্যই পরিবর্তন করুন। এমন করলে অ্যাকাউন্ট হ্যাক হওয়ার সম্ভাবনা কম থাকবে।

পাসওয়ার্ডে এগুলিকে কখনো ব্যবহার করবেন না

এখন সবারই ফেসবুক, ইনস্টাগ্রাম, টুইটারের মত সোশ্যাল মিডিয়াতে অ্যাকাউন্ট আছে। ফলে এতগুলি অ্যাকাউন্টের পাসওয়ার্ড মনে রাখতেও আমাদের অনেক সময়ে সমস্যা হয়। তাই সহজেই যাতে এই গুপ্ত কোডটি মনে থাকে তার জন্য অনেকেই নিজেদের মোবাইল নম্বর বা জন্ম তারিখ পাসওয়ার্ড হিসাবে বেছে নেন। এক্ষেত্রে জানিয়ে দিই যে, হ্যাকাররা আপনাদের সম্পর্কে এই প্রাথমিক তথ্যাদিকে অনায়াসেই জোগাড় করে নিতে পারে। আর এই তথ্যগুলিকে হাতিয়ার করেই কিন্তু আপনার পাসওয়ার্ড হ্যাক করবে হ্যাকাররা। তাই সর্বদা মনে রাখবেন যে, আপনার নাম, জন্ম তারিখ এবং মোবাইল নম্বরকে ভুলেও পাসওয়ার্ড হিসাবে বেছে নেবেন না।

আনকোরা ও স্বতন্ত্র পাসওয়ার্ড ব্যবহার করুন

এমন অনেকেই আছেন যারা নিজেদের প্রত্যেকটি ডিজিটাল তথা সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্টে একটাই পাসওয়ার্ডকে ব্যবহার করে থাকেন। আপনিও যদি এমনটা করেন তাহলে, এই অভ্যাস আপনাকে বিপদে ফেলতে পারে। কারণ, হ্যাকার যদি আপনার একটি অ্যাকাউন্টের পাসওয়ার্ড উদ্ধার করতে সক্ষম হয়ে যায়, তাহলে সে অন্যান্য অ্যাকাউন্টও হ্যাক করার চেষ্টা করবে। সেক্ষেত্রে, পাসওয়ার্ড এক হলে প্রত্যেকটি অ্যাকাউন্ট হ্যাক করে নেওয়া এমন কিছু দুঃসাধ্য কর্ম হবে না। তাই সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্ট গুলি যখন পৃথক তখন তার পাসওয়ার্ডও আলাদা হওয়া উচিত। এছাড়া, পাসওয়ার্ড সেট করার সময়ে চেষ্টা করুন যাতে সেগুলি সহজে অনুমান করা যায়।

হ্যাকারদের নিশানায় না পড়তে চাইলে এই কাজ করুন

আপনি যদি নিজের অ্যাকাউন্টকে হ্যাকারদের হাত থেকে সুরক্ষিত রাখতে চান তাহলে, পাসওয়ার্ডের মধ্যে নম্বর এবং অক্ষর ছাড়াও কিছু বিশেষ বর্ণের ব্যবহার করুন। আর আপনি যদি পাসওয়ার্ড মনে না রাখতে পারেন সেক্ষেত্রেও একটি কৌশল আছে। আপনার ব্যক্তিগত ডায়েরি বা মোবাইল নোটপ্যাডে যাবতীয় অ্যাকাউন্ট গুলির পাসওয়ার্ডকে লিখে রাখুন এবং ভুলে গেলে সেগুলিকে নোট থেকে দেখে নিন। সাথে উপরিউক্ত প্রত্যেকটি তথ্যকে অনুসরণ করুন তাহলে আপনার অ্যাকাউন্ট সম্পূর্ণ নিরাপদে থাকবে।

হোয়াটসঅ্যাপে খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন

শুভেচ্ছা বহুমুখী প্রতিভার অধিকারী। তিনি একদিকে যেমন ফটোগ্রাফার, তেমনি পাশাপাশি লেখিকাও। এছাড়াও তার শখের মধ্যে আছে বই পড়া, গান গাওয়া, ছবি আঁকা এবং ওয়েব ডিজাইন। শুভেচ্ছা আমাদের টেকগাপ পরিবারের একজন নতুন সদস্য।