মোবাইলে বিন্দাস লাইভ দেখুন FIFA World Cup, JioCinema আনল নতুন হাইপ মোড ও মাল্টিক্যাম ফিচার

চলতি বছরের বিশ্বকাপ দেখানোর টেলিভিশন স্বত্ব কিনেছে রিলায়েন্স গোষ্ঠী, যার ফলে স্পোর্টস ১৮ চ্যানেলের পাশাপাশি এবার JioCinema-তেও দেখা যাবে বিশ্বকাপ। অর্থাৎ, মোবাইলে এই অ্যাপ থাকলেই যে-কোনো জায়গায় বসে ইউজাররা সম্পূর্ণ নিখরচায় ফুটবলের বিশ্বযুদ্ধ দেখতে পারবেন

Jio Cinema gets Hype Mode Multicam Toggle for FIFA World Cup 2022 live

গত ২০ নভেম্বর থেকে কাতারে শুরু হয়ে গিয়েছে ফিফা ওয়ার্ল্ড কাপ ২০২২ (FIFA World Cup 2022), এবং সবচেয়ে আনন্দের বিষয় হল, টেলিভিশনের পাশাপাশি এবার মোবাইলেও দেখা যাবে কাতারের ফুটবল বিশ্বকাপ। চলতি বছরের বিশ্বকাপ দেখানোর টেলিভিশন স্বত্ব কিনেছে রিলায়েন্স গোষ্ঠী, যার ফলে স্পোর্টস ১৮ চ্যানেলের পাশাপাশি এবার JioCinema-তেও দেখা যাবে বিশ্বকাপ। অর্থাৎ, মোবাইলে এই অ্যাপ থাকলেই যে-কোনো জায়গায় বসে ইউজাররা সম্পূর্ণ নিখরচায় ফুটবলের বিশ্বযুদ্ধ দেখতে পারবেন। আরও খুশির খবর হল, Jio পরিষেবা নেই এমন মোবাইলেও JioCinema অ্যাপ ইনস্টল করা যাবে। তবে এত সুযোগসুবিধা থাকা সত্ত্বেও কিন্তু প্রথম ম্যাচ দেখতে গিয়েই ভারতের দর্শকদের নানা সমস্যার মুখে পড়তে হয়েছে।

উল্লেখ্য যে, কাতার বনাম ইকুয়েডর ম্যাচ দিয়ে এবার বিশ্বকাপের ঢাকে কাঠি পড়েছে। কিন্তু ম্যাচ তো দূরের কথা, জমকালো উদ্বোধন অনুষ্ঠান শুরু হতেই সমস্যাও শুরু হয়ে যায়। ম্যাচ সম্প্রচারে বারবার বিঘ্ন ঘটতে থাকে, যার জেরে জিওসিনেমার লাইভ স্ট্রিমিং নিয়ে বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নিজেদের ক্ষোভ উগরে দেন ভারতের ফুটবলপ্রেমীরা। একাধিক সোশ্যাল মিডিয়ায় লাগাতার নানা ধরনের ব্যাঙ্গাত্মক পোস্ট হতে থাকে, যার ফলে অগত্যা দর্শকদের কাছে ক্ষমা চাইতে বাধ্য হয় মুকেশ আম্বানির মালিকানাধীন টেলিকম কোম্পানিটি। তবে সব সমস্যারই সমাধানের উপায় আছে; সেক্ষেত্রে আপনিও যদি স্মার্টফোনে ফুটবল বিশ্বকাপ দেখতে গিয়ে এরকম অসুবিধার মুখোমুখি হয়ে থাকেন, তাহলে জানিয়ে রাখি যে, জিওসিনেমার ‘হাইপ মোড’ (Hype Mode) এবং ‘মাল্টিক্যাম’ (Multicam) আপনাকে নির্বিঘ্নে মুঠোফোনে ফুটবল ম্যাচ দেখতে সহায়তা করতে পারে। আসুন, এ বিষয়ে একটু বিশদে জেনে নেওয়া যাক।

Hype Mode এবং Multicam Toggle কী?

আপনাদেরকে জানিয়ে রাখি, জিওসিনেমাতে উপলব্ধ হাইপ মোড এবং মাল্টিক্যাম টগল বিকল্পগুলি ব্যবহার করে মূল লাইভ স্ট্রিমের চেয়েও আরও ভালোভাবে ম্যাচ দেখতে সক্ষম হবেন ব্যবহারকারীরা। বিভিন্ন ক্যামেরা অ্যাঙ্গেল, নানাবিধ ডেটা সহ আরও একাধিক ফিচার নিজেদের পছন্দমতো সেট করে এই মোডগুলির মাধ্যমে অতি অনায়াসে হাতের মুঠোফোনে ফুটবল বিশ্বকাপ দেখা যাবে। শুধু তাই নয়, এই মোডগুলি ব্যবহার করলে আরও বেশ কয়েকটি আকর্ষণীয় অপশন মিলবে, যেগুলি সাধারণ লাইভ স্ট্রিমের ক্ষেত্রে পাওয়ার কথা ভাবাই যায় না।

