JioPhone Next নাকি Itel A26, সস্তায় কোন অ্যান্ড্রয়েড ফোন আপনার কেনা উচিত

JioPhone Next নাকি Itel A26, কোন ফোনটি কেনা আপনার জন্য বেশি লাভজনক হবে

jiophone-next-vs-itel-a26-cheapest-android-smartphone-comparison-price-specifications

গত ৪ঠা নভেম্বর থেকে বুকিংয়ের জন্য রেজিস্ট্রেশন শুরু হয়েছে Jio ও Google নির্মিত সস্তা অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোন, JioPhone Next এর। লঞ্চের আগেই ফোনটিকে নিয়ে এতটাই মাতামাতি শুরু হয়েছিল যে সকলেই উৎসুক ছিল এর ফিচার ও দাম জানার জন্য। যা ইতিমধ্যেই প্রকাশ্যে এসে গেছে। সেক্ষেত্রে, ৭ হাজার টাকার কমের এই ফোনে আছে ৫.৪৫ ইঞ্চির HD+ ডিসপ্লে, কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ২১৫ কোয়াড-কোর প্রসেসর, ৩,৫০০ এমএএইচ ব্যাটারি এবং একাধিক ‘স্মার্ট’ এআই (AI) ফিচার আছে। আর থাকছে একটি কাস্টমাইজ অপারেটিং সিস্টেম। তবে দামের দিক থেকে ভারতে এই ফোনের প্রতিদ্বন্দ্বী অনেক। যাদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য গত সেপ্টেম্বরে বাজারে আসা Itel A26। এই ফোনে পাওয়া যাবে ৫.৭ ইঞ্চির ডিসপ্লে প্যানেল, ডুয়েল রিয়ার ক্যামেরা, ৩,০২০ এমএএইচ ব্যাটারি ও ৩২ জিবি পর্যন্ত স্টোরেজ। আজ আমরা এই দুটি ফোনের দাম ও স্পেসিফিকেশনের পার্থক্য আপনাদের জানাবো। যাতে সদ্য লঞ্চ হওয়া JioPhone Next নাকি বিদ্যমান Itel A26, কোনটি কেনা আপনার জন্য বেশি লাভজনক হবে সেটা সহজে নির্ণয় করতে পারেন।

JioPhone Next vs Itel A26: দাম

স্মার্টফোন কেনার ক্ষেত্রে ফিচার যেমন গুরুত্বপূর্ণ, তেমনি দামের বিষয়টাও কিন্তু এড়িয়ে গেলে চলে না। তাই শুরুতেই আলোচনা করে নেওয়া যাক উক্ত দুটি ফোনের বিক্রয় মূল্য। ভারতে জিওফোন নেক্সট স্মার্টফোনের দাম রাখা হয়েছে ৬,৪৯৯ টাকা।

অন্যদিকে, আইটেল এ২৬ স্মার্টফোনের দাম থাকছে ৫,৭৩২ টাকা। অর্থাৎ, জিওফোন নেক্সটকে যতই ভারতের ‘চিপেস্ট’ স্মার্টফোন বলা হোক না কেন, আইটেলের হ্যান্ডসেট কিন্তু তুলনায় অনেকটাই সস্তা।

JioPhone Next vs Itel A26: ডিসপ্লে

এবার আসা যাক ডিসপ্লের প্রসঙ্গে। জিওফোন নেক্সট হ্যান্ডসেটে, কর্নিং গরিলা গ্লাস ৩ প্রটেকশন এবং অ্যান্টি-ফিঙ্গারপ্রিন্ট কোটিং সহ একটি ৫.৪৫ ইঞ্চির এইচডি প্লাস (৭২০x১,৪৪০ পিক্সেল) ডিসপ্লে রয়েছে। এতে অপেক্ষাকৃত পুরু বেজেল দেখা যাবে।

আইটেল এ২৬ স্মার্টফোনে দেওয়া হয়েছে, একটি ৫.৭ ইঞ্চির (৭২০x১,৬০০ পিক্সেল) IPS LCD ডিসপ্লে। এই ডিসপ্লের, এসপেক্ট রেশিও ১৯:৯ এবং পিক্সেল ডেনসিটি ২৭০ পিপিআই। এতে কোনো ডিসপ্লে প্রটেকশন পাওয়া যাবে না

