Apple লঞ্চ করলো চারটি নতুন আইফোন – iPhone 12 mini, 12, 12 Pro ও 12 Pro Max

iphone-12-mini-pro-and-max-launched-in-india-price-starting-rs-69900

অবশেষে লঞ্চ হল বহু প্রতীক্ষিত iPhone 12 সিরিজ। Apple গত রাতে একটি ভার্চুয়াল ইভেন্টে তাদের নতুন এই আইফোন সিরিজ লঞ্চ করেছে। এই সিরিজে মোট চারটি ফোন আছে iPhone 12 mini, iPhone 12, iPhone 12 Pro, এবং iPhone 12 Pro Max। প্রসঙ্গত করোনা মহামারীর কারণে সেপ্টেম্বরের পরিবর্তে অক্টোবরে আইফোন সিরিজ লঞ্চ করলো অ্যাপল। নতুন এই আইফোন ১২ সিরিজ 5G কানেক্টিভিটির সাথে এসেছে। এছাড়াও এতে পাবেন অল নিউ সিলিকন চিপসেট এ১৪ বায়োনিক (A14 Bionic), ও লেটেস্ট আইওএস১৪ অপারেটিং সিস্টেম। কোম্পানির তরফে বলা হয়েছে iPhone 12 Mini হল ‘বিশ্বের সবচেয়ে ছোট, হালকা ও সরু 5G স্মার্টফোন।’ আসুন iPhone 12 সিরিজের দাম ও সম্পূর্ণ স্পেসিফিকেশন জেনে নিই।

iPhone 12 সিরিজ এর দাম ও লভ্যতা

প্রথমেই কথা বলি আইফোন ১২ মিনি এর। এটি তিনটি স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্টে পাওয়া যাবে। এর ৬৪ জিবি স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্টের দাম ৬৯,৯০০ টাকা। আবার ১২৮ জিবি ও ২৫৬ জিবি ভ্যারিয়েন্টের দাম যথাক্রমে ৭৪,৯০০ টাকা ও ৮৪,৯০০ টাকা। ফোনটি ব্লু, গ্রীন, ব্ল্যাক, হোয়াইট ও প্রোডাক্ট (রেড) কালারে পাওয়া যাবে।

এদিকে আইফোন ১২ ফোনটির দাম শুরু হয়েছে ৭৯,৯০০ টাকা থেকে। এই দাম ৬৪ জিবি ভ্যারিয়েন্টের। আবার ১২৮ জিবি ও ২৫৬ জিবি স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্টের দাম যথাক্রমে ৮৪,৯০০ টাকা ও ৯৪,৯০০ টাকা। এই ফোনটিও পাঁচটি রঙে উপলব্ধ – ব্ল্যাক, হোয়াইট, ব্লু, প্রোডাক্ট (রেড) ও গ্রীন।

আইফোন ১২ প্রো এর ১২৮ জিবি স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্টের দাম ১,১৯,৯০০ টাকা। ১,২৯,৯০০ ও ১,৪৯,৯০০ টাকা দাম যথাক্রমে ফোনটির ২৫৬ জিবি ও ৫১২ জিবি ভ্যারিয়েন্টের। এই ফোনটি পাওয়া যাবে সিলভার, গোল্ড, প্যাসিফিক ব্লু ও গ্রাফাইট কালারে।

অন্যদিকে আইফোন ১২ প্রো ম্যাক্স এর ১২৮ জিবি স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্টের দাম ১,২৯,৯০০ টাকা। আবার ফোনটির ২৫৬ জিবি ও ৫১২ জিবি স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্টের দাম যথাক্রমে ১,৩৯,৯০০ টাকা, ও ১,৫৯,৯০০ টাকা। এটি গোল্ড, প্যাসিফিক ব্লু, গ্রাফাইট ও সিলভার কালারে এসেছে।

iPhone 12 ও iPhone 12 Pro আগামী ৩০ অক্টোবর থেকে ভারতে পাওয়া যাবে। আবার ১৩ নভেম্বর থেকে উপলব্ধ হবে iPhone 12 Mini এবং iPhone 12 Pro Max। ফোনগুলি Apple Online Store সহ সমস্ত বড় বড় ই-কমার্স সাইট ও অফলাইন রিটেল স্টোর থেকে পাওয়া যাবে।

iPhone 12 mini ও iPhone 12 স্পেসিফিকেশন

আইফোন ১২ মিনি ও আইফোন ১২ যথাক্রমে ৫.৪ ইঞ্চি ও ৬.১ ইঞ্চি সুপার রেটিনা XDR OLED ডিসপ্লে সহ এসেছে। যারসাথে সিরামিক শিল্ড উপলব্ধ। এটি চার গুন উন্নত ড্রপ পারফরম্যান্স দেয়। প্রসঙ্গত গতবছরের আইফোন ১১ ফোনে এলসিডি ডিসপ্লে ছিল। সেদিক থেকে এবারের আইফোন ১২ সিরিজের প্রাথমিক ভ্যারিয়েন্টের ডিসপ্লে অনেক উন্নত। পাশাপাশি এই দুই ফোনে A14 Bionic প্রসেসর ব্যবহার করা হয়েছে, যা গত বছরের A13 Bionic এর থেকে বেশি পাওয়ারফুল। নতুন প্রসেসর ৬০ শতাংশ দ্রুত গ্রাফিক্স রেন্ডার করতে পারে। সাথে গেমিংয়ের অভিজ্ঞতাও বাড়াবে।

iPhone 12 mini ও iPhone 12 ফোনের পিছনে ডুয়েল ক্যামেরা সেটআপ উপলব্ধ। যে দুটি ক্যামেরা হল ১২ মেগাপিক্সেল ওয়াইড এঙ্গেল ও আলট্রা ওয়াইড এঙ্গেল লেন্স। এদের অ্যাপারচার যথাক্রমে এফ/১.৬ ও এফ/২.৪। ফোনের সামনে আছে এফ/২.২ অ্যাপারচার সহ ১২ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরা। এই ক্যামেরাগুলি আরও ভালো লো লাইট ফটোগ্রাফি অফার করবে। আবার সামনে ও পিছনের ক্যামেরায় নাইট মোড সাপোর্ট করবে। এই ক্যামেরা দিয়ে 4K Dolby Vision HDR ভিডিও রেকর্ড করা যাবে।

আইফোন ১২ মিনি ১৫ ঘণ্টা ও আইফোন ১২ ১৭ ঘন্টা ভিডিও প্লেব্যাক টাইম দেয়। আইফোন ১২ সিরিজের সমস্ত ফোনে ১৫ ওয়াট পর্যন্ত MagSafe ওয়্যারলেস চার্জিং ও ৭.৫ ওয়াট পর্যন্ত Qi ওয়্যারলেস চার্জিং সাপোর্ট করে। MagSafe হল কোম্পানির নতুন চার্জিং টেকনোলজি, যেটি আইফোন ১২ সিরিজ ও ভবিষ্যতের আইফোনগুলিতে সাপোর্ট করবে। এদিকে আইফোন ১২ সিরিজের বক্সে এসি এডাপ্টার নেই। তবে এতে পাবেন ইউএসবি সি কেবল।

iPhone 12 Pro, iPhone 12 Pro Max স্পেসিফিকেশন

আইফোন ১২ প্রো ও আইফোন ১২ প্রো ম্যাক্স ফোনে আছে যথাক্রমে ৬.১ ইঞ্চি ও ৬.৭ ইঞ্চি Super Retina XDR OLED ডিসপ্লে। এখানেও প্রটেকশনের জন্য ডিসপ্লের উপরে সিরামিক শিল্ড গ্লাস ব্যবহার করা হয়েছে। এই দুই ফোনও অ্যাপলের নতুন প্রসেসর এ১৪ বায়োনিক সহ এসেছে। যেটি ৪০ শতাংশ উন্নত সিপিইউ পারফরম্যান্স অফার করে। সাথে 4K ভিডিও এডিট করতে দেয়।

ফটোগ্রাফির জন্য iPhone 12 Pro এবং iPhone 12 Pro Max ফোনে ১২ মেগাপিক্সেলের ট্রিপল রিয়ার ক্যামেরা দেওয়া হয়েছে। এই তিনটি ক্যামেরা হল ওয়াইড, আলট্রা ওয়াইড ও টেলিফোটো লেন্স। যাদের অ্যাপারচার যথাক্রমে এফ/১.৬, এফ/২.৪ ও এফ/২.০ (ম্যাক্স ভার্সনে এফ/২.২)। এরসাথে LiDAR স্ক্যানার দেওয়া হয়েছে, যেটি কম আলোয় অটোফোকাস, উন্নত ডেপ্থ ফটোগ্রাফি অফার করে। এই দুই ফোনের সামনেও এফ/২.২ অ্যাপারচার সহ ১২ মেগাপিক্সেল সেলফি ক্যামেরা আছে। আইফোন ১২ প্রো ও ১২ ম্যাক্স এর টেলিফোটো লেন্সে যথাক্রমে পাবেন ৪এক্স ও ৫এক্স অপটিক্যাল জুম। এছাড়াও আইফোন ১২ এর সমস্ত ক্যামেরা ফিচার এই দুই ফোনেও উপলব্ধ।

কোম্পানির তরফে জানানো হয়েছে, iPhone 12 Pro এবং iPhone 12 Pro Max হল প্রথম আইফোন যেটি দীর্ঘক্ষণ ব্যাটারি লাইফ দেবে। দাবি অনুযায়ী, এগুলি ২০ ঘন্টা পর্যন্ত ভিডিও প্লেব্যাক টাইম দেবে। এছাড়াও এই দুই ফোনে আইফোন ১২ মিনি ও আইফোন ১২ এর মত সমস্ত চার্জিং সুবিধা উপলব্ধ।