Homeটেক গাইডUPI Tips: হ্যাকাররা হাতাতে পারবে না এক টাকাও, যদি লেনদেনের সময় মেনে চলেন এই ৬টি নিয়ম

UPI Tips: হ্যাকাররা হাতাতে পারবে না এক টাকাও, যদি লেনদেনের সময় মেনে চলেন এই ৬টি নিয়ম

পকেটে কিংবা মানিব্যাগে মোটা নগদ টাকা রাখার দিন এখন প্রায় অতীত হয়ে গিয়েছে বললেই চলে, কেননা এখন অধিকাংশ মানুষই ক্যাশলেস অনলাইন পেমেন্ট বা UPI (ইউপিআই বা ইউনিফায়েড পেমেন্ট ইন্টারফেস) সিস্টেম ব্যবহার করতে পছন্দ করেন। করোনা মহামারীর আগমনের পর থেকে ন্যাশনাল পেমেন্টস কর্পোরেশন অফ ইন্ডিয়ার এই ইনস্ট্যান্ট রিয়েল-টাইম পেমেন্ট সিস্টেমটির ব্যবহার বহুল মাত্রায় বৃদ্ধি পেয়েছে। যেহেতু হাতে একটি স্মার্টফোন এবং ইন্টারনেট কানেকশন থাকলেই UPI-এর সাহায্যে কয়েক মিনিটের মধ্যে টাকা ট্রান্সফার, পেমেন্ট, বিল পরিশোধ, রিচার্জ ইত্যাদি কাজ অতি অনায়াসেই করা যায়, তাই বহু মানুষের কাছেই এই পরিষেবাটি বেশ গ্রহণযোগ্য হয়ে উঠেছে। তবে সব জিনিসেরই ভালো-খারাপ দুটি দিকই রয়েছে; সেক্ষেত্রে যথাযথ সতর্কতা অবলম্বন না করে UPI পেমেন্ট অপশন ব্যবহার করলেও ইউজারদের ভয়ঙ্কর রকমের বিপদের মুখোমুখি হওয়ার সম্ভাবনা প্রবল।

আসলে ব্যাপারটা হল, এই অনলাইন পেমেন্ট সিস্টেমটি এখন রোজকার জীবনের একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ হয়ে যাওয়ায় জালিয়াতরা এটিকে হাতিয়ার করে বেশ অনেক ক্ষেত্রেই সাধারণ মানুষকে প্রতারিত করছে বা বোকা বানাচ্ছে। তবে পেমেন্ট করার সময় যদি কয়েকটি বিষয় মাথায় রাখা যায়, তাহলে কিন্তু একদম নির্বিঘ্নে ও নির্ঝঞ্ঝাটে এই পরিষেবা ব্যবহার করা যাবে। তাই সাইবার নিরাপত্তা এবং নিরাপদ ইউপিআই ট্রানজ্যাকশন সম্পর্কে গ্রাহকদের সচেতনতা বৃদ্ধি করতে স্টেট ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া বা এসবিআই (SBI) হালফিলে হাফ ডজন গুরুত্বপূর্ণ টিপস শেয়ার করেছে। এই ৬টি টিপস মেনে চললেই সাইবার জালিয়াতি এবং ইউপিআই লেনদেনের সাথে সম্পর্কিত স্ক্যামগুলি থেকে নিরাপদ থাকার পাশাপাশি ইউজাররা নিজেদের কষ্টার্জিত অর্থকে সুরক্ষিত রাখতে সক্ষম হবেন। তাহলে চলুন, এসবিআই কর্তৃক প্রদত্ত সাবধানবাণীগুলির ওপর একনজরে চোখ বুলিয়ে নেওয়া যাক।

১. পেমেন্ট রিসিভ করার সময় কোনো UPI PIN-এর প্রয়োজন নেই

আপনি যদি ইউপিআই-এর মাধ্যমে কারোর কাছ থেকে টাকা রিসিভ করেন, তাহলে সেক্ষেত্রে আপনার ইউপিআই পিন এন্টারের কোনো প্রয়োজন নেই। যারা জানেন না তাদের বলে রাখি, ইউপিআই সিস্টেম মারফত ট্রানজ্যাকশনের ক্ষেত্রে আপনি যখন কাউকে টাকা পাঠাতে চাইছেন, কেবলমাত্র তখনই ইউপিআই পিনের প্রয়োজন হয়। তাই টাকা রিসিভ করার সময় যদি আপনার কাছ থেকে কেউ ইউপিআই পিন নম্বরটি চেয়ে বসে, তাহলে আপনাকে তখন অতি অবশ্যই সাবধান হয়ে যেতে হবে।