JioPhone Next vs Itel A26: প্রসেসর, র‍্যাম ও স্টোরেজ

জিওফোন নেক্সটে স্ন্যাপড্রাগন ২১৫ প্রসেসর ব্যবহার করা হয়েছে। এই ফোন, ২ জিবি র‍্যাম এবং ৩২ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজের সাথে এসেছে।

অপরপক্ষে, আইটেল এ২৬ স্মার্টফোনে রয়েছে ইউনিসক এসসি৯৮৩২ই প্রসেসর। এই হ্যান্ডসেটের র‍্যাম এবং স্টোরেজ ফ্রন্ট জিওফোন নেক্সটের ন্যায় এক সমান।

JioPhone Next vs Itel A26: অপারেটিং সিস্টেম

জিওফোন নেক্সট, অ্যান্ড্রয়েড ১১ ভিত্তিক প্রগতি ওএস দ্বারা চালিত হবে। জানিয়ে রাখি, এই অপারেটিং সিস্টেমকে বিশেষ ভাবে ভারতীয়দের জন্য ডেভলপ করা হয়েছে।

অন্যদিকে, অপারেটিং সিস্টেম হিসাবে আইটেল এ২৬ ফোনে অ্যান্ড্রয়েড ১০ (গো এডিশন) ভার্সন পাওয়া যাবে।

JioPhone Next vs Itel A26: ক্যামেরা

জিওফোন নেক্সটের ব্যাক প্যানেল দেওয়া হয়েছে ১৩ মেগাপিক্সেলের একটি রিয়ার সেন্সর। আর সেলফি তোলার জন্য এতে ৮ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট-ফেসিং ক্যামেরার দেখা মিলবে। রিয়ার সেন্সরে নাইট মোড, ব্লার ব্যাকগ্রাউন্ড সহ আরো নানাবিধ মোড সাপোর্ট করে। আর সেলফি সেন্সরটি একাধিক ফিল্টারের সাথে এসেছে।

আইটেল এ২৬ স্মার্টফোনের ফোনে একটি এলইডি ফ্ল্যাশ লাইট সমেত ডুয়েল রিয়ার ক্যামেরা সেটআপ পাওয়া যাবে। এই ক্যামেরাগুলি হল, ৫ মেগাপিক্সেল প্রাইমারি সেন্সর এবং ২ মেগাপিক্সেল ডেপ্থ সেন্সর। আবার, ডিসপ্লের উপরিভাগে দেখা যাবে ২ মেগাপিক্সেলের সেলফি ক্যামেরা।

JioPhone Next vs Itel A26: ব্যাটারি ও কানেক্টিভিটি

ব্যাটারি ফ্রন্টের দিক থেকে Itel A26 এবং JioPhone Next -এর মধ্যে বিশেষ কোনো ফারাক থাকছে না। তবে জিওফোন নেক্সট, ৩,৫০০ এমএএইচ ক্যাপাসিটির ব্যাটারির সাথে কিছুটা এগিয়ে রয়েছে আইটেলের ফোনের থেকে। কারণ, আইটেল এ২৬ স্মার্টফোনে দেওয়া হয়েছে ৩,০২০ এমএএইচ ক্যাপাসিটির ব্যাটারি।

উভয় ব্র্যান্ডের স্মার্টফোনেই, কানেক্টিভিটির জন্য ওয়াই-ফাই, জিপিএস এবং ব্লুটুথ এর সাপোর্ট পাওয়া যাবে।

তবে জিওফোন নেক্সট অতিরিক্তভাবে গুগল অ্যাসিস্ট্যান্ট, রিড অ্যালাউড এবং ট্রান্সলেট এর মতো প্রয়োজনীয় ফিচার সহ এসেছে।

টেকগাপের মেম্বাররা ও সদ্য যোগ দেওয়া লেখকরা এই প্রোফাইলের মাধ্যমে টেকনোলজির সমস্ত রকম খুঁটিনাটি আপনাদের সামনে আনে।