ভারতের বাজারে এল দুর্দান্ত সাউন্ড কোয়ালিটি JBL C115 TWS ইয়ারবাড

jbl-c115-tws-earbuds-launched-price-in-india-rs-4999-specifications

বর্তমান সময়ে ট্রু ওয়্যারলেস (TWS) ইয়ারবাডের চাহিদা বেশ বেড়েছে। প্রায় প্রতি মাসেই নতুন ডিজাইন এবং ফিচারযুক্ত TWS ইয়ারবাড বাজারে আসছে। এই পরিস্থিতিতে ফের ভারতের বাজারে পা রাখল একটি ট্রু ওয়্যারলেস ইয়ারবাড; সৌজন্যে জনপ্রিয় অডিও প্রোডাক্ট নির্মাতা JBL। আজ অর্থাৎ বৃহস্পতিবার, আমেরিকান কোম্পানিটি তার ভারতীয় গ্রাহকদের জন্য JBL C115 নামে নতুন TWS ইয়ারবাড লঞ্চ করেছে, যাতে ফাস্ট চার্জিং কেস, দীর্ঘ ব্যাটারি লাইফ, ইন-ইয়ার ডিজাইনসহ একাধিক আকর্ষণীয় ফিচার রয়েছে। আসুন ইয়ারবাডটির সম্পূর্ণ স্পেসিফিকেশন, দাম এবং লভ্যতা সম্পর্কে জেনে নিই।

JBL C115 TWS ইয়ারবাডের স্পেসিফিকেশন

প্রথমেই বলে রাখি, এই JBL C115 TWS ইয়ারবাড ৫.৮ মিলিমিটার ড্রাইভারের সাথে এসেছে এবং কানেক্টিভিটির জন্য এতে ব্লুটুথ ৫.০ প্রযুক্তি রয়েছে। এছাড়াও আছে মনো ও স্টেরিও মোড এবং অটো-কানেক্টিভিটি সাপোর্ট, যার ফলে ইউজাররা ইচ্ছেমত নির্দিষ্ট একটি বাড বা উভয় বাডের মাধ্যমে গান শুনতে বা ফোন কল করতে পারবেন। ডিজাইনের কথা বললে, জেবিএলের এই নতুন ইয়ারবাড ইন-ইয়ার ডিজাইনের সাথে আসে এবং এটির বক্সে ক্রেতারা তিন রকম আকারের কানের টিপস ও ইউএসবি টাইপ-সি চার্জিং কেবল দেখতে পাবেন।

জানিয়ে রাখি, জেবিএল সি ১১৫ টিডব্লিউএস ইয়ারবাডটির ওজন মাত্র ৭৩ গ্রাম। নির্মাতা সংস্থার দাবি, এটি কেস ছাড়া ছয় ঘন্টা এবং চার্জিং কেসসহ ১৫ ঘন্টা প্লেব্যাক দিতে সক্ষম; অর্থাৎ এই ইয়ারবাডগুলি মোট ২১ ঘন্টা প্লেব্যাক সরবরাহ করতে পারে। শুধু তাই নয়, অ্যাক্সেসরিজটিতে ফাস্ট চার্জিং প্রযুক্তি থাকায় এটি মাত্র ১৫ মিনিটের চার্জে এক ঘন্টা প্লেব্যাক অফার করে।

এছাড়া এগুলির সাহায্যে হ্যান্ডস ফ্রি কলিং, ভয়েস অ্যাসিস্ট্যান্স সক্রিয়করণ এবং মিউজিক পরিবর্তন করার সুবিধা পাওয়া যাবে। সেক্ষেত্রে, ইয়ারবাডে গুগল ভয়েস অ্যাসিস্ট্যান্ট এবং অ্যামাজন অ্যালেক্সা – দুটি প্ল্যাটফর্মকেই সমর্থন করে। তদুপরি, দুর্দান্ত সাউন্ড সরবরাহ করতে এতে রয়েছে জেবিএলের নিজস্ব ব্যাস (Bass)-এর সাপোর্ট।

JBL C115 TWS ইয়ারবাডের দাম ও লভ্যতা

এই নতুন জেবিএল টিডব্লিউএস ইয়ারবাডটির দাম ধার্য করা হয়েছে ৪,৯৯৯ টাকা। আগ্রহীরা এখনই এটিকে অ্যামাজন ইন্ডিয়ার মাধ্যমে পকেটস্থ করতে পারবেন। সেক্ষেত্রে ইয়ারবাডটির সাথে হাঙ্গামা মিউজিকের এক বছরের সাবস্ক্রিপশন পাওয়া যাবে এবং এটিকে ইএমআই বা অ্যামাজন পে লেটার অপশনের সাহায্যে কেনা যাবে। ইয়ারবাডটি কালো, পুদিনা, লাল এবং সাদা রঙে উপলব্ধ।