Reliance Jio-র নতুন বছরের উপহার, অন্য নেটওয়ার্কে কল করতে লাগবেনা চার্জ

jio-to-backs-free-voice-calls-to-other-networks-again-starting-january-1

অবশেষে শেষ হতে চলেছে ২০২০! রাত পেরোলেই একরাশ নতুন আশা নিয়ে দরজায় দাঁড়াবে নতুন একটা বছর। স্বাভাবিকভাবেই সারা বিশ্বের মানুষ আসন্ন বছরের জন্য বিভিন্ন নতুন পরিকল্পনা করছেন। সেক্ষেত্রে, নতুন বছরে ভারতীয় গ্রাহকদের বেশ খানিকটা স্বস্তি দিতে চলেছে Reliance Jio। আসলে, বিগত এক-দেড় বছরে টেলিকম সংস্থাটি তার প্ল্যানগুলির চার্জ অনেকটাই বাড়িয়েছে, এমনকি বর্তমানে জিও সিম ব্যবহারকারীদের অন্য নেটওয়ার্কে ফোন কল করতে হলে অতিরিক্ত খরচা করতে হয়। কিন্তু বছরের প্রথম দিন থেকেই জিও গ্রাহকদের এই মাথা ব্যথার কারণ আর থাকবেনা। আজ মাত্র কয়েক ঘন্টা আগে মুকেশ আম্বানির নেতৃত্বাধীন সংস্থাটি ঘোষণা করেছে যে, Reliance Jio গ্রাহকরা ২০২১ সালের ১লা জানুয়ারি থেকে পুনরায় বিনামূল্যে অফ-নেট ডোমেস্টিক ভয়েস কল করতে পারবেন; লাগবে না অতিরিক্ত আইইউসি চার্জ।

টেলিকম রেগুলেটরি অথরিটি অফ ইন্ডিয়া বা TRAI-এর নির্দেশে গত বছর থেকে ভারতের টেলিকম সংস্থাগুলি, গ্রাহকদের থেকে ইন্টারকানেক্ট ইউসেজ চার্জ (IUC) নিতে শুরু করে। এই কারণেই জিও গ্রাহকদের অন্য নেটওয়ার্কে ভয়েস কল করতে হলে মিনিট পিছু ৬ পয়সা চার্জ দিতে হত। রিপোর্ট অনুযায়ী, TRAI, সম্প্রতি এই নির্দেশটি প্রত্যাহার করেছে এবং সিদ্ধান্ত নিয়েছে যে আগামী ১লা জানুয়ারি থেকে ডোমেস্টিক ভয়েস কলের জন্য গ্রাহকদের থেকে অতিরিক্ত চার্জ নেওয়া হবে না। ফলে Jio গ্রাহকরা বিনামূল্যে এবং নির্বিঘ্নে জিও-টু-জিও এবং জিও-টু-নন জিও ভয়েস কল করতে পারবেন।

প্রসঙ্গত, ২০১৯ সালের সেপ্টেম্বরে, দেশের টেলিকম মন্ত্রক তার ‘বিল অ্যান্ড কিপ’ নির্দেশিকার সময়সীমা বাড়িয়ে আইইউসি চার্জ চালু করার প্রস্তাব দিলে, বিষয়টিতে আপত্তি জানিয়েছিল জিও। সংস্থাটি দাবি করেছিল যে, এই চার্জের জন্য তাদের নেটওয়ার্ক থেকে অফ-নেট ভয়েস কল করার দরুন অন্যান্য অপারেটরদের কয়েক কোটি টাকা দিতে হবে। সেক্ষেত্রে, অন্যান্য অপারেটররা আইইউসি-কে সমর্থন করে, কারণ এটি তাদের আয়ের অন্যতম প্রধান উৎস বা সুযোগ হিসেবে উপস্থিত হয়েছিল। এদিকে, জিও ব্যবহারকারীদের একটি বিশাল সংখ্যক অংশ ভয়েস কলগুলির জন্য অতিরিক্ত ব্যয় করতে হওয়ার কারণে টেলকোর সমালোচনা শুরু করেছিল। যার জেরে সংস্থাটিকে কিছু আইইউসি ভাউচারও নিয়ে আসতে হয়েছিল।

মনে করা হচ্ছে, ট্রাইয়ের এই নতুন সিদ্ধান্ত কার্যকরী হওয়ার পর, Airtel এবং Vi (ভোডাফোন-আইডিয়া)-এর মতো দেশের অন্যান্য টেলকোগুলির ওপর চাপ বাড়াতে পারে রিলায়েন্স জিও। কারণ এর পর থেকে জিও আগের মতই সাশ্রয়ী রিচার্জ প্ল্যান সরবরাহ করতে সক্ষম হবে যা অন্য টেলিকম সংস্থার পক্ষে বেশ প্রতিযোগিতামূলক। তাছাড়া অন্যান্য অপারেটররা, ভয়েস কলের জন্য জিওর কাছ থেকে আর কোন চার্জ পাবে না।

তবে যাইহোক না কেন নতুন বছর যে শুরুর আগেই জিও গ্রাহকদের জন্য সুখবর বয়ে এনেছে – তা না স্বীকার করে উপায় নেই!