iPhone 13 সিরিজে থাকবে হাই রিফ্রেশরেট যুক্ত OLED ডিসপ্লে

iphone-13-series-may-come-with-high-refresh-rate-oled-display

গত অক্টোবরে লঞ্চ হয়েছে নতুন iPhone 12 সিরিজ, যাতে বেশ কিছু নতুন ফিচার এবং প্রযুক্তি সরবরাহ করেছে নির্মাতা সংস্থা Apple। কিন্তু বর্তমান সময়ে সবার চাই প্রতিনিয়ত নতুন কিছু, তাই এখন প্রিমিয়াম ডিভাইস প্রেমীদের চোখ থাকছে পরবর্তী আইফোন সিরিজ অর্থাৎ iPhone 13 ডিভাইসের দিকে। জল্পনা শুরু হয়েছে যে চলতি বছরের সেপ্টেম্বরে নতুন আইফোন ১২ সিরিজ বাজারে আসবে। অন্যদিকে বেশ কিছু প্রযুক্তিগত প্রতিবেদনে, এই নতুন আইফোন সিরিজের সম্ভাব্য কিছু ফিচার স্পেসিফিকেশন এবং অন্যান্য তথ্য ফাঁস হয়েছে। মনে করা হচ্ছে পরবর্তী আইফোন সিরিজের অধীনে দুটি টপ মডেল চালু করার পরিকল্পনা করছে অ্যাপল, যাতে হাই রিফ্রেশরেট যুক্ত OLED ডিসপ্লে থাকতে পারে।

রিপোর্ট অনুযায়ী, iPhone 13 সিরিজের অধীনে iPhone 13 Pro এবং iPhone 13 Pro Max নামে দুটি প্রিমিয়াম হ্যান্ডসেট আনতে পারে কার্পেটিনো ভিত্তিক কোম্পানিটি। সেক্ষেত্রে, এই দুটি মডেলে ProMotion OLED ডিসপ্লে থাকার সম্ভাবনা রয়েছে, যার স্ক্রিন রিফ্রেশ রেট হবে ১২০ হার্টজ। অন্যদিকে সিরিজের দুটি সাধারণ এবং সাশ্রয়ী ভ্যারিয়েন্ট অর্থাৎ iPhone 13 বা iPhone 13 Mini-তে ১২০ হার্টজ রিফ্রেশ রেটসহ LTPO (লো টেম্পারেচার পলিক্রিস্টালিন অক্সাইড) ডিসপ্লে প্যানেল দেখা যেতে পারে। শোনা যাচ্ছে যে, জনপ্রিয় দুই ইলেকট্রনিক্স ব্র্যান্ড Samsung এবং LG, এই আইফোনগুলির ডিসপ্লে OLED প্যানেলগুলির প্রধান সরবরাহকারী হতে চলেছে।

এদিকে, জনপ্রিয় টিপস্টার এবং ইউটিউবার জোন প্রোসার সম্প্রতি দাবি করেছেন যে, অ্যাপল একটি নেক্সট-জেন আইফোনের ওপর কাজ করছে যাতে কোনো পোর্ট থাকবে না। এক্ষেত্রে, স্মার্টফোনটি ম্যাগসেফ চার্জারের মাধ্যমে চার্জ হবে বলে জানা গেছে। তবে অ্যাপল এখনই তার আইফোনগুলিকে ওয়্যারলেস বানানোর কথা ভাবছে না বলেই জানিয়েছেন ওই টিপস্টার। এই প্রসঙ্গে মনে করিয়ে দিই, লেটেস্ট আইফোন সিরিজের রিটেল বক্সের সাথে চার্জিং অ্যাডাপ্টার সরবরাহ করা বন্ধ করে দিয়েছে প্রিমিয়াম ডিভাইস নির্মাতা সংস্থাটি। যার ফলে গ্রাহকদের হয় ম্যাগসেফ চার্জার ব্যবহার করতে হবে নয়তো আলাদা করে চার্জিং অ্যাডাপ্টার কিনতে হবে।

আবার, অ্যাপল বিশ্লেষক মিং-চি কুও (Ming-Chi Kuo), একটি প্রতিবেদনে দাবি করেছেন যে সংস্থাটি ২০২১ সালে সাপ্লাই চেইন নিয়ে কোনও সমস্যার মুখে পড়বে না এবং পরবর্তী আইফোন সিরিজের লঞ্চের ক্ষেত্রেও কোনো বিলম্ব হওয়ার সম্ভাবনা নেই। সুতরাং, আশা করা যায় এই বছর তাড়াতাড়িই বাজারে আসতে পারে নতুন iPhone 13 সিরিজ।

প্রসঙ্গত, দিন কয়েক আগে জোন প্রোসার জানিয়েছিলেন যে, অ্যাপল একটি ফোল্ডেবল স্মার্টফোনের ওপর কাজ করছে যা ক্ল্যামশেল ডিজাইনসহ আসবে। তবে মনে করা হচ্ছে এই ফোনটি আসতে কিছুটা সময় লাগবে, কারণ এই বিষয়ে গবেষণা ও বিকাশের জন্য সংস্থার আরও সময় প্রয়োজন হবে। সেক্ষেত্রে ২০২২ বা ২০২৩ সালে এই ফোল্ডেবল আইফোনটি চালু হতে পারে।