আপনাদেরকে জানিয়ে রাখি, হাইপ মোডে দুটি প্রতিযোগী দল সম্পর্কে বিশদ তথ্য জানতে পারা যাবে। এছাড়া, লাইভ ম্যাচ চলাকালীনই সেটিকে রিওয়াইন্ড করে আগের কোনো মুহূর্ত পুনরায় দেখার সুযোগ পাবেন ইউজাররা। তাই খেলা দেখার সময় খানিক বিঘ্ন ঘটলেও বিশেষ কোনো সমস্যা হবে না। উপরন্তু, এই মোডের সাহায্যে বিভিন্ন ক্যামেরা অ্যাঙ্গেল থেকেও ম্যাচ দেখা যাবে। তবে এক্ষেত্রে মনে রাখতে হবে যে, শুধুমাত্র লাইভ ম্যাচের সময় অ্যাক্সেস করা যাবে হাইপ মোড; কোনো গেমের হাইলাইট বা রিপ্লে দেখার সময় এই মোডটি ব্যবহার করতে পারবেন না দর্শকরা। প্রসঙ্গত জানিয়ে রাখি, শুধুমাত্র স্মার্টফোনের ক্ষেত্রেই জিওসিনেমা অ্যাপে হাইপ মোডের দেখা মিলবে। তাই অ্যান্ড্রয়েড (Android) টিভিতে নির্ঝঞ্ঝাটে ফুটবল বিশ্বকাপ দেখতে চাইলে ইউজারদেরকে মাল্টিক্যাম টগল ব্যবহার করতে হবে। অ্যান্ড্রয়েড টিভিতে বিভিন্ন ক্যামেরা অ্যাঙ্গেলের মধ্যে স্যুইচ করতে হলে এটির সাহায্য নিতে হবে ব্যবহারকারীদের।

কীভাবে Hype Mode ব্যবহার করবেন?

প্রসঙ্গত জানিয়ে রাখি, জিওসিনেমাতে কোনো ম্যাচ দেখার সময় সর্বদা ফুল-স্ক্রিন ফিচার ব্যবহার করুন। তবে হাইপ মোড মেনুটি অ্যাক্সেস করতে চাইলে, প্লেয়িং স্ক্রিনের উপরের বাম দিকে থাকা “হাইপ মোড” বিকল্পটিতে ক্লিক করুন। প্রথমবার হাইপ মোড ব্যবহার করার সময় আপনি একটি ৬-স্লাইড ইন্সট্রাকশনাল স্ক্রিন দেখতে পাবেন। অর্থাৎ সহজে বললে, কীভাবে এই মোডটি ব্যবহার করতে হবে, তা খোদ অ্যাপটিই আপনাকে জানিয়ে দেবে। বলে রাখি, হাইপ মোডে চারটি বাটন রয়েছে, যেগুলি এটিতে উপলব্ধ বিভিন্ন বৈশিষ্ট্যগুলির সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ।

প্রথম বাটনটিতে ক্লিক করলে আপনি ম্যাচের ফলাফল, কর্নার, ফাউল, অফসাইড ডিসিশন সহ ম্যাচ সম্পর্কিত আরও একাধিক তথ্য এক নিমেষেই জেনে যাবেন। উপরন্তু, লাইনআপ, পয়েন্ট চার্ট এবং পূর্ববর্তী গেমগুলির সাম্প্রতিকতম ফলাফল দেখার জন্য ট্যাবও এখানে মজুত রয়েছে। আবার, দ্বিতীয় বাটনটিতে ট্যাপ করলে আপনি বিভিন্ন ক্যামেরা অ্যাঙ্গেলের মধ্যে স্যুইচ করতে পারবেন। তৃতীয় বাটনটিতে ক্লিক করলে আপনি গেমের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হাইলাইটগুলির সাথে সম্পর্কিত তথ্য বিস্তারিতভাবে পেয়ে যাবেন। এছাড়া, আপনি যদি কোনো গেম মিস করে থাকেন, তাহলে সেটাও এখান থেকে জানতে পারবেন। এবং সবশেষে চতুর্থ বাটনটি ক্লিক করে আপনি ম্যাচের প্লেব্যাক স্পিড অ্যাডজাস্ট করতে পারবেন। উল্লেখ্য যে, নেটফ্লিক্স (Netflix)-এর মতো ১০-সেকেন্ড স্কিপ এবং রিওয়াইন্ড বিকল্পগুলিও এখানে উপলব্ধ রয়েছে।

কীভাবে Multicam ব্যবহার করবেন?

হাইপ মোডের মতো মাল্টিক্যাম টগলটিও কেবলমাত্র লাইভ গেমের সময় ব্যবহার করা যেতে পারে। মাল্টিক্যাম টগলটির সন্ধান পেতে রিমোটের নেভিগেশনাল বাটনগুলি ব্যবহার করুন এবং তারপরে এই মোডটিকে অ্যাক্টিভেট করুন। বলে রাখি, প্লেয়ার স্ক্রিনের উপরের ডান দিকের কোণে এটিকে দেখা যাবে। মাল্টিক্যাম টগলে ক্লিক করলে আপনি বিভিন্ন ধরনের ক্যামেরা সেটিংস নিজের পছন্দমতো বেছে নিতে পারবেন, যার মধ্যে রয়েছে এন্ড-টু-এন্ড ট্যাকটিক্যাল ভিউ, ৩৬০ ডিগ্রি ওয়্যার ক্যামেরা সহ আরও অনেক কিছু। অর্থাৎ সহজে বললে, ইউজাররা নিজেদের পছন্দসই ক্যামেরা অ্যাঙ্গেল বেছে নিয়ে এই মোডের সাহায্যে একদম আরামসে ফুটবল ম্যাচ দেখার মজা উপভোগ করতে সক্ষম হবেন।