Homeটেক গাইডপিএফ ব্যালেন্স জানতে গিয়ে খোয়া গেল ১ লক্ষ ২৩ হাজার টাকা, দেখে নিন PF Balance চেক করার সঠিক পদ্ধতি

পিএফ ব্যালেন্স জানতে গিয়ে খোয়া গেল ১ লক্ষ ২৩ হাজার টাকা, দেখে নিন PF Balance চেক করার সঠিক পদ্ধতি

সম্প্রতি পিএফ ব্যালেন্স চেক করতে গিয়ে ১ লক্ষ ২৩ হাজার টাকা খুইয়েছেন মুম্বাইয়ের আন্ধেরিতে বসবাসকারী ৪৭ বছরের এক ব্যক্তি

বর্তমানে অধিকাংশ চাকুরীজীবীরাই চান যে তাদের মাসিক বেতনের পাশাপাশি পিএফ (PF)-ও থাকুক, কারণ এর ফলে ভবিষ্যৎ সুরক্ষিত থাকে। তবে সাধারণভাবে বেসরকারি সংস্থার বেতনভুক কর্মীরা অনেক সময়েই তাদের পিএফের টাকা সময়মতো জমা পড়ল কি না, তা নিয়ে চিন্তিত থাকেন। এর পাশাপাশি ঠিক কত টাকা অ্যাকাউন্টে জমা রয়েছে, সেই প্রশ্নও মাথায় আকছার ঘুরপাক খায়; যার ফলে মাঝে মাঝে পিএফ ব্যালেন্স চেক করার প্রয়োজন হয়ে পড়ে। এক্ষেত্রে বলে রাখি, পিএফ ব্যালেন্স দেখার অনেক উপায় আছে। ইউজাররা EPFO-র ওয়েবসাইটে গিয়ে বা Umang অ্যাপের সাহায্যে খুব সহজেই এই কাজ করতে পারেন। তবে অনেক সময়ই অথোরাইজড পরিষেবার সহায়তা না নিয়ে ইউজাররা অন্য কোনো অননুমোদিত পদ্ধতিতে পিএফ ব্যালেন্স চেক করে বসেন, যার ফলে দুর্বৃত্তদের খপ্পরে পড়ে বেশ কিছু ক্ষেত্রে ব্যবহারকারীদের বড়োসড়ো ক্ষতির সম্মুখীন হতে হয়। সম্প্রতি প্রতারকদের ফাঁদে পড়ে মোটা টাকা খোয়ানোর এমনই এক চাঞ্চল্যকর ঘটনার খবর সামনে এসেছে।

পিএফ ব্যালেন্স চেক করতে গিয়ে হ্যাকারদের খপ্পরে পড়ে ১.২৩ লক্ষ টাকা খোয়ালেন এক ব্যক্তি

সম্প্রতি পিএফ ব্যালেন্স চেক করতে গিয়ে ১ লক্ষ ২৩ হাজার টাকা খুইয়েছেন মুম্বাইয়ের আন্ধেরিতে বসবাসকারী ৪৭ বছরের এক ব্যক্তি। কিন্তু ঠিক কীভাবে ঘটলো এই শোচনীয় দুর্ঘটনা? প্রতিবেদনে বলা হয়েছে যে, ওই ব্যক্তি এক বেসরকারি সংস্থায় হিসাবরক্ষক হিসেবে কাজ করেন। সম্প্রতি তিনি তার পিএফ ব্যালেন্স চেক করার জন্য ইন্টারনেটে ইপিএফও হেল্পলাইন নম্বরের সন্ধান করছিলেন। দীর্ঘক্ষণ ঘাঁটাঘাঁটি করার পর তিনি ইন্টারনেটে একটি হেল্পলাইন নম্বর দেখতে পান, কিন্তু তিনি ঘূণাক্ষরেও টের পাননি যে নম্বরটি ভুয়ো। আসলে সহজসরল সাধারণ মানুষকে প্রতারিত করার জন্য দুর্বৃত্তরা নিজেরাই এই নম্বরটিকে ইন্টারনেটে আপলোড করেছিল, যার জেরে সম্পূর্ণভাবে নিজের অজান্তেই প্রতারকদের পাতা ফাঁদে পা দিয়ে ফেলেন ওই ব্যক্তি; এবং ওই নম্বরটিকেই সঠিক হেল্পলাইন নম্বর মনে করে তিনি তৎক্ষণাৎ সেটিতে ফোন করে বসেন।

