ব্যবসা বন্ধ করার ইঙ্গিত? গতবছরের তুলনায় অর্ধেক স্মার্টফোন উৎপাদন করবে Huawei

huawei-orders-half-smartphones-component-this-year-than-previous.jpg

স্মার্টফোন ব্যবসা থেকে ধীরে ধীরে হারিয়ে যেতে বসেছে একসময়ের বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম স্মার্টফোন কোম্পানি Huawei। ইতিমধ্যেই এই চীনা কোম্পানিটি তার সাব ব্র্যান্ড, Honor কে অন্য কোম্পানির হাতে তুলে দিয়েছে। এছাড়াও মাঝে গুঞ্জন উঠেছিল যে, হুয়াওয়ে তাদের স্মার্টফোন ব্যবসা পুরোপুরি বন্ধ করতে পারে। যদিও কিছুদিন আগে হুয়াওয়ের সিইও ও ফাউন্ডার, Ren Zhengfei জানিয়েছেন, তাদের এই ধরণের কোনো পরিকল্পনাই নেই। বরং তারা ফ্ল্যাগশিপ স্মার্টফোনের ওপর জোর বাড়াচ্ছে বলে Ren Zhengfei এর দাবি।

যদিও সম্প্রতি সামনে আসা একটি রিপোর্ট কিন্তু অন্য কথা বলছে। Nikkei থেকে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, Huawei এবছর তার কম্পোনেট সাপ্লায়ারদের থেকে কেবল ৭০-৮০ মিলিয়ন স্মার্টফোনের যন্ত্রাংশ অর্ডার করেছে। এই সংখ্যাটি হুয়াওয়ের মত কোম্পানির জন্য যথেষ্ট কম। জানিয়ে রাখি গতবছর এই পরিমান ছিল প্রায় ১৯০ মিলিয়ন। শুধু তাই নয়, ২০১৯ সালে কোম্পানিটি ২৪০ মিলিয়ন স্মার্টফোন বিক্রি করেছিল।

ফলে জলের মত পরিষ্কার যে হুয়াওয়ের স্মার্টফোনের চাহিদা দিন দিন কমছে। আসলে প্রাক্তন মার্কিন প্রেসিডেন্ট, ডোনাল্ড ট্রাম্প, চীনা সরকারের সাথে যোগসাজসের অভিযোগে Huawei কে ব্যান করার পর থেকেই, Ren Zhengfei দের বাজার ধীরে ধীরে ছোট হতে শুরু করেছে। নিষেধাজ্ঞার সম্মুখীন হয়ে চীনা স্মার্টফোন কোম্পানিটি এখন না তো পারছে আমেরিকায় তাদের স্মার্টফোন বিক্রি করতে, আবার গুগলের মত আমেরিকান কোন কোম্পানির পরিষেবা গ্রহণেও তারা অসমর্থ।

যদিও এরপরও Huawei শীঘ্রই তাদের দুটি ফ্ল্যাগশিপ স্মার্টফোন বাজারে আনতে চলেছে। এরমধ্যে আগামীকালই লঞ্চ হবে কোম্পানির দ্বিতীয় ফোল্ডেবল স্মার্টফোন Huawei Mate X2। এই ফোনে গ্যালাক্সি ফোল্ড এর মত ডিজাইন এবং কিরিন ৯০০০ প্রসেসর থাকবে। আবার মার্চের শেষে আসতে পারে Huawei P50 সিরিজ। এই সিরিজে দুটি স্মার্টফোন থাকতে পারে – P50 এবং P50 Pro। এই সিরিজের ৫এনএম বেসড কিরিন ৯০০০ প্রসেসর ব্যবহার করা হতে পারে।

হোয়াটসঅ্যাপে খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন