iPhone 13: সাবধান! এই ভুলের কারণে কাজ করবে না নতুন আইফোনের ফেস আইডি

Apple iPhone 13 সিরিজের স্ক্রিন সারাতে চাইলে ক্ষুদ্র রিপেয়ার প্রতিষ্ঠানগুলিকে সমস্যার সম্মুখীন হতে হচ্ছে, Face ID কাজ করছে না

iphone-13-screen-repair-impossible-outside-apple-service-centre

গত মাসেই বাজারে এসেছে Apple -এর নয়া iPhone 13 সিরিজ। সেক্ষেত্রে দীর্ঘ প্রতীক্ষার অবসান ঘটায় শেষ পর্যন্ত খুশি Apple অনুরাগীরা। তবে স্থানীয় এবং কোম্পানির স্বীকৃতির বাইরে থাকা স্মার্টফোন মেরামতকারীদের জন্য Apple iPhone 13 চরম দুর্ভাবনা বয়ে এনেছে! বিশেষত নবীন প্রজন্মের এই আইফোন সিরিজ সম্পর্কে অ্যাপল যে নীতি গ্রহণ করেছে তা স্বীকৃতিবিহীন মোবাইল সারাইকারীদের পেটে লাথি মারবে বলে একাংশের অভিযোগ।

আসলে সদ্য আগত অ্যাপল আইফোন ১৩ সিরিজের ডিসপ্লে বদলকে কেন্দ্র করেই যত সমস্যা! অ্যাপলের নতুন সিদ্ধান্ত অনুযায়ী এই সিরিজের ফোনের ডিসপ্লে ক্ষতিগ্রস্ত হলে তা মেরামত বা পরিবর্তনের জন্য প্রস্তুতকারক সংস্থার স্বীকৃতিহীন কোনো স্থানীয় দোকান বা মেরামতকারীর শরণাপন্ন হওয়া চলবে না। এক্ষেত্রে সংস্থার নির্দেশের বিরুদ্ধে গেলে ফোনে উপস্থিত অত্যন্ত উপযোগী Face ID ফিচারের মায়া ত্যাগ করতে হবে। অর্থাৎ তখন ফিচারটি নিষ্ক্রিয় হয়ে পড়বে। সুতরাং পছন্দের ফেস আইডি ফিচার সচল রাখতে হলে ব্যবহারকারীকে অবশ্যই সংস্থার নিজস্ব সার্ভিস সেন্টারে হাজির হতেই হবে। এর ফলে অসংখ্য ক্ষুদ্র মেরামতকারী ও প্রকৌশলি যে পেশাগতভাবে ব্যাপক ক্ষতির সম্মুখীন হবেন সেটা বলে দেওয়ার অপেক্ষা রাখেনা।

Apple iPhone 13 সিরিজের‌ ফোনের স্ক্রিন সারাতে হলে কী সমস্যা হবে?

অ্যাপল আইফোন ১৩ সিরিজের স্ক্রিন রিপ্লেসমেন্টের ক্ষেত্রে যে সমস্যা দেখা দিয়েছে, iFixit নিজেদের প্রতিবেদনে তার উল্লেখ করেছে। তাদের রিপোর্ট অনুযায়ী অ্যাপল আইফোন ১৩ সিরিজের ডিসপ্লে একটি মাইক্রোকন্ট্রোলারের দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হয়। তাই ডিসপ্লে সারানোর জন্য এখানে কিছু আধুনিক প্রযুক্তি ও যন্ত্রপাতি দরকার যা মজুত করতে বড় অঙ্কের অর্থ বিনিয়োগ জরুরি। কিন্তু ক্ষুদ্র মেরামতকারী দোকান বা সংস্থার পক্ষে অনেকক্ষেত্রেই সেটা সম্ভব নয়। তাই আইফোন ১৩ ডিভাইসের স্ক্রিন সারাতে চাইলে ক্ষুদ্র রিপেয়ার প্রতিষ্ঠানগুলিকে সমস্যার সম্মুখীন হতে হচ্ছে। সেদিক থেকে তাদের ব্যবসায়িক ক্ষতি স্বীকার করে নেওয়া ছাড়া অন্য কোন উপায় খোলা থাকছে না।

স্মার্টফোন মেরামতির ভাষায় উপরোক্ত মাইক্রোকন্ট্রোলার সিস্টেমটি সিরিয়ালাইজেশন (Serialization) নামে পরিচিত। কোম্পানী স্বীকৃত মেরামত কেন্দ্র ‍ছাড়া এই প্রযুক্তি আয়ত্ত করা কোনো সাধারণ সারাইকারীর পক্ষে প্রায় অসম্ভব। এক্ষেত্রে মাইক্রোকন্ট্রোলারে উপস্থিত সিরিয়াল নম্বর ভেরিফাই করতে ব্যর্থ হলে নতুন আইফোনের ফেস আইডি ফিচার কাজ করবে না। অ্যাপলের নয়া সিদ্ধান্তের ফলে একমাত্র প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত ও সংস্থা স্বীকৃত প্রকৌশলিরা (Technician) উপযুক্ত সফটওয়্যার (Apple Services Toolkit 2) ব্যবহার করে সিরিয়াল নম্বর ভেরিফাই করতে পারবেন। এজন্য তাদের অ্যাপল ক্লাউড সার্ভারে রিপেয়ার লগ করতে হবে বলে iFixit -এর রিপোর্টে উল্লেখ রয়েছে।

সুতরাং Apple -এর নতুন নীতির ফলে স্থানীয় স্মার্টফোন রিপেয়ারিং প্রতিষ্ঠানগুলির কি দশা হতে চলেছে সেটা স্পষ্ট। বিশেষ করে মার্কিন মুলুকের সংস্থাগুলি এজন্য চরম বিপদে পড়বে। কারণ, সেদেশের স্মার্টফোন বাজারের সিংহভাগ এখন Apple -এর দখলে। আর একারণেই সেখানকার মেরামতকারীদের মধ্যে সংস্থার বিরুদ্ধে ক্ষোভ দিন দিন তীব্র হচ্ছে।

One of the newest members of the Techgup Family. Soumo grew his liking for gadgets almost a decade back while searching for his first smartphone, and started writing about tech recently in 2020