করোনার জের, ভারতে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল প্রায় ৭৯ কোটি

Internet-subscribers-india-reach-795-million-trai new report

বিশ্বব্যাপী অতিমারি পরিস্থিতি আমাদের জীবনের গতিপ্রবাহকে পুরোপুরি বদলে দিয়েছে। সমস্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ, তাই বাড়িতে বসেই চলেছে অনলাইন ক্লাস। পরীক্ষাও হয়েছে একই নিয়মে। অন্যদিকে সরাসরি অফিসে গিয়ে নয়, ‘ওয়ার্ক ফ্রম হোমের’ দৌলতে বড়বাবুর সঙ্গে দেখা হচ্ছে কেবলমাত্র গুগল মিট (Google Meet) বা জুমের (Zoom) মতো অ্যাপ্লিকেশনে! তেমনই উচ্চশিক্ষার পরিসরেও বড় বড় সেমিনারের বদলে অসংখ্য ওয়েবিনারের আয়োজন করা হচ্ছে, যেখানে একসাথে অনেক শ্রোতা উপস্থিত থাকতে পারছেন। আবার করোনার ঘরবন্দী অবস্থার একঘেয়েমি দূর করার জন্য বিভিন্ন ওটিটি (OTT) প্ল্যাটফর্মের চাহিদাও বৃদ্ধি পেয়েছে। আর উপরের সমস্ত পরিবর্তনের জন্য সার্বিকভাবে বেড়েছে আমাদের ইন্টারনেট নির্ভরতা এবং ইন্টারনেটের ব্যবহার। সম্প্রতি ভারতে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা ৭৯৫.১৮ মিলিয়নের (৭৯.৫১৮ কোটি) বিরাট অঙ্ক স্পর্শ করেছে। ভারতের টেলিকম রেগুলেটরি অথরিটি বা TRAI সদ্য এই পরিসংখ্যান তুলে ধরেছে যা দেশের টেলিকম ব্যবসার ক্ষেত্রে অত্যন্ত শুভ ইঙ্গিত।

ট্রাইয়ের (TRAI) পেশ করা তথ্য থেকে এটা স্পষ্ট যে, ভারতে ইন্টারনেটের ব্যবহার উত্তরোত্তর বেড়েই চলেছে। ২০২০-‘২১ অর্থবর্ষের ডিসেম্বর প্রান্তিকের ফলাফলের উপরে নির্ভর করেই ট্রাই (TRAI) তাদের পরিসংখ্যান তৈরী করেছে। এক্ষেত্রে দেখা গিয়েছে ডিসেম্বর প্রান্তিকে ভারতে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা পূর্ববর্তী প্রান্তিকের চেয়ে ২.৪১ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। একই অর্থবর্ষের সেপ্টেম্বর প্রান্তিকে ভারতে মোট ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা ছিল ৭৭৬.৪৫ মিলিয়ন, যা ডিসেম্বরের চেয়ে (৭৯৫.১৮ মিলিয়ন) অনেকটাই কম।

আমাদের দেশে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীরা মূলত দুই ভাগে বিভক্ত। এদের মধ্যে একদল ওয়্যারলেস (Wireless) ও অপরপক্ষ ওয়্যার্ড (Wired) ইন্টারনেট পরিষেবার ভক্ত। তবে ওয়্যারলেস উপভোক্তাদের চেয়ে দেশের ওয়্যার্ড ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা অনেকটাই কম। এই মুহূর্তে ভারতে প্রায় ৭৬৯.৬৪ মিলিয়ন মানুষ ওয়্যারলেস ইন্টারনেট ব্যবহার করছেন।

অন্যদিকে ইন্টারনেট উপভোক্তাদের একাংশ ব্রডব্যান্ড কানেকশন ব্যবহার করেন। আপাতত এই ধরনের মানুষের সংখ্যা প্রায় ৭৪৭.৪১ মিলিয়ন। বাকি ৪৭.৭৭ মিলিয়ন মানুষ ন্যারোব্যান্ড কানেকশন ব্যবহার করেন।

২০২০ সালের সেপ্টেম্বর প্রান্তিকে ভারতে ব্রডব্যান্ড ব্যবহারকারীর সংখ্যা ছিল প্রায় ৭২৬.৩২ মিলিয়ন। ডিসেম্বরের শেষে এই সংখ্যা ২.৯০ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়ে ৭৪৭.৪১ মিলিয়নে দাঁড়িয়েছে। এর তুলনায় ন্যারোব্যান্ড উপভোক্তাদের সংখ্যা পূর্বের চেয়ে অনেকটাই হ্রাস পেয়েছে।

এছাড়া ট্রাইয়ের (TRAI) পরিসংখ্যান অনুযায়ী, এই মুহূর্তে দেশে মোবাইল ওয়্যারলেস পরিষেবার আওতাধীন মানুষের সংখ্যাই অধিক। বর্তমানে মোট ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর ৯৬.৭১ শতাংশ মানুষ মোবাইল ওয়্যারলেস পরিষেবা ব্যবহার করে থাকেন। ওয়্যার্ড পরিষেবার অধীনে রয়েছে ৩.২১ শতাংশ ইন্টারনেট ব্যবহারকারী। বাকি ০.০৮ শতাংশ মানুষ ফিক্সড ওয়্যারলেস পরিষেবার আওতাভুক্ত।

সুতরাং ট্রাইয়ের (TRAI) দ্বারা প্রকাশিত তথ্যের দিকে নজর দিলে এটা বলতেই হয় যে বর্তমানে দেশের ইন্টারনেট সার্ভিস প্রোভাইডারগুলির (ISP) ব্যবসা বেশ রমরমা। তাছাড়া করোনার দ্বিতীয় ধাক্কার ফলে আগামীদিনে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা আরো বাড়তে পারে, বিভিন্ন আইএসপিগুলি যার সম্পূর্ণ ফায়দা ওঠাতে এখন থেকেই প্রস্তুত।

হোয়াটসঅ্যাপে খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন