ভারতে ফের দাম বাড়তে চলেছে ল্যাপটপ, ক্যামেরা সহ টেক্সটাইল পণ্যের, জানুন কারণ

laptops-cameras-and-textiles-products-price-may-increase-for-more-customs-duty

কয়েকমাস আগেই স্মার্টফোন, ল্যাপটপ ইত্যাদির দাম এক লাফে অনেকটাই বেড়েছে। তবে স্বস্তি নেই! এবার, আরো বেশ খানিকটা দাম বাড়তে পারে বিভিন্ন ইলেক্ট্রনিক ডিভাইস, টেক্সটাইল ইত্যাদি প্রোডাক্টের। আসলে ভারত সরকার চীনের উপর নির্ভরশীলতা কমানোর বিভিন্ন চেষ্টা করছে। ইতিমধ্যেই মোদী সরকার বেশ কিছু পদক্ষেপ নিয়েছে, স্থানীয় উৎপাদন বাড়ানোর সম্পূর্ণ চেষ্টাও চলছে। বিভিন্ন সূত্র থেকে জানা গেছে, সরকার আমদানিকৃত প্রায় ২০টি পণ্য খাতের ওপর আরো শুল্ক বাড়ানোর পরিকল্পনা করছে। ওই তালিকায় ল্যাপটপ, ক্যামেরা, টেক্সটাইল এবং অ্যালুমিনিয়াম পণ্য অন্তর্ভুক্ত রয়েছে।

এর আগে বাণিজ্য ও শিল্প মন্ত্রণালয়ের শুল্ক বাড়ানোর প্রস্তাব খারিজ করে দিয়েছিল অর্থ মন্ত্রক। তবে সম্প্রতি একটি রিপোর্টে দাবি করা হয়েছে, শুল্ক বাড়াতে কেন্দ্রের রাজস্ব বিভাগ আরো কয়েক ধাপ এগিয়ে যেতে পারে।

এর আগেও রাজস্ব বিভাগ, ভারতে আমদানিকৃত বিভিন্ন পণ্যে লাইসেন্স ব্যবস্থা আরোপের জন্য সরকারকে প্ররোচিত করেছে। যার ফলে ডিরেক্টরেট জেনারেল অফ ফরেন ট্রেড (DGFT) বিভাগ – চীন, ভিয়েতনাম এবং মালয়েশিয়া থেকে আসা টিভি মডেলগুলির আমদানি নিষিদ্ধ করেছিল। বলা হয়েছিল এরপর থেকে কোনো সংস্থা যদি টিভি মডেল আমদানি করতে চায়, তবে তাদের সরকারের কাছ থেকে লাইসেন্স নিতে হবে।

একজন সরকারী কর্মকর্তা জানিয়েছেন, চীন থেকে প্রচুর পরিমাণে আসা পণ্যগুলির ওপর আবার শুল্ক হার বাড়ানো হতে পারে। আসলে লাদাখ সীমান্তে ভারত-চীন উত্তেজনার পর থেকেই প্রতিবেশী দেশটির ওপর বিরূপ ভারত সরকার তথা সাধারণ মানুষ। একজন কর্মকর্তা তো বলেই ফেলেছেন, চীনের সাথে কোনো রকম ব্যবসা করা যাবেনা।

যাইহোক, ভারত সরকার এখনো শুল্ক বাড়ার বিষয়ে কোনো চূড়ান্ত ঘোষণা করেনি। তবে লোকাল উৎপাদন বাড়াতে সরকার শীঘ্রই এই পদক্ষেপ নিতে পারে বলা জানা গেছে।