iQOO 7 Legend ও iQOO 7 ভারতে লঞ্চ হল দুর্ধর্ষ ফিচারের সাথে, দাম জানলে অবাক হবেন

Iqoo 7 legend iqoo 7 launched in India with Snapdragon 888 soc 120hz display price specifications

ভিভো-র সাব ব্র্যান্ড আইকো আজ প্রত্যাশামতোই ভারতে লঞ্চ করল iQOO 7 Legend ও iQOO 7। একটি ভার্চুয়াল লঞ্চ ইভেন্টের মাধ্যমে ফোনগুলি কে ভারতে আনা হয়েছে। এর মধ্যে আইকো ৭ লেজেন্ড ফোনটি স্ন্যাপড্রাগন ৮৮৮ প্রসেসর সহ এসেছে, যেটি গত জানুয়ারিতে চীনে লঞ্চ হওয়া iQOO 7 Legendary BMW Edition এর রিব্র্যান্ডেড ভার্সন। আবার আইকো নিও ৫ এর রিব্যাজড ভার্সন হল আইকো ৭, এতে স্ন্যাপড্রাগন ৮৭০ প্রসেসর ব্যবহার করা হয়েছে। এছাড়া দুটি ফোনেই পাওয়া যাবে ট্রিপল রিয়ার ক্যামেরা, ৬৬ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং সাপোর্ট, ১২০ হার্টজ রিফ্রেশ রেটের পাঞ্চ হোল ডিসপ্লে। আসুন iQOO 7 Legend ও iQOO 7 এর দাম ও স্পেসিফিকেশন জেনে নিই

iQOO 7 Legend ও iQOO 7 এর দাম, লভ্যতা

ভারতে আইকো ৭ লেজেন্ড এর দাম শুরু হয়েছে ৩৯,৯৯০ টাকা থেকে। এই মূল্য ফোনটির ৮ জিবি র‌্যাম ও ১২৮ জিবি স্টোরেজের। আবার এর ১২ জিবি র‌্যাম ও ২৫৬ জিবি স্টোরেজের দাম রাখা হয়েছে ৪৩,৯৯০ টাকা। ফোনটি BMW Motorsport এর লোগো সহ লেজেন্ডারি কালারে পাওয়া যাবে। এই ফোনের সাথে Mi 11X Pro এর প্রতিদ্বন্দ্বিতা হবে।

এদিকে আইকো ৭ তিনটি স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্ট সহ ভারতে এসেছে। যেগুলি হল ৮ জিবি র‌্যাম ও ১২৮ জিবি স্টোরেজ, ৮ জিবি র‌্যাম ও ২৫৬ জিবি স্টোরেজ ও ১২ জিবি র‌্যাম ও ২৫৬ জিবি স্টোরেজ। এদের দাম যথাক্রমে ৩১,৯৯০ টাকা, ৩৩,৯৯০ টাকা ও ৩৫,৯৯০ টাকা। ফোনটি দুটি কালারে উপলব্ধ- স্টম ব্ল্যাক ও সলিড আইস ব্লু। Mi 11X এর সাথে এই ফোনের জোর টক্কর চলবে।

iQOO 7 Legend ও iQOO 7 ফোন দুটি ভারতে Amazon ও iqoo.com থেকে পাওয়া যাবে। আগামী ১লা মেয়ে থেকে এদের প্রি-অর্ডার শুরু হবে। যদিও এদের সেলের তারিখ জানা যায়নি।

লঞ্চ অফার হিসাবে আইকো ৭ লেজেন্ড ও আইকো ৭ ফোনের ওপর ICICI ব্যাংকের ক্রেডিট কার্ডধারীরা প্রিপেড ও ইএমআই ট্রানজাকশনে যথাক্রমে ৩,০০০ টাকা ও ২,০০০ টাকা ডিসকাউন্ট পাবেন। আবার Amazon দুটি ফোনের ওপর ২,০০০ টাকা‌‌ ডিসকাউন্ট কুপন অফার করছে। সাথে পাওয়া যাবে নো কস্ট ইএমআই এরও সুবিধা।

iQOO 7 Legend এর স্পেসিফিকেশন

আইকো ৭ লেজেন্ড অ্যান্ড্রয়েড ১১ বেসড অরিজিনওএস-এ চলে। এই ফোনে আছে ১২০ হার্টজ রিফ্রেশ রেট ও ৩০০ হার্টজ টাচ স্যাম্পলিং রেটের ৬.৬২ ইঞ্চি ফুল এইচডি প্লাস (১০৮০ x ২৪০০ পিক্সেল) অ্যামোলেড পাঞ্চ হোল ডিসপ্লে। এই ডিসপ্লের আসপেক্ট রেশিও ২০:৯, স্ক্রিন টু বডি রেশিও ৯১.৪। ফোনটিতে অ্যান্টি গ্লেয়ার গ্লাস ব্যবহার করা হয়েছে। iQOO 7 Legend স্ন্যাপড্রাগন ৮৮৮ প্রসেসরের চলবে। সাথে আছে এড্রেনো ৬৬০ জিপিইউ। আবার ফোনটি ১২ জিবি পর্যন্ত র‌্যাম (LPDDR5) ও ২৫৬ জিবি পর্যন্ত স্টোরেজ (UFS 3.1) সহ পাওয়া যাবে।

