চন্দ্রযান ২ মিশনের প্রাথমিক তথ্য প্রকাশ করলো ইসরো

isro-reveals-intial-data-of-chandrayaan-2-first-time

ভারতবাসী হিসাবে দ্বিতীয় চন্দ্রভিযান প্রচেষ্টার কথা আমাদের সকলেরই মনে থাকার কথা। গত বছর অর্থাৎ ২০১৯ সালের ২২শে জুলাই অন্ধ্রপ্রদেশের শ্রীহরিকোটায় অবস্থিত সতীশ ধাওয়ান স্পেস সেন্টার থেকে চন্দ্রযান ২ (Chandrayaan 2) লঞ্চ করা হয়। দেশের মহাকাশ গবেষণার ইতিহাসে সে এক স্মরণীয় মুহূর্ত। এক্ষেত্রে ভারতের মহাকাশ গবেষণা সংস্থা ISRO বা ইন্ডিয়ান স্পেস রিসার্চ অর্গানাইজেশন প্রশংসনীয় ভূমিকা পালন করে। আজ ২০২০ সালের শেষ লগ্নে পৌঁছে ইসরো এই প্রথম চন্দ্রযান ২ দ্বারা সংগৃহীত তথ্য সকলের জন্য প্রকাশ্যে নিয়ে এলো। বিষয়টি তারা বৃহস্পতিবার আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা করেছে। তবে সম্পূর্ণ তথ্য প্রকাশের জন্য এখনো বেশ কিছুটা সময় লাগবে বলেই ইসরোর পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

প্রসঙ্গত জানিয়ে রাখি গত বছরের ২রা সেপ্টেম্বর চন্দ্রযান ২ -এর অরবিটার চাঁদের কক্ষপথে প্রবেশ করে। এতে পরীক্ষার উপযোগী ৮টি প্রযুক্তি ব্যবহার করা হয় যা মহাকাশ সংক্রান্ত আমাদের একাধিক প্রশ্নের জবাব দেবে।

এযাবৎ সংগৃহীত তথ্যের ভিত্তিতে ইসরোর দাবী, চন্দ্রযান ২ তার উদ্দেশ্য সাধনের ক্ষেত্রে অনেকাংশে সফল হয়েছে। আপাতত প্রথম দফায় এই তথ্যগুলির কিছু কিছু আগ্রহী জনতার জন্য প্রকাশ করা হলো। এই সমস্ত তথ্যই বেঙ্গালুরুর নিকটবর্তী ইন্ডিয়ান স্পেস সাইন্স ডেটা সেন্টারে (ISSDC) সংগৃহীত রয়েছে। উল্লেখ্য, ISSDC মূলত ইসরোর ভিনগ্রহ সংক্রান্ত গবেষণার তথ্যসমূহ রক্ষণাবেক্ষণ করে থাকে।

অবশ্য জনসাধারণের জন্য প্রকাশিত সমস্ত তথ্য পরিবেশনের ক্ষেত্রে ইসরোকে প্ল্যানেটারি ডেটা সিস্টেম ৪ বা PDS4 স্ট্যান্ডার্ড অনুসরণ করতে হয়েছে। তাছাড়া প্রকাশের পূর্বে চন্দ্রযান ২ কর্তৃক প্রেরিত তথ্যগুলিকে অত্যন্ত সূক্ষ্ম এবং বিজ্ঞানসম্মতভাবে যাচাই করা হয়। এটুকু পরিশ্রম ছাড়া কোনভাবেই তথ্যগুলি দেশবিদেশের বিজ্ঞান সন্ধিৎসু মানুষের জন্য উন্মুক্ত করা যেতোনা বলে ইসরো’র অভিমত। এক্ষেত্রে ভবিষ্যতেও তারা যে একই পথে হাঁটবে, সেটাও ইসরোর পক্ষ থেকে স্পষ্ট করে দেওয়া হয়েছে।

আপাতত চন্দ্রযান ২ কর্তৃক প্রেরিত যে সমস্ত তথ্য ইসরোর কাছে রয়েছে, সেগুলি সেপ্টেম্বর ২০১৯ থেকে ফেব্রুয়ারী ২০২০ সময়পর্বের মধ্যে সংগৃহীত। মোট সাতটি প্রযুক্তি ব্যবহার করে এই তথ্যসমূহ পাওয়া গিয়েছে। পে-লোড হিসেবে প্রযুক্তিগুলি চন্দ্রযান ২ এর সাথে মহাকাশে প্রেরণ করা হয়েছিল।

ভারতের প্রথম চন্দ্রপৃষ্ঠে অবতরণের প্রচেষ্টা হিসেবে চন্দ্রযান ২ ইতিহাসে জায়গা করে নিয়েছে। প্রাথমিকভাবে ইসরো চাঁদের দক্ষিণ ভাগে অবতরণের পরিকল্পনা করেছিল। যদিও ল্যান্ডার বিক্রম ( Vikram) অবতরণের ক্ষেত্রে প্রতিকূলতার মুখে পড়ে সঠিক স্থানে অবতরণে ব্যর্থ হয়। তবু এখনো এটি চন্দ্রপৃষ্ঠেই রয়েছে এবং এর অরবিট আগামী সাত বছর আমাদের তথ্য সরবরাহ করবে।

এদিন ইসরো’র চেয়ারম্যান কে শিবনের (K Sivan) কাছে চন্দ্রযান ৩ সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি বলেন, “এব্যাপারে কোন নিশ্চিত সূচী আমরা স্থির করিনি। তবে চন্দ্রযান ৩ সংক্রান্ত পরীক্ষানিরীক্ষা পুরোদমেই চলছে।”

One of the newest members of the Techgup Family. Soumo grew his liking for gadgets almost a decade back while searching for his first smartphone, and started writing about tech recently in 2020