১৩ ডিসেম্বর ভারতে আসছে Infinix Note 11 ও Infinix Note 11s, পাওয়া যাবে Flipkart থেকে

Infinix Note 11 লঞ্চ হবে মিডিয়াটেক জি৮৮ প্রসেসরের সাথে। আর, Infinix Note 11S স্মার্টফোনে থাকবে মিডিয়াটেক জি৯৬ প্রসেসর

infinix-note-11-11s-india-launch-date-set-december-13-specifications-flipkart

গত সপ্তাহে Infinix India-র সিইও অনীশ কাপুর (Anish Kapoor) এর একটি পোস্ট আভাস দিয়েছিল যে, শীঘ্রই Infinix Note 11 লাইনআপের দুটি মডেল – Infinix Note 11 এবং Infinix Note 11s আত্মপ্রকাশ করবে ভারতে। অবশেষে আজ সংস্থার তরফে ফোনগুলির লঞ্চের তারিখ নিশ্চিত করা হয়েছে। আগামী ১৩ ডিসেম্বর ভারতে আনুষ্ঠানিক ভাবে লঞ্চ ফোন দুটি। লঞ্চ পরবর্তী সময়ে এগুলিকে ই-কমার্স সাইট Flipkart এর মাধ্যমে কেনা যাবে বলে নিশ্চিত করা হয়েছে। উল্লেখ্য, ফোনগুলি আগেই আফ্রিকা সহ বিভিন্ন দেশে লঞ্চ হয়েছে। ফিচারের কথা বললে, আসন্ন স্মার্টফোন দুটি ১২০ হার্টজ রিফ্রেশ রেট এবং AMOLED ডিসপ্লে সহ আসবে। দুটি মডেলেরই পাওয়া যাবে ট্রিপল রিয়ার ক্যামেরা সেটআপ ও ৫,০০০ এমএএইচ ব্যাটারি। তবে চিপসেটের ক্ষেত্রে ফোন দুটির কনফিগারেশন হবে ভিন্ন। যেমন, infinix Note 11 লঞ্চ হবে মিডিয়াটেক জি৮৮ প্রসেসরের সাথে। আর, Infinix Note 11S স্মার্টফোনে থাকবে মিডিয়াটেক জি৯৬ প্রসেসর। আসুন আপকামিং Infinix Note 11 ও Infinix Note 11s স্মার্টফোনের সম্পূর্ণ স্পেসিফিকেশন জেনে নেওয়া যাক।

ইনফিনিক্স নোট ১১এস স্পেসিফিকেশন (Infinix Note 11s Specifications)

ইনফিনিক্স নোট ১১এস ফোনটি অ্যান্ড্রয়েড ১১ ভিত্তিক এক্সওএস ১০ (XOS 10) কাস্টম স্কিন চালিত। এতে, ১২০ হার্টজ রিফ্রেশ রেটের একটি ৬.৯৫ ইঞ্চির ফুল এইচডি প্লাস (১,০৮০x২,৪৬০ পিক্সেল) IPS LCD ডিসপ্লে দেওয়া হয়েছে। এই ডিসপ্লে, ৪৮০ নিট পিক ব্রাইটনেস, ১৮০ হার্টজ টাচ স্যাম্পলিং রেট এবং ৯১% স্ক্রিন-টু-বডি রেশিও সাপোর্ট করে। উন্নত পারফরম্যান্স অফার করার জন্য ফোনে মিডিয়াটেক হেলিও জি৯৬ প্রসেসর ব্যবহার করা হয়েছে। আর স্টোরেজ হিসাবে থাকছে, ৮ জিবি পর্যন্ত র‌্যাম এবং ১২৮ জিবি পর্যন্ত রম। যদিও, মাইক্রোএসডি কার্ডের মাধ্যমে এর স্টোরেজ ২ টেরাবাইট পর্যন্ত বাড়ানো যাবে।

ক্যামেরা ফ্রন্টের কথা বললে, হ্যান্ডসেটের পেছনে রয়েছে ট্রিপল ক্যামেরা সেটআপ। এগুলি হল, ৫০ মেগাপিক্সেল প্রাইমারি সেন্সর, ২ মেগাপিক্সেল ডেপ্থ সেন্সর এবং ২ মেগাপিক্সেল ম্যাক্রো স্ন্যাপার। ক্যামেরা মডিউলের মধ্যে আছে কোয়াড LED ফ্ল্যাশ। একই ভাবে, সেলফি তোলার জন্য এতে ডুয়েল LED ফ্ল্যাশ লাইট সহ ১৬ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট-ফেসিং সেন্সর উপস্থিত। উন্নত মানের সাউন্ড অফার করার জন্য ফোনটি ডিটিএস সারাউন্ড সাউন্ড টেকনোলজির সাথে এসেছে। আবার, সিকিউরিটি জন্য থাকছে সাইড-মাউন্টেড ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর। Infinix Note 11S স্মার্টফোনে আছে ৫,০০০ এমএএইচ ক্যাপাসিটির ব্যাটারি, যার সাথে ৩৩ ওয়াট সুপার চার্জ ফাস্ট চার্জিং সাপোর্ট করে। জানা যাচ্ছে উক্ত মডেলটি তিনটি কালার অপশনের সাথে ভারতে আসবে।

ইনফিনিক্স নোট ১১ স্পেসিফিকেশন (Infinix Note 11 Specifications)

ইনফিনিক্স নোট ১১ স্মার্টফোনে একটি ৬.৭ ইঞ্চির অ্যামোলেড ডিসপ্লে প্যানেল দেওয়া হয়েছে। ফাস্ট পারফরম্যান্স ও মাল্টিটাস্কিংয়ের সুবিধার্থে এটি মিডিয়াটেক হেলিও জি৮৮ প্রসেসর সহ এসেছে। আবার, স্টোরেজ হিসাবে ফোনে থাকছে ৪ জিবি র‌্যাম এবং ৬৪ জিবি মেমরি। ক্যামেরা ফ্রন্টের প্রসঙ্গে বললে, ডিভাইসের পেছনে ট্রিপল ক্যামেরা সেটআপ দেখা যাবে। যার প্রাইমারি সেন্সর হবে ৫০ মেগাপিক্সেলের। এছাড়া, ২ মেগাপিক্সেল ডেপ্থ সেন্সর এবং ২ মেগাপিক্সেল এআই (AI) সেন্সর উপস্থিত ক্যামেরা মডিউলে। আবার, সেলফি তোলার জন্য এতে ১৬ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট-ফেসিং ক্যামেরা পাওয়া যাবে, বলে নিশ্চিত করা হয়েছে। পাওয়ার ব্যাকআপের জন্য Infinix Note 11 স্মার্টফোনে, ৫,০০০ এমএএইচ ক্যাপাসিটির ব্যাটারি আছে, যার সাথে ৩৩ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং সাপোর্ট করবে।

শুভেচ্ছা বহুমুখী প্রতিভার অধিকারী। তিনি একদিকে যেমন ফটোগ্রাফার, তেমনি পাশাপাশি লেখিকাও। এছাড়াও তার শখের মধ্যে আছে বই পড়া, গান গাওয়া, ছবি আঁকা এবং ওয়েব ডিজাইন। শুভেচ্ছা আমাদের টেকগাপ পরিবারের একজন নতুন সদস্য।