পাসপোর্ট তৈরী করতে কত টাকা ও কি কি ডকুমেন্ট প্রয়োজন জেনে নিন

indian-passport-documents-fees-and-charge-details

দেশের বাইরে বেড়াতে যান কিংবা কাজের সূত্রে যান, নির্দ্বিধায় ঘুরতে সাথে পাসপোর্ট থাকা খুবই জরুরী। পাসপোর্ট এক ধরনের পরিচয়পত্র যা আন্তর্জাতিক ভ্রমণের সময় ব্যক্তির জাতীয়তা ও পরিচয় প্রত্যয়িত করে। আমাদের দেশে পাসপোর্টের আবেদন প্রক্রিয়া খুবই সহজ এবং ঝামেলা-মুক্ত। এর জন্য আপনাকে কেবল অনলাইন আবেদনের মাধ্যমে অ্যাপয়েন্টমেন্ট বুক করতে হবে এবং প্রয়োজনীয় সমস্ত নথিসমেত নিকটস্থ পাসপোর্ট অফিসে যেতে হবে। তবে পাসপোর্ট পেতে হলে আবেদনকারীর বয়স অবশ্যই ১৮ বছর বা তারও বেশি হতে হবে।

পাসপোর্টের আবেদনের জন্য কী কী নথি দরকার?

আপনি যদি নতুন পাসপোর্টের জন্য আবেদন করতে চান কিংবা পাসপোর্ট রি-ইস্যু করাতে চান তবে, ঠিকানার প্রমাণ হিসাবে আধার কার্ড, বিদ্যুৎ বিল, গ্যাস কানেকশনের প্রুফ, টেলিফোনের (ল্যান্ডলাইন/পোস্টপেইড মোবাইল) বিল, জলের বিল ইত্যাদি ব্যবহার করতে পারেন। এইসব নথি ছাড়াও সক্রিয় ব্যাংক অ্যাকাউন্টের পাসবইয়ের কপি এবং ছবি ব্যবহার করতে পারেন। এছাড়া আপনি বিবাহিত হলে এবং আপনার জীবনসঙ্গীর পাসপোর্ট থাকলে সেটির কপিও ব্যবহার করতে পারেন।

পাসপোর্টের আবেদনের জন্য জন্ম তারিখের প্রমাণ প্রয়োজন হয়। এক্ষেত্রে আবেদনকারী – জন্ম সার্টিফিকেট (পৌরসভা বা জন্ম-মৃত্যু নিবন্ধক কর্তৃক প্রদত্ত), স্কুল কর্তৃক প্রদত্ত ট্রান্সফার/ম্যাট্রিক/স্কুল লিভিং সার্টিফিকেট, প্যান কার্ড, আধার কার্ড/ই-আধার, ড্রাইভিং লাইসেন্স, ভোটার আইডি কার্ড ইত্যাদির যেকোনো একটি তথ্য ব্যবহার করতে পারেন। তাছাড়া আবেদনকারীর নামে কোনো লাইফ ইন্স্যুরেন্স পলিসি থাকলে সেটির ডকুমেন্টও জন্ম প্রমাণ হিসেবে ব্যবহার করা যাবে।

ভারতে পাসপোর্ট বানাতে খরচ কত

ভারত সরকারের বিদেশমন্ত্রক ভারতীয় নাগরিকদের পাসপোর্টের অনুমোদন দেয়। আগেই বলে রাখি, পাসপোর্টের আবেদনের জন্য যে নির্দিষ্ট পরিমাণ ফি নেওয়া হয়, যা ফেরতযোগ্য নয়। ৩৬ পৃষ্ঠার নতুন পাসপোর্ট পেতে বা পুরোনো পাসপোর্ট রিনিউ-এর আবেদন করতে খরচ পড়বে ১,৫০০ টাকা। এই পাসপোর্টের মেয়াদ ১০ বছর। এই পাসপোর্টটি হারিয়ে গেলে বা চুরি হয়ে গেলে কিংবা কোনো ভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হলে ৩,০০০ টাকা অ্যাপ্লিকেশন ফি দিতে হবে।

আবার ১০ বছর মেয়াদী ৬০ পৃষ্ঠার পাসপোর্টের আবেদনের জন্য ২,০০০ টাকা লাগবে। ৬০ পৃষ্ঠার পাসপোর্টটি ক্ষতিগ্রস্ত হলে, হারিয়ে বা চুরি হয়ে গেলে ৩,৫০০ টাকা ব্যয় করতে হবে। ১৮ বছরের কম বয়সী অর্থাৎ বাচ্চাদের পাসপোর্টের জন্য আবেদন করতে খরচ পড়বে ১,০০০ টাকা। ৩৬ পৃষ্ঠার এই পাসপোর্টের মেয়াদ ৫ বছর।

পাসপোর্ট বানানোর সম্পূর্ন খরচ জানতে বা ফি স্ট্রাকচার দেখতে https://portal1.passportindia.gov.in/AppOnlineProject/onlineHtml/feeDocument.html ওয়েবসাইটটি চেক করুন।

পাসপোর্টের আবেদন ব্যর্থ হলে কী করবেন?

যদি আপনার আবেদন বাতিল হয় তবে এমনটা হওয়ার কারণ অবশ্যই জানার চেষ্টা করবেন। আবেদনের সময় ভুল তথ্য বা অসম্পূর্ণ নথি জমা দেওয়ার কারণে আবেদন বাতিল হলে ত্রুটিটি মার্ক করে ৩দিন পরে পাসপোর্ট ভেরিফিকেশনের জন্য পুনরায় আবেদন করুন।