ফোন লক না থাকলেও আপনার মর্জি ছাড়া চলবে না কোন অ্যাপ, ব্যবহার করুন এই ফিচার

how-to-use-screen-pinning-or-pin-the-screen-feature

স্মার্টফোন আমাদের প্রত্যেকের একান্ত ব্যক্তিগত একটি জিনিস। এর মাধ্যমে আমরা ব্যক্তিগত মেসেজ, ছবি, ভিডিয়ো ইত্যাদি পাঠিয়ে থাকি। কিন্তু আপনি যদি ভারতীয় পরিবারে থাকেন তাহলে বুঝবেন, এখানে একটু ব্যক্তিগত জায়গা পাওয়া কতটা কঠিন। আপনার ব্যক্তিগত স্মার্টফোনের মধ্যেও উঁকিঝুঁকি মারতে চলে আসবে কেউ না কেউ। আত্মীয় বা বন্ধুস্থানীয় কেউ আপনার ফোনটা চাইলে আপনি মুখের উপর নাও বলতে পারবেন না। কিন্তু আপনি চাইলে এমন একটা উপায় করতে পারেন যাতে ফোন আনলক করার পরেও আপনার মর্জি ছাড়া কোন অ্যাপ খোলা না যায়। এর জন্য কোন আলাদা অ্যাপ দরকার নেই। অ্যান্ড্রয়েড ফোনেই রয়েছে একটি বিশেষ ফিচার যা দিয়ে এই কাজ করতে পারেন।

অ্যান্ড্রয়েড ফোনে রয়েছে Pin the Screen বা Screen Pinning নামক একটি ফিচার। এই ফিচারের সাহায্যে আপনার ফোন আনলক থাকলেও কেউ আপনার ফোন ব্যবহার করতে পারবে না। এই ফিচারের মূল কাজ হল যে কোন অ্যাপকে লক করে দেওয়া। এর ফলে আপনি যতক্ষণ চাইবেন ততক্ষণ অব্দি আপনি যে অ্যাপ দেখাতে চাইছেন, তার বাইরে অন্য কোন অ্যাপ খুলবে না। আপনি অন্য কাউকে একটি নির্দিষ্ট অ্যাপ দেখানোর জন্য ফোন ধরিয়ে দিলে এই লক করতে ভুলবেন না। এর ফলে আপনার ব্যক্তিগত তথ্য সুরক্ষিত থাকবে।

এই Pin the Screen বা Screen Pinning ফিচার কীভাবে চালু করবেন দেখে নিন ধাপে ধাপে।

১. অ্যান্ড্রয়েড ফোনে এই ফিচার চালু করার জন্য সবার প্রথমেই সেটিংসে যেতে হবে।
২. সেটিংস থেকে যেতে হবে Security & Lock Screen-এর অপশনে।
৩. Security & Lock Screen-এর মধ্যে প্রাইভেসি-সংক্রান্ত অনেক বিকল্প পাবেন। এখানেই একদম নীচে পাবেন Screen Pinning অপশন।
৪. Screen Pinning অপশনে ট্যাপ করে এটি অন করে দিন।
৫. এবার ফোনের যে অ্যাপটি আপনি পিন করতে চান সেটি একবার খুলে আবার বন্ধ করে দিন।
৬. এরপর Recent Apps অপশনে গিয়ে যে অ্যাপটি পিন করতে চান সেটি লং প্রেস করুন। লং প্রেসের পর পিন অপশন বেছে নিন।
৭. এরপর পিন করা অ্যাপ ছাড়া অন্য কোন অ্যাপ আপনার ফোনে খুলবে না।

পিন সরানোর জন্য আপনাকে হোম এবং ব্যাক বাটন একসাথে প্রেস করতে হবে এবং লকস্ক্রিনের পাসওয়ার্ড দিতে হবে। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, এই ফিচারটি অ্যান্ড্রয়েড ৫.০ এবং তার পরবর্তী ভার্সনগুলিতেই উপলব্ধ।