করোনাকালে আর্থিকভাবে নিরাপদ ও সুরক্ষিত কিভাবে থাকবেন, জানালো ICICI ব্যাংক

icici-bank-shares-tips-to-stay-financially-safe-and-secure

Covid-19 মহামারী আমাদের সবার জীবনে ব্যাপকভাবে প্রভাব ফেলেছে। আমাদের জীবন তথা বেঁচে থাকাই একপ্রকার অনিশ্চিত হয়ে গেছে। এই ভয়ঙ্কর পরিস্থিতিকে হাতিয়ার করে প্রতারকরা মানুষকে প্রতারিত করার নিত্যনতুন ফন্দিফিকির এঁটে চলেছে। তাই এখন আমাদের পরিবারের সুরক্ষা নিশ্চিত করার জন্য প্রয়োজনীয় সতর্কতা অবলম্বন করা অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠেছে। এই সময় কোনো ব্যক্তির শারীরিকভাবে সুস্থ থাকার পাশাপাশি, আর্থিকভাবে নিরাপদ ও সুরক্ষিত থাকাও সমানভাবে গুরুত্বপূর্ণ। সেকারণেই জনসচেতনতা বাড়াতে একগুচ্ছ টিপস সহ একটি তালিকা শেয়ার করল ICICI ব্যাংক। এই তালিকায় বীমা পলিসির বিশদ হাতের কাছে রাখা ছাড়াও, কিভাবে প্রতারণা এড়ানো যায় সে সম্পর্কে বলা হয়েছে। আসুন ICICI ব্যাংকের এই টিপসগুলি জেনে নিই…

১. ব্যাংকের তরফে জানানো হয়েছে, সংক্রমণের সম্ভাবনা কমাতে যতটা সম্ভব নগদ টাকার ব্যবহার এড়িয়ে চলুন। ব্যাংকের যাবতীয় কাজের জন্য ইন্টারনেট ব্যাংকিং ব্যবহার করুন। আপনার নিজের তথা পরিবারের সুরক্ষার্থে যতটা সম্ভব বাড়ির বাইরে যাওয়া এড়িয়ে চলুন।

২. আপনার এবং আপনার পরিবারের জন্য পর্যাপ্ত স্বাস্থ্য বীমা কভার আছে কি না তা চেক করে নিন। প্রয়োজন হলে টপ-আপ লোন স্কিম গ্রহণ করুন।

৩. আপনার বীমা পলিসির বিশদ এবং আপনার বীমা হেল্পলাইন নম্বরগুলি হাতের সামনে রাখুন এবং সেগুলির যাবতীয় তথ্য আপনার পরিবারের সদস্যদের আগেভাগেই জানিয়ে রাখুন।

৪. আপনার সমস্ত সম্পত্তির নমিনি ডিটেলস যথাযথভাবে আপডেট করা আছে কি না তা চেক করুন। আপনার সমস্ত বিনিয়োগ (investment) সম্পর্কে আপনার স্ত্রী / মনোনীত ব্যক্তি (nominee) যথাযথভাবে জানেন কি না সে বিষয়ে নিশ্চিত হয়ে নিন।

৫. ছয় মাসের জন্য যথেষ্ট এমন একটি এমার্জেন্সি ফান্ড প্রস্তুত রাখুন। আপনার যদি টাকার খুব জরুরী দরকার হয়, তবে আপনি এফডি বা আপনার স্যালারি অ্যাকাউন্ট থেকে করা ওভারড্রাফ্ট, শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ড থেকে নেওয়া ঋণ, ব্যক্তিগত ঋণ-এর মতো অপশনগুলি ব্যবহার করতে পারেন।

৬. জরুরী সময়ে আপনার পরিবারের সদস্যদের ব্যবহারের জন্য একটি অ্যাড-অন ডেবিট কার্ড রেখে দিন।

৭. আপনার সমস্ত অ্যাকাউন্টগুলি লিংক করে নিন, যাতে প্রয়োজনে যে-কোনো অ্যাকাউন্ট খুব সহজেই ব্যবহার করতে পারেন।

৮. এই মহামারী পরিস্থিতির সুযোগ নিয়ে স্ক্যামস্টাররা সাধারণ মানুষকে প্রতারিত করার যথাসম্ভব চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। তাই এই ব্যাপারে সতর্ক থাকুন। কল/ ইমেল/ অজানা লিঙ্ক/গুগল ডক্সে আপনার ব্যক্তিগত/ব্যাংকিং তথ্য শেয়ার করবেন না, এমনকি তারা যদি আপনার ব্যাংক/RBI আয়কর বিভাগ/টিকাকেন্দ্র থেকে বলছে বলে দাবি করে, তাহলেও নয়।

হোয়াটসঅ্যাপে খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন