অতিরিক্ত গরম হয়ে আগুন ধরে যাবে না তো আপনার ল্যাপটপে? এই ৬টি উপায়ে সুরক্ষিত থাকুন

সারা দিন কাজ করতে করতে গরম হয়ে যাচ্ছে ল্যাপটপ? ওভার-হিটিংয়ের সমস্যা দূর করুন এই ৬ টি উপায়ে

laptop-overheat-tips-what-to-do-when-laptops-overheats-check-out-these-6-ways-to-cool

বর্তমানে ডিজিটাল যুগে ল্যাপটপে কাজ করার প্রচলন ব্যাপকভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে। আবার সাম্প্রতিককালে করোনা পরিস্থিতির দরুন ওয়ার্ক-ফ্রম-হোম চালু হওয়ার পর থেকে প্রায় অধিকাংশ ছাত্রছাত্রী এবং অফিসকর্মীরাই ল্যাপটপে মশগুল থাকছেন। ফলে সারাদিন ধরে কাজ করার ফলে মানুষের পাশাপাশি দিনান্তে ল্যাপটপটিও ক্লান্ত হয়ে পড়ছে, দীর্ঘক্ষণ ধরে একটানা ল্যাপটপ ব্যবহার করার ফলে দেখা দিচ্ছে ওভার-হিটিংয়ের সমস্যা। তাই মানুষ ক্লান্ত হয়ে পড়লে যেমন তাদের আরামের প্রয়োজন, তেমনি ল্যাপটপ ক্লান্ত হয়ে পড়লে সেটির প্রতিও আমাদের যথাযথভাবে যত্ন নেওয়া উচিত। ল্যাপটপের ওভার-হিটিংয়ের সমস্যা যদি আপনারা উপেক্ষা করেন, তাহলে ল্যাপটপটির পারফরম্যান্সের ওপর প্রভাব পড়তে পারে, এমনকি ল্যাপটপটি খারাপও হয়ে যেতে পারে। তাই আজ আমরা এই প্রতিবেদনে আপনাদের সাথে ৬ টি টিপস শেয়ার করব, যেগুলিকে অনুসরণ করলে আপনার ল্যাপটপটি বেশ খানিকটা ঠান্ডা থাকবে।

ল্যাপটপের ভেন্টগুলি চেক করুন

আমরা সবাই জানি যে, ল্যাপটপ যাতে ওভার-হিট না হয়ে যায়, তার জন্য সেটির ভিতরে একটি ফ্যান দেওয়া থাকে। এটি হিট বের করে দেওয়ার মাধ্যমে যন্ত্রটিকে ঠান্ডা রাখে।কিন্তু যদি এই পাখার ভেন্টগুলি বন্ধ হয়ে যায়, তখন বাতাস সঠিকভাবে পাস না হওয়ায় ল্যাপটপটি ধীরে ধীরে গরম হতে থাকে। তাই আপনার ল্যাপটপটির ভেন্টের চারপাশে প্রচুর খালি জায়গা আছে কি না সে বিষয়টি নিশ্চিত করুন। সোজা কথায় বললে, আপনি স্ট্যান্ডের ওপর বা বিছানায় যেখানেই ল্যাপটপ রেখে কাজ করুন না কেন, এই ভেন্টগুলি দিয়ে যাতে হাওয়া চলাচল খুব ভালোভাবে করতে পারে, সেইদিকে বিশেষভাবে নজর রাখুন।

আপনার ল্যাপটপের সিপিইউ সীমা বাড়িয়ে দেয় এমন প্রোগ্রামগুলি ব্যবহার করা এড়িয়ে চলুন

যেমন একজন রানার বেশ কয়েক মাইল দৌড়ানোর পরে তার স্ট্যামিনা হারিয়ে ফেলে, ঠিক সেভাবেই আপনার ল্যাপটপেও এমন বেশ কিছু প্রোগ্রাম চলতে থাকে যা খুব বেশি সিপিইউ ব্যবহার করে এবং তার ইন্টারন্যাল কম্পোনেন্টসগুলিকে ওভারড্রাইভে কাজ করতে বাধ্য করে। এর ফলে ল্যাপটপটি আরও গরম হয়ে ওঠে। তাই আপনার ল্যাপটপের সিপিইউ সীমা বাড়িয়ে দেয় এমন প্রোগ্রামগুলি ব্যবহার করা এড়িয়ে চলা উচিত।