জানিয়ে রাখি এই ফোনে প্রেসার সেন্সিটিভ স্ক্রিন (মনস্টার টাচ), ডুয়েল স্টেরিও স্পিকার (মনস্টার বিট) ও 3D ভাইব্রেশন ডুয়েল লিনিয়ার মোটর (মনস্টার ইঞ্জিন), মাল্টি-টার্বো ৫.০, ওয়ান-টাচ গেম স্পেস, জিভয়েস অপ্টিমাইজেশান প্রযুক্তি প্রভৃতি উপলব্ধ।

ফটোগ্রাফির জন্য আইকো ৭ লেজেন্ড ফোনের পিছনে ট্রিপল ক্যামেরা সেটআপ বর্তমান। যার প্রাইমারি ক্যামেরা এফ/১.৭৯ অ্যাপারচার সহ ৪৮ মেগাপিক্সেল Sony IMX598 সেন্সর। এর সাথে OIS সাপোর্ট করবে। অন্য দুটি ক্যামেরার একটি হল ১২০ ডিগ্রি ফিল্ড অফ ভিউ সহ ১৩ মেগাপিক্সেল আলট্রা ওয়াইড এঙ্গেল লেন্স (এফ/২.২) এবং অন্যটি ৫০মিমি ফোকাল লেন্থ সহ ১৩ মেগাপিক্সেল পোর্ট্রেট সেন্সর (এফ/২.৪৬)। এই ক্যামেরায় ২০এক্স ডিজিটাল জুম সাপোর্ট করবে। সেলফি ও ভিডিও কলের জন্য এতে এফ/২.০ অ্যাপারচার সহ ১৬ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরা রয়েছে।

iQOO 7 ফোনটি ৪,০০০ এমএএইচ ব্যাটারি (দুটি ২,০০০ এমএএইচ) সহ এসেছে। এর সাথে ৬৬ ওয়াট ফ্ল্যাশ চার্জিং সাপোর্ট করবে। সিকিউরিটির জন্য এই ফোনে পাওয়া যাবে ইন ডিসপ্লে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর। ফোনটির ওজন ২০৯.৫ গ্রাম।

iQOO 7 এর স্পেসিফিকেশন

iQOO 7 launched in India

আইকো ৭ অ্যান্ড্রয়েড ১১ বেসড অরিজিনওএস ১.০ কাস্টম স্কিনে চলবে। এই ফোনে আছে ১২০ হার্টজ রিফ্রেশ রেটের সাথে ৬.৬২ ইঞ্চি ফুল এইচডি প্লাস (২৪০০ x ১০৮০ পিক্সেল) E3 AMOLED ডিসপ্লে। এই ডিসপ্লে ৩০০ হার্টজ টাচ স্যাম্পলিং রেট, ২০:৯ আসপেক্ট রেশিও, HDR10+ সার্টিফিকেশন ও ১৩০০ নিটস পিক ব্রাইটনেসের সাথে এসেছে। এই ডিসপ্লের ডিজাইন পাঞ্চ হোল, যার কাট আউটের মধ্যে ফ্রন্ট ক্যামেরা হিসেবে ১৬ মেগাপিক্সেল Sony IMX471 সেন্সর দেওয়া হয়েছে।

আবার এই ফোনে ব্যবহার করা হয়েছে কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৮৭০ প্রসেসর। সাথে আছে এড্রেনো ৬৫০ জিপিইউ। ফোনটি ১২ জিবি পর্যন্ত LPDDR4x র‌্যাম ও ২৫৬ জিবি পর্যন্ত UFS 3.1 স্টোরেজ সহ পাওয়া যাবে। এই ফোনে ভার্চুয়াল র‌্যাম ফিচার রয়েছে, যা স্টোরেজ কে র‌্যামে ( ৩ জিবি র‌্যাম) পরিণত করবে।

ক্যামেরার কথা বললে iQOO 7 ফোনের পিছনে তিনটি ক্যামেরা বর্তমান। এর প্রাইমারি ক্যামেরা ৪৮ মেগাপিক্সেল Sony IMX598 সেন্সর (এফ/১.৭৯)। প্রাইমারি ক্যামেরায় OIS (অপটিক্যাল ইমেজ স্টেবিলাইজেশন) সাপোর্ট আছে। ফোনটির অন্য দুটি ক্যামেরা হল ১২০ ডিগ্রি ফিল্ড অফ ভিউ সহ ১৩ মেগাপিক্সেল সুপার ওয়াইড এঙ্গেল লেন্স (এফ/২.২) ও ২ মেগাপিক্সেল ম্যাক্রো লেন্স।

পাওয়ার ব্যাকআপের জন্য এই ফোনে রয়েছে ৬৬ ওয়াট ফ্ল্যাশ চার্জার চার্জিং সাপোর্ট সহ ৪,৪০০ এমএএইচ ডুয়েল সেল ব্যাটারি। ফোনটি ৩০ মিনিটে ফুল চার্জ হবে। এছাড়াও iQOO 7 এর অন্যান্য ফিচারের মধ্যে আছে ইউএসবি টাইপ সি পোর্ট, Z-axis হ্যাপিটিক মোটর, ৩.৫মিমি হেডফোন জ্যাক।

হোয়াটসঅ্যাপে খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন