৪ দিনের ব্যাটারি ব্যাকআপ সহ লঞ্চ হল Infinix Note 7 ও Note 7 Lite

infinix note 7

হংকংয়ের স্মার্টফোন কোম্পানি ইনফিনিক্স আরও দুটি ফোন Infinix Note 7 এবং Note 7 Lite লঞ্চ করলো। এরমধ্যে ইনফিনিক্স নোট ৭ ফোনে পাবেন গোলাকার শেপে কোয়াড রিয়ার ক্যামেরা ও পাঞ্চ হোল ডিসপ্লে। আবার ইনফিনিক্স নোট ৭ লাইট আয়তকার শেপে কোয়াড রিয়ার ক্যামেরা ও পাঞ্চ হোল ডিসপ্লের সাথে এসেছে। দুটি ফোনেই বড় স্ক্রিন, ৪৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা ও শক্তিশালী ব্যাটারি আছে। তবে কোম্পানির ওয়েবসাইটে দুটি ফোনের দামের বিষয়ে কিছু বলা হয়নি।

Infinix Note 7 স্পেসিফিকেশন :

ইনফিনিক্স নোট ৭ ফোনে ৬.৯৫ ইঞ্চি এইচডি প্লাস আইপিএস এলসিডি ইনফিনিটি O প্যানেল দেওয়া হয়েছে। যার রেজুলেশন ৭২০ x ১৬৪০ পিক্সেল এবং আসপেক্ট রেশিও ২০.৫:৯। ডিসপ্লের বাম দিকের কোনায় ১৬ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরা রয়েছে। আবার পিছনে আছে এফ/১.৭৯ অ্যাপারচারের সহ ৪৮ মেগাপিক্সেল প্রাইমারি ক্যামেরা। এছাড়াও অন্য তিনটি ক্যামেরা হল ২ মেগাপিক্সেল ম্যাক্রো সেন্সর, ২ ডেপ্থ সেন্সর ও লো লাইট ভিডিও ক্যামেরা।

ইনফিনিক্স নোট ৭ ফোনে অক্টা কোর মিডিয়াটেক হেলিও জি ৭০ প্রসেসর, ৬ জিবি র‌্যাম এবং ১২৮ জিবি স্টোরেজ রয়েছে। মাইক্রোএসডি কার্ডের মাধ্যমে এর স্টোরেজ বাড়ানো যাবে। এই ফোনে পাবেন ১৮ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং সহ ৫,০০০ এমএএইচ ব্যাটারি। সিকিউরিটির জন্য এখানে সাইড মাউন্টেড ফিঙ্গারপ্রিন্ট স্ক্যানার আছে। ফোনটি অ্যান্ড্রয়েড ১০ ভিত্তিক XOS ৬.০ অপারেটিং সিস্টেমে চলে।

Infinix Note 7 Lite স্পেসিফিকেশন :

ইনফিনিক্স নোট ৭ লাইট ফোনে ৬.৬ ইঞ্চি এইচডি প্লাস আইপিএস এলসিডি ইনফিনিটি O ডিসপ্লে দেওয়া হয়েছে। এর রেজুলেশন ৭২০ x ১৬৪০ পিক্সেল এবং আসপেক্ট রেশিও ২০:৯। পাঞ্চ হোল ডিজাইনের সাথে এখানে ৮ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরা রয়েছে। আবার ইনফিনিক্স নোট ৭ এর মত এখানেও পিছনে আছে এফ/১.৭৯ অ্যাপারচারের সহ ৪৮ মেগাপিক্সেল প্রাইমারি ক্যামেরা। এছাড়াও অন্য তিনটি ক্যামেরা হল ২ মেগাপিক্সেল ম্যাক্রো সেন্সর, ২ ডেপ্থ সেন্সর ও লো লাইট ভিডিও ক্যামেরা।

Note 7 Lite এর অন্যান্য ফিচারের কথা বললে এখানে মিডিয়াটেক হেলিও পি ২২ প্রসেসর, ৪ জিবি র‌্যাম এবং ১২৮ জিবি স্টোরেজ রয়েছে। মাইক্রোএসডি কার্ডের মাধ্যমে এর স্টোরেজ বাড়ানো যাবে। সফটওয়্যারের কথা বললে এখানে অ্যান্ড্রয়েড ১০ ভিত্তিক XOS ৬.০ অপারেটিং সিস্টেম দেওয়া হয়েছে। এই ফোনে পাবেন ৫,০০০ এমএএইচ ব্যাটারি।