২. আপনি যে ব্যক্তিকে টাকা পাঠাচ্ছেন, তার পরিচয় সর্বদা যাচাই করে নিন

যখনই আপনি একটি কিউআর (QR) কোড বা ফোন নম্বরের মাধ্যমে ইউপিআই পেমেন্ট করছেন, তখন সেই ব্যক্তির পরিচয় অবশ্যই ক্রস-চেক করে দেখে নিন। কিউআর কোড বা ফোন নম্বরের মাধ্যমে কোনো অপরিচিত ব্যক্তিকে কখনোই ইউপিআই সিস্টেম মারফত টাকা পাঠাবেন না।

৩. অর্থলাভের জন্য হ্যাকারদের দেখানো প্রলোভন এড়িয়ে চলুন

সাধারণ মানুষকে টাকা লাভের আশা দেখানোর জন্য কখনো কখনো প্রতারকরা ইউপিআই অ্যাপের ‘কালেক্ট রিকোয়েস্ট’ ফিচারটিকে ব্যবহার করে। আর নিজের অ্যাকাউন্টে বেশ কিছু টাকা আসবে, এই কথা ভেবে সহজসরল ইউজাররাও এই ফিচারটিকে এনাবেল করে ফেলেন। কিন্তু পরিশেষে দেখা যায় যে, তাদের অ্যাকাউন্টে টাকা আসার পরিবর্তে তারা প্রতারকদের সাইবার জালিয়াতির শিকার হয়ে কার্যত সর্বস্বান্ত হয়ে গেছেন! তাই এ সম্পর্কে আপনাদেরকে অবশ্যই সতর্ক থাকতে হবে।

৪. কখনো কারোর সাথে আপনার UPI PIN শেয়ার করবেন না

আপনার ইউপিআই পিন হল আপনার নিরাপত্তা তথা সুরক্ষার রক্ষাকবচ। তাই নিজের কষ্টার্জিত টাকাকে বেহাত করতে না চাইলে কখনো কারোর সাথে ইউপিআই পিন শেয়ার করবেন না।

৫. QR কোডের মাধ্যমে পেমেন্ট করার সময় সর্বদা বেনিফিসিয়ারির ডিটেইলস যাচাই করুন

আজকাল কিউআর কোডের মাধ্যমে ইউপিআই পেমেন্ট সর্বত্র করা হচ্ছে। দোকানদারের জিনিসের দাম থেকে শুরু করে অটোচালকের ভাড়া – চলতি সময়ে সবক্ষেত্রেই কিউআর কোডের মাধ্যমে পেমেন্ট এখন জলবৎ তরলং হয়ে গিয়েছে। আর সিস্টেমটির এই ব্যাপক জনপ্রিয়তার ফলে অপরাধীরাও এখন এর সদ্ব্যবহার করার জন্য উঠেপড়ে লেগেছে। এই জাতীয় কর্মজীবিদের পাশাপাশি সাধারণ মানুষকেও প্রতারিত করার জন্য তারা অনেকসময় ব্যাপারী কর্তৃক প্রদত্ত কিউআর কোডগুলিকে বদলে নিজেদের কিউআর কোডের পোস্টার সেখানে লাগিয়ে দেয়। ফলে সেই কোড ব্যবহার করে পেমেন্ট করলেই টাকাটা আসল মালিকের কাছে না গিয়ে সরাসরি হ্যাকারদের অ্যাকাউন্টে পৌঁছে যায়। তাই কিউআর কোড মারফত পেমেন্ট করার সময় আপনি যাকে টাকা পাঠাচ্ছেন, তার নাম এবং যাবতীয় ডিটেইলস অবশ্যই বিশদে যাচাই করে নিন।

৬. নির্দিষ্ট সময় অন্তর আপনার UPI পিন পরিবর্তন করুন

বিশেষজ্ঞদের মতে, ATM (এটিএম) পিনের মতো নির্দিষ্ট সময় অন্তর UPI পিন পরিবর্তন করাও বেশ ভালো অভ্যাস। এর ফলে যদি কখনো দুর্ঘটনাক্রমে কারোর সাথে আপনি আপনার UPI পিনটি শেয়ার করে ফেলেন, তাহলে আগামী দিনে ভয়ঙ্কর রকমের বিপদের মুখোমুখি হওয়ার হাত থেকে আপনি রেহাই পেয়ে যাবেন।

আরও পড়ুন