Hyundai Vision FK: হাইড্রোজেন জ্বালানি চালিত এই গাড়ি একটানা যেতে পারে ৬০০ কিমির বেশি

Hyundai Vision FK কনসেপ্ট কার প্রকাশ্যে এসেছে, এই গাড়ি চলবে হাইড্রোজেন জ্বালানি ও বৈদ্যুতিক শক্তির যুগলবন্দীতে

hyundai-vision-fk-concept-car-unveil-with-hydrogen-fuel-mileage-600km

বিশ্বে প্রচলিত শক্তির বিকল্প হিসেবে স্বচ্ছ ও দূষণহীন হাইড্রোজেন জ্বালানির (Hydrogen Fuel) গুরুত্ব ক্রমশ বাড়ছে। সম্প্রতি ‘হাইড্রোজেন ওয়েভ’ (Hydrogen Wave) অনলাইন ইভেন্টে সে কথাই শোনা গিয়েছে দক্ষিণ কোরিয়ার বহুজাতিক গাড়ি সংস্থা হুন্ডাই (Hyundai)-এর মুখে। পরিবহন ও অন্যান্য শিল্প ক্ষেত্রে হাইড্রোজেন ফুয়েল সেলকে জনপ্রিয় করার উদ্দেশ্য হুন্ডাইয়ের। ২০৪০ সালের মধ্যে সংস্থাটি তাদের নতুন ও পুরনো গাড়িগুলোকে হাইড্রোজেন এবং বৈদ্যুতিক শক্তির দ্বারা চালানোর লক্ষ্য নিয়েছে।

ওই অনলাইন ইভেন্টে বিভিন্ন নতুন ফুয়েল সেলের কনসেপ্ট প্রকাশ্যে এনেছে হুন্ডাই। সেইসঙ্গে Hyundai Vision FK কনসেপ্ট কারের উপর থেকে পর্দা সরিয়েছে তারা। পেট্রোল/ডিজেল নয়, এই গাড়ি চলবে হাইড্রোজেন জ্বালানি ও বৈদ্যুতিক শক্তির যুগলবন্দীতে। ভবিষ্যতে হাই-পারফরম্যান্স স্পোর্টস গাড়ির দুনিয়া কেমন হবে, Vision FK কনসেপ্ট কারের মাধ্যমে তার একটি ছোট ঝলক দেখিয়েছে হুন্ডাই।

Hyundai Vision FK ডিজাইন

হুন্ডাই ভিশন এফকে কনসেপ্ট কার আধুনিকতম  প্রযুক্তির সাহায্যে নির্মাণ করা হলেও এর ডিজাইন প্রচলিত দুই আসন বিশিষ্ট স্পোর্টি কুপ-এর মতো। গাড়িটির গা ক্যামোফ্ল্যাজ করেছে হুন্ডাই। অনেকটা কিয়া স্টিঙ্গারের মতো ডিজাইন ভিশন এফকে কনসেপ্ট কারে। গাড়িটির ফ্রন্ট গ্রিল ও বাম্পার ডিজাইন অবশ্যই কিয়া স্টিঙ্গারকে মনে করাবে। তবে হেডলাইটগুলোর ডিজাইনে পরিবর্তন করা হয়েছে বলে মনে হচ্ছে।

Hyundai Vision FK হাইড্রোজেন ফুয়েল সেল, ব্যাটারি, ও মোটর

হাইপারকার প্রস্তুতকারক, রিম্যাক (Remac)-এর হাতে তৈরি হাইড্রোজেন ফুয়েল সেল ও একটি ব্যাটারি প্যাক রয়েছে হুন্ডাই ভিশন এফকে গাড়িতে। এগুলো একসঙ্গে গাড়ির সামনের একজোড়া মোটরকে পরিচালনা করে। মোটরের পাওয়ার আউটপুট ৬৭০ বিএইচপি। ০ থেকে ১০০ কিলোমিটার প্রতি ঘণ্টার গতিতে পৌঁছতে হুন্ডাই ভিশন এফকে-র সময় লাগে ৪ সেকেন্ডেরও কম।

Hyundai Vision FK রেঞ্জ

হুন্ডাই ভিশন এফকে একটানা ৬০০ কিমির বেশি পথ পাড়ি দিতে সক্ষম। তবে তার জন্য গাড়ির হাইড্রোজেন ট্যাঙ্ক ভর্তি থাকতে হবে। সেইসঙ্গে ব্যাটারির মধ্যে ১০০ শতাংশ চার্জ মজুত থাকা আবশ্যিক। ব্যাটারি পুরো চার্জ হওয়ার জন্য কত সময় নেবে, সে বিষয়ে অবশ্য জানায়নি হুন্ডাই। তবে গাড়িতে পেট্রোল বা ডিজেল ভরার মতো হাইড্রোজেন ভরতেও একই সময় লাগবে।

Hyundai Vision FK কবে বাজারে আসবে

আমরা জানি মতামত জানার জন্য এই কনসেপ্ট কারগুলি প্রদর্শন করা হয়ে থাকে। ফলে হুন্ডাই ভিশন এফকে সাধারণ মানুষের ব্যবহারের জন্য নাও তৈরি করা হতে পারে। কোম্পানির তরফেও সেই নিয়ে কোনও বার্তা আসেনি।

প্রসঙ্গত, বর্তমানে হাইড্রোজেন জ্বালানি তৈরির খরচ অত্যন্ত চড়া। তবে নতুন প্রযুক্তির হাত ধরে অদূর ভবিষ্যতেই তা অনেকটা কমতে পারে। হুন্ডাইয়ের লক্ষ্য, ২০৩০-এর মধ্যে ব্যাটারিচালিত গাড়ির দামেই হাইড্রোজেন জ্বালানির গাড়ি বিক্রি করা। এতএব, সাধ্যের মধ্যে হাইড্রোজেন চালিত স্পোর্টসকার বাজারে অনেক আগেই চলে আসবে বলে ধরে নেওয়া যায়।

হোয়াটসঅ্যাপে খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন

টেকগাপে শুভ্রর প্রথম প্রযুক্তি বিষয়ক লেখায় হাতেখরি৷ স্নাতক স্তরের পড়াশোনার পাশাপাশি এখানেই চলতে থাকে শুভ্রর লেখালেখি৷ কলেজের অধ্যায় শেষ হওয়ার পর শুভ্র এখন টেকগাপের কনটেন্ট টিমের একজন গুরুত্বপূর্ণ সদস্য৷