ফ্রি প্রেস জার্নালের প্রতিবেদন অনুযায়ী, এরপর পিএফ ব্যালেন্স জানার জন্য প্রতারকরা ওই ব্যক্তিকে একটি রিমোট অ্যাক্সেস অ্যাপ ডাউনলোড করার নির্দেশ দেয়; এবং দুর্বৃত্তদের কথামতো ওই ব্যক্তি অ্যাপটি ডাউনলোড করে ফেলা মাত্রই ঘটে যায় এই নির্মম দুর্ঘটনা। পুলিশের তরফে জানা গিয়েছে যে, ১৪ টি ট্রানজ্যাকশন মারফত ওই ব্যক্তির অ্যাকাউন্ট থেকে ১.২৩ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেয় হ্যাকাররা।

রিপোর্টে আরও বলা হয়েছে যে, ওই ব্যক্তি নিজের ফোনে ইপিএফও-র ওয়েবসাইট খোলার চেষ্টা করলেও তা লোড হয়নি। এরপর তিনি পিএফের কাস্টমার কেয়ার নম্বরের সন্ধান পাওয়ার জন্য ইন্টারনেটে ঘাঁটাঘাঁটি করতে শুরু করেন, আর সেখানেই লুকিয়েছিল প্রতারণার ফাঁদ। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে যে, জাল নম্বরটিতে ফোন করা মাত্রই এক ভুয়ো হেল্পলাইন আধিকারিক ওই ব্যক্তিকে নিজের ফোনে একটি রিমোট অ্যাক্সেস অ্যাপ ডাউনলোড করার নির্দেশ দেয়। এরপর ওই ভুয়ো অফিসারের সঙ্গে ৯ ডিজিটের একটি কোডও শেয়ার করেন ওই ব্যক্তি। পুলিশ জানিয়েছে যে, প্রতারক ওই ব্যক্তিকে তার ই-পেমেন্ট গেটওয়ে সিস্টেমে লগ ইন করে কিছুটা অর্থ প্রদান করতে বলে, যাতে পিএফ ব্যালেন্স চেক করার প্রক্রিয়া শুরু করা যায়। আর এই সুনিপুণ ছলাকলার সৌজন্যে ভুক্তভোগীকে প্রতারণার জালে ফাঁসায় হ্যাকাররা, এবং তারপরে তার অ্যাকাউন্ট থেকে লক্ষাধিক টাকা চুরি করে নেয়।

অফিসিয়াল ওয়েবসাইট ছাড়া অন্য কোথাও থেকে কাস্টমার কেয়ার নম্বর নেওয়া উচিত নয়

সুতরাং, পিএফ ব্যালেন্স চেক করতে চাইলে ইউজারদেরকে যে অবশ্যই যথাযথ সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে, সেকথা আর আলাদা করে বলে দেওয়ার প্রয়োজন পড়ে না। কারণ দুর্ঘটনাবশত ছোটোখাটো কোনো ভুল করে ফেললেই ভবিষ্যতে বড়োসড়ো ক্ষতির সম্মুখীন হতে হবে ব্যবহারকারীদের। যেহেতু অনলাইনে কাস্টমার কেয়ার নম্বর সহজেই এডিট করা যায়, সেই কারণে বেশ অনেক ক্ষেত্রেই সহজসরল সাধারণ মানুষকে প্রতারণার শিকার হতে হয়। তাই বর্তমান ডিজিটাল যুগে হ্যাকারদের হাত থেকে রেহাই পেতে হলে ইউজারদের সর্বদা অফিসিয়াল ওয়েবসাইট থেকে কাস্টমার কেয়ার নম্বর নেওয়া উচিত। এখন চলুন, বাড়িতে বসেই কীভাবে নিরাপদে তথা নির্ঝঞ্ঝাটে পিএফ ব্যালেন্স চেক করা যেতে পারে, সে সম্পর্কে বিশদে জেনে নেওয়া যাক।