ল্যাপটপ কুলিং প্যাড ব্যবহার করুন

আপনি যদি দীর্ঘক্ষণ ল্যাপটপে কাজ করেন, তাহলে ডিভাইসটিকে ওভার-হিট হওয়া থেকে বাঁচাতে কুলিং প্যাড ব্যবহার করা উচিত। এটি মূলত আপনার ল্যাপটপের তাপমাত্রাকে কম রাখার জন্য একটি বাহ্যিক ফ্যান হিসেবে কাজ করে। এগুলি মার্কেটে বেশ সস্তায় পাওয়া যায় এবং প্রায়শই ইউএসবি পোর্টের মাধ্যমে সরাসরি আপনার ল্যাপটপের সাথে সংযোগ স্থাপন করে। তবে মনে রাখবেন যে, ল্যাপটপ কুলিং প্যাড আপনার ডিভাইসটির বাইরের অংশ শীতল করতে পারে, কিন্তু ইন্টারন্যাল হিট সোর্সের উপর এটি ততটা প্রভাব ফেলে না।

আপনার ল্যাপটপের ফ্যান এবং ভেন্টগুলি পরিষ্কার করুন

যদি আপনার ল্যাপটপের ভেন্টে অতিরিক্ত ধুলো জমে থাকে, তবে এটি বায়ুপ্রবাহকে ব্যাহত করতে পারে এবং ফলস্বরূপ আপনার ডিভাইসটির অতিরিক্ত উত্তপ্ত হওয়ার সমস্যাকেও বাড়িয়ে তুলতে পারে। তাই নিয়মিতভাবে ল্যাপটপের ফ্যান এবং ভেন্টগুলি পরিষ্কার করুন। ঘরোয়া সহজ পদ্ধতিতে তুলো দিয়েই এই কাজটি করা যেতে পারে, তবে এখন মার্কেটে বেশ কিছু দোকানে কমপ্রেসড এয়ার ক্যান পাওয়া যায় যেগুলি ব্যবহার করেও এই কাজটি অত্যন্ত সহজে করা সম্ভব।

আপনার ল্যাপটপের পারফরম্যান্স উন্নত করতে সেটির সেটিংস পরিবর্তন করুন

ল্যাপটপের সেটিংসে কিছু পরিবর্তন করে সেটির গরম হওয়ার সম্ভাবনা বেশ খানিকটা প্রতিরোধ করা যেতে পারে। তাই আপনার ল্যাপটপের পারফরম্যান্স বাড়ানোর জন্য ঠিক কীরকম সেটিংসের প্রয়োজন, সে বিষয়ে দক্ষ মেকানিকের সঙ্গে আলোচনা করুন এবং তার পরামর্শ অনুযায়ী সেটিংস পরিবর্তন করুন। কারণ সঠিকভাবে সেটিংস পরিবর্তন করলে আপনার ল্যাপটপের ইন্টারন্যাল কম্পোনেন্টসের ওপর চাপ কম পড়ে, এবং ফলস্বরূপ ওভার-হিটিংয়ের সম্ভাবনাও বেশ খানিকটা কমে যায়।

অবশ্যই ল্যাপটপ শাট ডাউন করুন

আপনার ল্যাপটপকে ঠান্ডা করার সবচেয়ে সহজ এবং নির্ভরযোগ্য উপায় হল এটি সম্পূর্ণরূপে বন্ধ করা। প্রতিদিন আপনার ল্যাপটপকে কয়েক ঘন্টার জন্য বিশ্রাম দিতে ভুলবেন না। আমাদের সকলেরই প্রতিদিন বিশ্রামের প্রয়োজন হয় যাতে আমরা সকালে উঠে একটি নতুন দিন শুরু করার পাশাপাশি আমাদের সেরা পারফরম্যান্স দিতে পারি। ঠিক সেভাবেই প্রতিদিন ল্যাপটপের সেরা পারফরম্যান্সটি পেতে গেলেও তাকে দৈনিক বেশ কয়েক ঘন্টা বিশ্রাম দেওয়া প্রয়োজন, আর সেক্ষেত্রে ল্যাপটপটি শাটডাউন করে রাখার চাইতে আর অন্য কোনো ভালো উপায় নেই।

টেকগাপের মেম্বাররা ও সদ্য যোগ দেওয়া লেখকরা এই প্রোফাইলের মাধ্যমে টেকনোলজির সমস্ত রকম খুঁটিনাটি আপনাদের সামনে আনে।