সস্তা আইফোন কিনতে চাইছেন? ব্যাটারি হতাশ করবে আপনাকে

জনপ্রিয় স্মার্টফোন কোম্পানি Apple ১৫ এপ্রিল তাদের নতুন আইফোন লঞ্চ করেছে। এই ফোনের নাম iPhone SE 2020। যদিও লঞ্চের দিন এই ফোনের র‌্যাম ও ব্যাটারি সম্পর্কে জানা যায়নি। তবে গতকাল এই সম্পর্কে তথ্য পাওয়া গেছে। যা শুনে আপনি হতাশ হতে পারেন। গতকাল একটি চায়না টেলিকম এই ফোনের র‌্যাম ও ব্যাটারি সম্পর্কে জানিয়েছে। এই তথ্য অনুযায়ী, আইফোন এস ই ২০২০ ফোনে ৩ জিবি র‌্যাম ও ১,৮১২ এমএএইচ ব্যাটারি রয়েছে।

১৮ ওয়াট চার্জিং সাপোর্ট, বাক্সে ৫ ওয়াট চার্জার :

iPhone SE 2020 ফোনে ১৮ ওয়াট চার্জিং সাপোর্ট থাকবে। যদিও কোম্পানি যে চার্জার দিয়েছে সেটি ৫ ওয়াটের। চায়না টেলিকম অনুযায়ী, ১৮ ওয়াট চার্জার থেকে আধ ঘন্টায় ৫০ শতাংশ পর্যন্ত চার্জ হয়ে যাবে। কোম্পানির দাবি অনুযায়ী, ১,৮২১ এমএএইচ ব্যাটারি ১৩ ঘন্টার ভিডিও প্লেব্যাক, ৪ ঘন্টা পর্যন্ত ভিডিও স্ট্রিমিং সাপোর্ট করবে। ফোনে ওয়্যারলেস চার্জিং সাপোর্ট ও দেওয়া হয়েছে।

iPhone SE 2020: দাম ও উপলব্ধতা :

Apple তাদের একটি প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে আইফোন এসই ২০২০ এর দাম জানিয়েছে। সেই বিজ্ঞপ্তি অনুসারে এই ফোনের দাম শুরু হবে ৪২,৫০০ টাকা থেকে। এই দাম ফোনটির ৬৪ জিবি স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্টের। এছাড়াও iPhone SE 2020 ফোনটি ১২৮ জিবি ও ২৫৬ জিবি স্টোরেজ মডেলে পাওয়া যাবে। যাদের দাম যথাক্রমে ৪৭,৮০০ ও ৫৮,৩০০ টাকা। ফোনটি কালো, সাদা ও লাল রঙে পাওয়া যাবে। এছাড়াও  ‘Apple Authorized Resellers’ থেকে ফোনটি পাওয়া যাবে বলে কোম্পানি জানিয়েছে। যদিও এর সেল ডেট এখনও জানানো হয়নি।

iPhone SE 2020: স্পেসিফিকেশন

ডুয়েল সিমের এই ফোনে ৪.৭ ইঞ্চি রেটিনা এইচডি আইপিএস ডিসপ্লে দেওয়া হয়েছে। ফোনটি মেটাল বডির সাথে এসেছে। ডিসপ্লেতে ডলবি ভিশন ও এইচডিআর ১০ প্লেব্যাক সাপোর্ট করবে। দ্রুত কাজ করার জন্য এখানে হেপটিক টাচ ব্যবহার করা হয়েছে। এই ফোনে পাবেন এ ১৩ বায়োনিক প্রসেসর। এছাড়াও আছে ৩ জিবি র‌্যাম। তবে ফোনটি ৬৪ জিবি, ১২৮ জিবি ও ২৫৬ জিবি স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্টে পাওয়া যাবে।

ফটোগ্রাফির জন্য এই ফোনের পিছনে এলইডি ফ্ল্যাশ সহ ১২ মেগাপিক্সেল সেন্সর সহ সিঙ্গেল ক্যামেরা দেওয়া হয়েছে। এর অ্যাপারচার এফ/১.৮। আবার সামনে এফ/২.২ অ্যাপারচার সহ ৭ মেগাপিক্সেল সেলফি ক্যামেরা রয়েছে। ওয়াই-ফাই ৬ সহ ফোনটি আইওএস ১৩ অপারেটিং সিস্টেমে চলে। কোম্পানি তরফে জানানো হয়েছে এতে ১,৮২১ এমএএইচ বিল্ট ইন ব্যাটারি ব্যবহার করেছে। যার দ্বারা ৪০ ঘন্টা অডিও শোনা যাবে বলে দাবি করা হয়েছে।

টেকগাপের মেম্বাররা ও সদ্য যোগ দেওয়া লেখকরা এই প্রোফাইলের মাধ্যমে টেকনোলজির সমস্ত রকম খুঁটিনাটি আপনাদের সামনে আনে।