চুরি যাওয়া মোবাইল সহজেই খুঁজে পাওয়া যাবে, সরকার চালু করলো এই পরিষেবা

দিল্লি-এনসিআর এ এখন চুরি যাওয়া, হারিয়ে যাওয়া বা ছিনতাই হওয়া মোবাইল ফোন পাওয়া অনেক সহজ হয়ে গেল। কেন্দ্রীয় যোগাযোগ, বৈদ্যুতিন ও তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রী, রবি শঙ্কর প্রসাদ সোমবার লেফটেন্যান্ট গভর্নর, অনিল বৈজালের সাথে একটি নতুন পোর্টাল চালু করেছেন। এই পোর্টালে, দিল্লি-এনসিআরের লোকেরা মোবাইল চুরি বা হারিয়ে গেলে সরাসরি অভিযোগ দায়ের করতে পারবে। এছাড়াও লোকেরা সরকারী ওয়েবসাইটে গিয়ে তাদের নম্বরটি ব্লক করতে পারবে।

ফোন কিনতে এখানে ক্লিক করুন।

৫.৩৬ কোটি মোবাইল ব্যবহারকারীর সুবিধা :

ফোন কিনতে এখানে ক্লিক করুন।

পোর্টালে গিয়ে কোনো ফোনকে ব্লক করার পর সেই ফোন দেশের কোনও টেলিকম সার্কেলে বা কোনও টেলিকম সংস্থার নেটওয়ার্কে কাজ করবে না। সরকারের এই পদক্ষেপটি মোবাইল চুরির ঘটনা ব্যাপকভাবে কমাবে। রিপোর্ট অনুযায়ী এরফলে ৫.৩৬ কোটি মোবাইল ব্যবহারকারী এই সরকারী পরিষেবার দ্বারা উপকৃত হবেন। প্রসঙ্গত এই পরিষেবা সর্বপ্রথম মুম্বাই এ চালু করা হয়েছিল। একে একে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে এই পরিষেবা চালু হয়ে যাবে বলে মনে করা হচ্ছে।

পোর্টালটি লঞ্চ এর সময় রবিশঙ্কর প্রসাদ বলেছেন যে, এখন মোবাইল হারানো বা চুরি হয়ে গেলে দিল্লি এনসিআর এর লোকেরা https://www.ceir.gov.in সাইটে গিয়ে অভিযোগ দায়ের করতে পারেন। তবে তাদের কে পুলিশেও অভিযোগ দায়ের করতে হবে। টেলিকম সেক্রেটারি আনশু প্রকাশ জানিয়েছেন, এই পোর্টালের মাধ্যমে চুরি হওয়া মোবাইল যদি দেশের কোনও কোণে ব্যবহার করা হয়, তবে এর অবস্থানটি জানা যাবে এবং এটিকে ট্র্যাকও করা যেতে পারে। যার মাধ্যমে পুলিশ সহজেই সেই মোবাইলটির সন্ধান পাবে।

কিভাবে কাজ করে CEIR?

টেলিযোগাযোগ বিভাগের নতুন এই পোর্টালে সমস্ত ফোনের তথ্য উপলব্ধ আছে। এখানে ফোনগুলোকে হোয়াইট, গ্রে ও ব্ল্যাকলিস্ট করা হয়েছে। এই লিস্টের হোয়াইট IMEI নাম্বারের ফোনগুলোকে আপনি ব্যবহার করতে পারেন। গ্রে লিস্টের ডিভাইসগুলোকে মনিটর করা যাবে। আবার ব্ল্যাকলিস্টের IMEI নাম্বারের ডিভাইসগুলো ব্যবহার করা যাবেনা। ব্ল্যাকলিস্টের ডিভাইসগুলো মোবাইল নেটওয়ার্কে কানেক্ট হবেনা।

মোবাইল ফোন হারিয়ে বা চুরি হয়ে গেলে, ব্যবহারকারীকে একটি এফআইআর করতে হবে। এর জন্য DoT একটি হেল্পলাইন নাম্বার ১৪৪২২ চালু করেছে । পুলিশের অভিযোগের পরে ডিপার্টমেন্ট ডিভাইসটিকে ব্ল্যাকলিস্ট করবে।

আমাদেরকে ফলো করুন ইনস্টাগ্রামে