ঘরে বসেই নিম্নোক্ত উপায়গুলি অবলম্বন করে অতি অনায়াসে জেনে নিন নিজের PF Balance

১. ইপিএফও পোর্টালের মাধ্যমে কীভাবে পিএফ ব্যালেন্স চেক করবেন?

ইপিএফও পোর্টালের মাধ্যমে পিএফ ব্যালেন্স চেক করতে চাইলে ইউজারদেরকে ইপিএফও-র অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে যেতে হবে বা নিম্নোক্ত লিঙ্কে ক্লিক করতে হবে- www.epfindia.gov.in। এরপর ‘আওয়ার সার্ভিসেস’ (Our services) ট্যাব সিলেক্ট করে ‘ফর এমপ্লয়িজ’ (For employees)-এ ক্লিক করতে হবে। এবার ‘মেম্বার পাসবুক’ (Member Passbook)-এ ক্লিক করে ব্যবহারকারীদেরকে নিজস্ব ইউএএন (UAN) এবং পাসওয়ার্ডটি এন্টার করতে হবে। এরপর ইউজাররা নিজেদের পাসবুকটি দেখতে পাবেন। উল্লেখ্য যে, যারা অনেকগুলি সংস্থায় কাজ করেছেন, তাদের কাছে একাধিক মেম্বার আইডি বিদ্যমান থাকবে।

২. Umang অ্যাপ থেকে কীভাবে পিএফ ব্যালেন্স চেক করবেন?

উমং অ্যাপের মাধ্যমে পিএফ ব্যালেন্স চেক করতে হলে প্রথমে অ্যাপটি ডাউনলোড করতে হবে এবং তারপরে পিএফ অ্যাকাউন্টের ব্যালেন্স চেক করার জন্য ইউজারদের নিজস্ব ইউএএন এবং ওটিপি (ওয়ান টাইম পাসওয়ার্ড) এন্টার করে লগ ইন করতে হবে।

৩. এসএমএস মারফত কীভাবে পিএফ ব্যালেন্স চেক করা যেতে পারে?

ব্যবহারকারীরা ইউএএন (ইউনিভার্সাল অ্যাকাউন্ট নম্বর) সহ নিজেদের নিবন্ধিত মোবাইল নম্বর ব্যবহার করে ‘EPFOHO UAN ENG’ টাইপ করে ৭৭৩৮২৯৯৮৯৯ নম্বরে একটি টেক্সট মেসেজ পাঠিয়ে পিএফ ব্যালেন্স চেক করতে পারেন। উল্লেখ্য, মেসেজের শেষ তিনটি অক্ষর নির্দেশিত করে যে ইউজাররা কোন ভাষায় নিজেদের পিএফ ব্যালেন্সের তথ্য সংবলিত মেসেজ পেতে চাইছেন। আপনাদেরকে জানিয়ে রাখি, হিন্দি, বাংলা, তামিল, মারাঠি, গুজরাটি, কন্নড়, পাঞ্জাবি, তেলুগু এবং মালয়ালম সহ মোট নয়টি ভাষায় এই পরিষেবাটি উপলব্ধ।

৪. মিসড কল দিয়ে কীভাবে পিএফ ব্যালেন্স চেক করবেন?

রেজিস্টার্ড ইউজাররা ইউএএন-এর সাথে নিবন্ধিত মোবাইল নম্বর থেকে ০১১-২২৯০১৪০৬ -এ একটি মিসড কল দিতে পারেন, যার পরে তারা পিএফ ব্যালেন্সের ডিটেইলস সহ একটি এসএমএস পাবেন।

আরও পড়ুন