গত পাঁচ বছর ধরে ভারতীয়দের ডেটা চুরি করছে হ্যাকাররা, অ্যাপের মাধ্যমে চলছে পুরো খেল

স্মার্টফোন ব্যবহারকারীদের জন্য বর্তমানে জালিয়াতি থেকে সুরক্ষিত থাকা খুবই কষ্টকর হয়ে পড়েছে। নিত্য নতুন পদ্ধতি আবিষ্কার করে স্মার্টফোন ব্যবহারকারীদের ঠকিয়ে চলেছে জালিয়াতরা। প্রত্যেকদিন হ্যাকিং এবং অনলাইন জালিয়াতির মামলা আমাদের সামনে আসছে। সম্প্রতি বিশ্বের জনপ্রিয় অ্যান্টিভাইরাস রিসার্চ ল্যাব Kaspersky Lab গুগল প্লে স্টোরে থাকা কিছু বিপদজনক অ্যাপ্লিকেশনের ব্যাপারে জানিয়েছে যেগুলো ২০১৫ সাল থেকে মানুষ ব্যবহার করছে। এই অ্যাপগুলি বছরের পর বছর ব্যবহারকারীর অজান্তে ফোনের তথ্য হ্যাকারদের কাছে পৌঁছে দিচ্ছে।

রিসার্চ ল্যাবের রিপোর্টে উঠে এসেছে যে OceanLotus গ্রুপের হ্যাকাররা PhantomLace নামক একটি ক্যাম্পেইন এর আড়ালে ব্যবহারকারীদের সাথে জালিয়াতি করছে। রিসার্চ ল্যাবের রিপোর্ট থেকে স্পষ্ট যে, গুগল প্লে স্টোরে এমন বেশ কিছু অ্যাপ্লিকেশন রয়েছে এই ক্যাম্পেইনের সঙ্গে সরাসরিভাবে যুক্ত। ওই অ্যাপ্লিকেশনগুলি ব্যবহার করলেই হ্যাকাররা ব্যবহারকারীর মোবাইল ফোনে ট্রোজান ভাইরাস পৌঁছে দিচ্ছে।

এমনকি এই সাইবার হ্যাকিং গুগলের সিকিউরিটিকেও মাত করে দিতে সক্ষম হয়েছে। একটি জনপ্রিয় থার্ডপার্টি অ্যাপ্লিকেশন ডাউনলোড ওয়েবসাইট APKpure-এও ওই অ্যাপ্লিকেশনগুলিকে দেখা গিয়েছে। ডিভাইসের মাধ্যমে ডেটা চুরি করার জন্য হ্যাকাররা নতুন নতুন পন্থা অবলম্বন করে চলেছে।

আপনার কল ডিটেইলস সহ বেশ কিছু ডিটেইলস চুরি করার জন্য হ্যাকাররা ভাইরাস অ্যাপ্লিকেশন ডেভেলপারদের সঙ্গে হাত মিলিয়েছে। এমনকি তারা কোন ভাইরাস অ্যাপ্লিকেশনকে সঠিক বলে প্রমাণ করার জন্য জনপ্রিয় প্ল্যাটফর্ম GitHub এ ভুয়ো অ্যাকাউন্ট তৈরি করছে। এই অ্যাকাউন্ট তৈরি করার পরেই জালিয়াতরা ব্যবহারকারীদের উপর নজর রাখা শুরু করছে। জালিয়াতরা ব্যবহারকারীদের ফোনের কল ডিটেইলস, লোকেশন ডেটা, কন্ট্যাক্ট এবং এসএমএস অ্যাক্সেস জোগাড় করছে।

এবং সবচেয়ে বিপদজনক বিষয় হলো এই ধরনের হ্যাকিংয়ের শিকার সবথেকে বেশি করা হচ্ছে পূর্ব এশিয়ার দেশগুলিকে। যার মধ্যে রয়েছে ভারত, বাংলাদেশ, ভিয়েতনাম এবং ইন্দোনেশিয়া। তাই রিসার্চ ল্যাবের তরফ থেকে সতর্ক বার্তায় জানানো হয়েছে যাতে আপনারা এই ধরনের অ্যাপ্লিকেশন কখনোই ডাউনলোড না করেন নিজের মোবাইলে।।

টেকগাপের মেম্বাররা ও সদ্য যোগ দেওয়া লেখকরা এই প্রোফাইলের মাধ্যমে টেকনোলজির সমস্ত রকম খুঁটিনাটি আপনাদের সামনে আনে।