Tuesday, November 19, 2019

অপরাধীদের ধরতে বিশ্বের বৃহত্তম ফেসিয়াল রিকগনিশন সিস্টেম তৈরী করছে ভারত

দেশে বেড়ে চলা অপরাধমূলক কাজে লাগাম টানতে ভারত সরকার বিশ্বের বৃহত্তম ফেসিয়াল রিকগনিশন সিস্টেম তৈরি করছে। সমস্ত রাজ্যের পুলিশ এই কেন্দ্রিয়ায়িত ডাটাবেস অ্যাক্সেস করতে পারবে। এতে CCTV ক্যামেরার নেটওয়ার্কে পাওয়া ছবি, অপরাধী রেকর্ডের ডাটাবেসের সাথে মিলিয়ে দেখা হবে । প্রসঙ্গত অন্ধ্র প্রদেশ এবং পাঞ্জাব সহ অনেক রাজ্য অপরাধ মোকাবিলায় ২০১৮ সাল থেকে ফেসিয়াল রিকগনিশন টেকনোলজি ব্যবহার করে আসছে।

ছবি গুলি অপরাধীদের সনাক্ত করতে ব্যবহৃত হবে:

সিএনএন-এ প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন অনুসারে, ন্যাশনাল ক্রিমিনাল রেকর্ডস ব্যুরো এই প্রস্তাবিত নেটওয়ার্ক সম্পর্কে ১৭২ পৃষ্ঠার নথি প্রকাশ করেছে। প্রস্তাবিত নেটওয়ার্কটিতে অপরাধীর মগ শটস (ফেসিয়াল ফটো), পাসপোর্টের ছবি এবং শিশু উন্নয়ন মন্ত্রকের মতো সংস্থা থেকে সংগৃহীত ছবি অন্তর্ভুক্ত করা হবে। এই ছবিগুলি দ্বারা পরবর্তীতে অপরাধীদের সনাক্ত করা সহজ হবে।

ফটো ম্যাচ করলেই সতর্ক করা হবে :

এই সিস্টেম ব্ল্যাকলিস্টেড অপরাধীকে সনাক্ত করার জন্য ডেভেলপ করা হয়েছে। এই সিস্টেমের চেহারার সাথে CCTV ক্যামেরায় ধরা পড়া চেহারা মিলে গেলেই তৎক্ষণাৎ সতর্ক করা হবে। ১৭২ পৃষ্ঠার নথিতে বলা হয়েছে যে, এই নতুন সিস্টেম অপরাধ সম্পর্কিত মামলাগুলি সমাধানে এবং অপরাধের ধরণ বুঝতে খুব গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে। এছাড়াও, সুরক্ষা বাহিনীর মোবাইল ডিভাইসগুলিতেও এই সিস্টেম উপলব্ধ করা হবে, যাতে তারা যেকোনো ক্ষেত্রে কোনও মুখের ছবি দ্রুত ক্যাপচার করে ওই ডাটাবেসে সার্চ করতে পারে।

সীমিত সংখ্যক সিসিটিভি ক্যামেরা একটি বড় বাধা হতে পারে :


প্রাইসওয়াটারহাউসকুপার্স ইন্ডিয়ার সাইবার সিকিউরিটির প্রধান, শিবরাম কৃষ্ণণ বলেছেন যে, প্রজেক্টে আগ্রহী সংস্থাগুলিগুলির মধ্যে রয়েছে আইবিএম, এইচপি এবং এসিএন। রিপোর্টে বলা হয়েছে, সরকার সংস্থাগুলির সাথে চুক্তি স্বাক্ষরের ৮ মাসের মধ্যে প্রজেক্টটি শেষ করতে চায়। তবে সিসিটিভি ক্যামেরার সীমিত সংখ্য এই প্রজেক্টে একটি বড় বাধা হতে পারে।

কারণ নয়াদিল্লিতে প্রতি এক হাজার লোককে পর্যবেক্ষণ করার জন্য মাত্র ১০ টি সিসিটিভি ক্যামেরা রয়েছে। সেই জায়গায় সাংহাই এবং লন্ডনে একই সংখ্যক ব্যক্তিকে পর্যবেক্ষণ করতে যথাক্রমে ১১৩ এবং ৬৮ টি ক্যামেরা রয়েছে। এছাড়াও সিসিটিভি ক্যামেরাগুলির মান উন্নয়নেও মনোযোগ দিতে হবে।

- Advertisment -