ছবিতে ক্লিক করলেই অ্যাকাউন্ট সহ ফোন হচ্ছে হ্যাক, এক্ষুনি আপডেট করুন Instagram অ্যাপ

instagram-fixes-bug-that-allow-hackers-to-access-users-phone

বর্তমানে, সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং প্ল্যাটফর্মগুলিতে মজে আছে আবালবৃদ্ধবনিতা। বলা ভালো, Facebook, WhatsApp, Instagram কিংবা Twitter-এর মত মাধ্যমগুলি একাংশ ইন্টারনেট ইউজারের জিয়নকাঠি হয়ে উঠেছে। কিন্তু অনেক সময়েই, এই সোশ্যাল মিডিয়া মাধ্যমগুলি থেকে বিভিন্ন বিপত্তির মুখে পড়েন ইউজাররা।

যেমন, দিন কয়েক আগে জানা গিয়েছিল, ইনস্টাগ্রাম ব্যবহারকারীরা একটি জটিল বাগ-এর মুখোমুখি হয়েছেন। এই বাগটির সাহায্যে হ্যাকাররা, ভিক্টিমদের স্মার্টফোনকে গুপ্তচরতার কাজে লাগাতে পারে। শুধু তাই নয়, এই বাগকে কাজে লাগিয়ে কেবল একটি ম্যালিশিয়াস ইমেজ পাঠিয়েও হ্যাকাররা যে কারো ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্ট দখলে নিতে পারে। তবে বড়সড় কোনো কেলেঙ্কারি ঘটার আগেই মাঠে নামে ফেসবুক।

সূত্রের খবর, Facebook, তার মালিকানাধীন পরিষেবাটি থেকে তরিঘড়ি ওই বাগটিকে রিমুভ করেছে। অর্থাৎ, Instagram ইউজাররা এখন স্বস্তির নিঃশ্বাস নিতে পারেন।

চেক পয়েন্ট গবেষকদের রিপোর্ট অনুসারে, কোনো ইউজার যদি তাদের ইনস্টাগ্রাম অ্যাপ থেকে হ্যাকারদের পাঠানো ম্যালিশিয়াস ছবি দেখার চেষ্টা করেন, তাহলে উল্লিখিত বাগটির সাহায্যে হ্যাকাররা ইউজারের অ্যাকাউন্টে সম্পূর্ণ অ্যাক্সেস করতে পারে। অ্যাকাউন্টে সম্পূর্ণ অ্যাক্সেস পাওয়া মানে, হ্যাকাররা তাদের ইচ্ছানুসারে ভিক্টিমের অ্যাকাউন্টে ছবি পোস্ট বা ডিলিট করতে পারবে। এমনকি তারা চাইলে ওই ইউজারের কন্ট্যাক্ট, ক্যামেরা এবং লোকেশন ডেটাও অ্যাক্সেস করতে পারবে।

গবেষকদের মতে, এই ধরণের ভালন্যারেবল বাগ, রিমোট কোড এক্সিকিউশন (RCE) নামে পরিচিত। এটি হ্যাকারদের, ম্যালওয়ারে চালিত কোনো কম্পিউটার বা সার্ভারের নিয়ন্ত্রণ নিতে সক্ষম করে। মনে করা হচ্ছে, বিশ্বের অন্যতম জনপ্রিয় ছবি এবং ভিডিও শেয়ারিং প্ল্যাটফর্মটিকে টার্গেট করে, ইউজারদের ফোনগুলির সাহায্যে চরবৃত্তি করার চেষ্টা করছিল কিছু সাইবার ক্রিমিনাল।

যেহেতু, ইনস্টাগ্রাম অ্যাপটির লক্ষ লক্ষ ইউজার রয়েছে এবং প্রতিদিন এই প্ল্যাটফর্মে প্রায় ১০০ মিলিয়ন ফটো আপলোড হয়, তাই এই এটির সিকিউরিটি সিস্টেমকে দূর্বল করে নিজেদের কার্যসিদ্ধি করতে চেয়েছিল কিছু দুরাভিসন্ধী। তবে যাইহোক, স্বস্তির বিষয় এটাই যে অ্যাপের একটি নতুন আপডেট দিয়ে এই সমস্যার নিষ্পত্তি করেছে সংস্থাটি। আপাতত, আশঙ্কার কোনো কারণ নেই, এটাই আশা করা যেতে পারে।