নতুন Smartphone কিনেছেন? এই পাঁচটি বিষয় মাথায় না রাখলে পরে পস্তাতে হবে

প্রয়োজন কিংবা নিছক শখ পূরণ, ট্রেন্ডের সাথে আপডেট থাকার ইচ্ছে – যে কারণেই আপনি স্মার্টফোন কিনুন না কেন, নতুন অবস্থায় সেটি হাতের মুঠোয় পাওয়ার মজা বা অনুভূতি অবশ্যই অন্যরকম থাকে। কিন্তু নতুন হ্যান্ডসেট কেনার পর শুধু খুশি হওয়া বা সেটিকে একবারের জন্য চোখ ছাড়া না করাটাই শেষ কথা নয়, বরঞ্চ এরই সাথে ফোনের যত্ন নেওয়া এবং অযাচিত সমস্যা থেকে দূরে থাকার জন্য কিছু বিষয় মাথায় রাখা আবশ্যক। আর তাই আজকের প্রতিবেদনে আমরা কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ জিনিসের কথা বলব, যেগুলি খেয়াল রাখলে আপনার নতুন স্মার্টফোনে ভালো এক্সপিরিয়েন্স পাবেন এবং কোনোরকম ক্ষতির সম্ভাবনা থাকবেনা। তো আসুন, দেখে নিই সেইসব গোপন মন্ত্রগুলি…

নতুন ফোন কেনার পর মাথায় রাখুন এই পাঁচটি বিষয়

১. কভার এবং স্ক্রিন প্রোটেক্টর ব্যবহার করুন: নতুন ফোনের ডিজাইন এবং বিল্ড কোয়ালিটি যতই দুর্দান্ত হোক না কেন, এটিকে অতিরিক্ত সুরক্ষা দিতে যতো তাড়াতাড়ি একটি ভালো কভার বা কেস ব্যবহার করুন। এটি ফোনের বডিকে দাগ-স্ক্র্যাচ থেকে বাঁচাবে, তাছাড়া এতে মিলবে ড্রপ সুরক্ষা মানে পড়ে যাওয়ার মতো ক্ষতি থেকে নিশ্চিন্তিও। একইভাবে, স্ক্রিন প্রোটেক্টর ফোনের ডিসপ্লেকে সুরক্ষিত রাখবে।

২. ইনসিওরেন্স বা বীমা করান: আপনি যদি হাজার হাজার টাকা খরচ করে মানে বহুমূল্য প্রিমিয়াম স্মার্টফোন কিনে থাকেন, তাহলে আরও অল্প কিছু টাকা খরচ করে এটির জন্য একটি ইনসিওরেন্স প্রোটেকশন প্ল্যান নিন। আপনি প্রয়োজন এবং বাজেট অনুযায়ী যেকোনো বীমা পরিকল্পনা ব্যবহার করতে পারেন যাতে ডিভাইস ভেঙে যাওয়া, চুরি যাওয়া বা অন্যান্য ক্ষয়ক্ষতির ক্ষেত্রে কাজে আসবে; এমনকি এর থেকে মিলতে পারে অতিরিক্ত ওয়ারেন্টিও।

৩. সফ্টওয়্যার আপডেট চেক করুন: নতুন ফোন অন করা এবং সেট আপ করার পর, সেটির ব্যবহার শুরু করার আগে কোনো লেটেস্ট সফ্টওয়্যার আপডেট উপলব্ধ রয়েছে কিনা এবং বিদ্যমান সফ্টওয়্যার ভার্সন কী, তা পরীক্ষা করে নিন। আসলে অনেক সময়ই কোম্পানিগুলি ফোন লঞ্চ করার পরপরই সফ্টওয়্যার আপডেট দেয়, যাতে এগুলিতে উপস্থিত কোনো বাগ বা ত্রুটি ঠিক হয়।

৪. ক্লাউড স্টোরেজ সেটআপ করুন: ফোনে নিজের ডেটা সুরক্ষিত রাখতে সবসময় ফটো থেকে কন্ট্যাক্ট পর্যন্ত সমস্ত কিছু ক্লাউড স্টোরেজ বা অন্যত্র ব্যাক আপ নিয়ে রাখুন। এক্ষেত্রে আপনি গুগল ড্রাইভ (Google Drive), ড্রপবক্স (Dropbox) বা স্মার্টফোন ব্র্যান্ডগুলির নিজস্ব ক্লাউড সিস্টেম ব্যবহার করতে পারেন। এতে ডেটা হারানো নিয়ে চিন্তা থাকবেনা।

৫. ফোনের বিল এবং বক্স নিরাপদ রাখুন: এত গেল ফোনের সামগ্রিক সুরক্ষার কথা। তবে এর পাশাপাশি যে জিনিসটি খেয়াল রাখতে হবে তা হল নতুন কেনা ফোনের বিল এবং বক্স যত্নে রাখা। কারণ আপনি স্মার্টফোন অনলাইনে কিনুন বা অফলাইন স্টোরে, এর বিল-বক্স ওয়ারেন্টি দাবি করতে ও অন্যান্য পরিষেবা পেতে, চুরি বা হারানোর ক্ষেত্রে অভিযোগ জানাতে বা ট্র্যাক করতে এবং ভবিষ্যতে ফোন বিক্রির ক্ষেত্রে কাজে আসবে।