আপডেট: ১২ জিবি র‌্যামের সাথে লঞ্চ হবে iQOO 7, সাথে থাকবে স্ন্যাপড্রাগন ৮৮৮ প্রসেসর

iqoo-7-spotted-on-benchmark-with-snapdragon-888-and-12gb-ram

ভিভোর সাবব্রান্ড iQOO জানুয়ারির ১০ তারিখে iQOO 7 নামে একটি ফ্ল্যাগশিপ স্মার্টফোন লঞ্চ করতে চলেছে। রিপোর্ট বলছে, এই ফোনটির মডেল নম্বর হল V2049A। অতি সম্প্রতি এই ফোনটিকে AnTuTu বেঞ্চমার্ক সাইটে দেখা গিয়েছিল। সেখানে ফোনটি ৭৫২,৯৩৫ পয়েন্টের চমৎকার স্কোর করেছিল। এবার আর এক বেঞ্চমার্ক প্ল্যাটফর্ম Geekbench-এ V2049A মডেল নম্বরের সাথে iQOO 7 ফোনটিকে স্পট করা হয়েছে। দুটি বেঞ্চমার্ক সাইটেই ফোনটিকে ১২ জিবি র‌্যামের সাথে দেখা গিয়েছে।

গিকবেঞ্চে স্ন্যাপড্রাগন ৮৮৮ দ্বারা পরিচালিত iQOO 7 সিঙ্গেল কোর টেস্টে ১১২৫ পয়েন্ট ও মাল্টি কোর টেস্টে ৩৬৩৭ পয়েন্ট স্কোর করেছে। যার দরুণ স্ন্যাপড্রাগন ৮৮৮-এর অন্যান্য ফ্ল্যাগশিপ ফোন যেমন- সদ্য লঞ্চ হওয়া Xiaomi Mi 11, শীঘ্রই লঞ্চ হতে চলা Vivo X60+ Pro ও Samsung Galaxy S21 সিরিজ, ও Asus ROG Phone 4 বলে অনুমান করা একটি স্মার্টফোনের সাথে পারফরম্যান্সের নিরিখে iQOO 7 একই সারিতে বিদ্যমান।

এদিকে আইকো ৭ ফোনটির অফিসিয়াল রেন্ডারে ফোনের ব্যাক প্যানেলের ছবি সামনে এলেও এর ফ্রন্ট ডিজাইন ও স্পেসিফিকেশনের বিষয়ে এখনও IQOO এখনও পর্যন্ত কিছু জানায়নি। অফিসিয়াল পোস্টারে, iQOO 7-এর ব্যাক প্যানেলে তিনটি ক্যামেরার উপস্থিতি লক্ষ্য করা গিয়েছিল। যার প্রাইমারি ক্যামেরা ৪৮ মেগাপিক্সেলের হতে পারে। এতে Vivo X60 সিরিজের ফোনে থাকা ৬.৫৬ ইঞ্চির অ্যামোলেড প্যানেল দেওয়া হবে বলেও চর্চা চলছে।

সম্প্রতি V2049A মডেল নম্বরের সাথে ভিভোর একটি ফোন চীনের 3C-এর ছাড়পত্র পেয়েছে। নিঃসন্দেহে বলা যায়, এটি iQOO 7 সিরিজের ফোন। সেখান থেকে জানা গেছে যে, ফোনটি ১২০ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং সাপোর্ট করবে। জানিয়ে রাখি ১২০ ওয়াট চার্জিং টেকনোলজি একটি ৪,০০০ এমএএইচ ব্যাটারিকে ১৫ মিনিটে ফুল চার্জ করে দেয়। উল্লেখ্য, iQOO ইতিমধ্যেই ঘোষণা করেছে যে, iQOO 7 ফোনটি চীনের অন্যতম বৃহত্তম ই-স্পোর্টস ইভেন্ট KPL-এর অফিসিয়াল গেমিং স্মার্টফোন হবে। তাই বলা যায়, এটি একটি গেমিং সেন্ট্রিক স্মার্টফোন হতে চলেছে।

আপডেট : iQOO 7 ফোনটি ১১ জানুয়ারি লঞ্চ হবে। এর সাথে iQoo 7 BMW Edition লঞ্চ করা হবে।