ভাঙলেও আপনিই জুড়বে, বাঙালি বিজ্ঞানীদের হাত ধরে বিপ্লব স্মার্টফোনের স্ক্রিনে?

kolkata-bengali-scientists-develop-worlds-hardest-self-healing-material-could-be-used-in-future-phones
বাঙালি বিজ্ঞানীদের হাত ধরে বিপ্লব আসতে পারে স্মার্টফোনের স্ক্রিনে

আর্যভট্ট, মেঘনাদ সাহা, হোমি ভাবার ভারত এখন ‘ডিজিটাল ইন্ডিয়া’! সারা বিশ্বের তালে তাল মিলিয়ে বিকশিত হচ্ছে ভারতীয় বিজ্ঞান এবং প্রযুক্তি। আর এই অগ্রগতির নতুন ধ্বজা হিসেবে এবার, ভারত তথা বাংলার বিজ্ঞানীরা এক চমকপ্রদ আবিষ্কার করে বসলেন! রিপোর্ট অনুযায়ী, কলকাতার ইন্ডিয়া ইন্সটিটিউট অফ সায়েন্স এডুকেশন অ্যান্ড রিসার্চ (ISSER) এবং খড়গপুরের ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজির রিসার্চাররা সম্প্রতি বিশ্বের অন্যতম একটি গুরুত্বপূর্ণ উপাদান তৈরি করেছেন, যা সেল্ফ হিলিং (স্ব-নিরাময়)-এ সক্ষম।

ঠিক কী আবিষ্কার করেছেন বিজ্ঞানীরা?

টেলিগ্রাফ ইন্ডিয়ার রিপোর্ট থেকে জানা যায়, বাংলার বিজ্ঞানীরা সম্মিলিতভাবে একটি অরগ্যানিক ক্রিস্টালিন উপাদান সংশ্লেষণ করেছেন, যার একটি অনন্য অভ্যন্তরীণ আণবিক কাঠামো রয়েছে। সবচেয়ে মজার ব্যাপার, এই উপাদানের ক্ষতিগ্রস্থ অবস্থায় নিজেকে মেরামত করার ক্ষমতা রয়েছে। সেক্ষেত্রে, এই স্ব নিরাময়ের দক্ষতা প্রদর্শনের জন্য, বিজ্ঞানীরা এই উপাদানটিতে হালকা ট্রিগারের মাধ্যমে ফাটল সৃষ্টি করেন। এতে, ফাটল তৈরি হওয়ার পর ট্রিগারের সূঁচের চাপ প্রত্যাহার করা হলে, উপাদানগুলি স্বয়ংক্রিয়ভাবে এক সেকেন্ডের ভগ্নাংশ সময়ের মধ্যে ফাটল সারাইয়ের কাজ শুরু করে বলে জানা গিয়েছে।

উল্লেখ্য, এই সেল্ফ হিলিং মেটেরিয়ালগুলির সাধারণত বিভিন্ন রকম অস্তিত্ব থাকে; তবে এগুলির প্রকৃতি সাধারণত নরম এবং নিরাকার। সোজা ভাষায় বললে, এই উপাদানের অভ্যন্তরীণ কাঠামোর কিছু ত্রুটি রয়েছে এবং তা নিরাময়ের জন্য তাপ, আলো বা অন্যান্য রাসায়নিক পণ্যের মতো বাহ্যিক নিমিত্ত প্রয়োজন।

যদিও এই বিষয়ে গবেষণার নেতৃত্বদানকারী ISSER-এর রাসায়নিক বিজ্ঞানের অধ্যাপক চিল্লা মাল্লা রেড্ডি বলেছেন যে, এই নব আবিস্কৃত সেল্ফ হিলিং মেটেরিয়াল, অন্যান্য বস্তুর চেয়ে ১০ গুণ বেশি শক্ত। তাছাড়া এর অভ্যন্তরীণ ক্রিস্টালিন (স্ফটিক) কাঠামো যথেষ্ট সুশৃঙ্খল কাঠামো এবং বেশিরভাগ ইলেকট্রনিক্স-অপটিক্যাল অ্যাপ্লিকেশনগুলির জন্য অনুকূল বলেও তিনি দাবি করেন। সেক্ষেত্রে আগামী দিনে এই বিশেষ উপাদানটিকে মোবাইল ফোনের স্ক্রিনের জন্য ব্যবহার করা যেতে পারে বলে আর এক গবেষক জানিয়েছেন।

হোয়াটসঅ্যাপে খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন

A person who enjoys creating, buying, testing, evaluating and learning about new technology.