দুর্ধর্ষ ফিচার সহ বাজারে এল Mi 11i স্মার্টফোন, জেনে নিন দাম

mi-11i-launched-global-markete-with-snapdragon-888-soc-price-specifications

চীনা স্প্রিং ফেস্টিভাল উপলক্ষ্যে আজ একটি ইভেন্টে, স্মার্টফোন এবং স্মার্টব্যান্ডসহ একগুচ্ছ নতুন প্রোডাক্ট লঞ্চ করেছে জনপ্রিয় টেক-ব্র্যান্ড Xiaomi; সমস্ত প্রোডাক্টই এসেছে সংস্থার Mi ব্র্যান্ডনেমের অধীনে। তবে ব্র্যান্ডের নতুন ফোন লঞ্চ সম্পর্কে বললে – একটা, দুটো কিংবা তিনটে ফোন নয়, আজ Xiaomi লঞ্চ করেছে Mi 11 Ultra, Mi 11 Pro, Mi 11 Lite, Mi 11i এবং Mi 11 Lite 5G-র মত বেশ কয়েকটি নতুন ফোন। সেক্ষেত্রে 11 Lite, Mi 11i এবং Mi 11 Lite 5G ফোন তিনটি গ্লোবাল মার্কেটেও পাওয়া যাবে। এরমধ্যে Mi 11i ফোনটি কে গত মাসে চীনে চালু হওয়া Redmi K40 Pro+ হ্যান্ডসেটের রিব্র্যান্ডেড ভার্সন হিসেবে লঞ্চ করেছে Xiaomi। এছাড়াও এই ফোনের স্পেসিফিকেশনের সাথে মিল পাওয়া গেছে Mi 11 Pro-এরও। আসুন Mi 11i-এর স্পেসিফিকেশন এবং লভ্যতা সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নিই।

Xiaomi Mi 11i-এর স্পেসিফিকেশন

Mi 11i ফোনে হোল-পাঞ্চ ডিজাইনসহ ৬.৬৭ ইঞ্চির ফ্ল্যাট AMOLED ডিসপ্লে রয়েছে, যা ইতিমধ্যেই সংস্থার সেরা ফ্ল্যাট স্ক্রিনযুক্ত ডিভাইস হিসাবে উপমা পেয়েছে। Samsung E4 স্ক্রিনযুক্ত এই ফ্ল্যাগশিপ ডিভাইসটিতে ১২০ হার্টজ রিফ্রেশ রেট, ৩৬০ হার্টজ টাচ স্যাম্পলিং রেট এবং ১,৩০০ নিট ব্রাইটনেসের সুবিধা পাওয়া যাবে। এছাড়া থাকবে DCI-P3 কালার গ্যামেট এবং HDR10+ সমর্থনও, যার ফলে ফোনটি অত্যাশ্চর্য অ্যারে সহ প্রাণবন্ত রঙের দৃশ্য সরবরাহ করবে। আবার ফোনটি প্রিমিয়াম গ্লাস দিয়ে তৈরি করা হয়েছে ফলত এতে মাত্র ৭.৮ মিলিমিটার গাঢ়ত্ব (থিকনেস) দেখা যাবে। শুধু তাই নয়, ইউজাররা এই নতুন Mi ফোনটিতে সাইড মাউন্টেড ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সরও উপভোগ করতে পারবেন।

অন্যান্য ফিচারের কথা বললে, Mi 11i-তে লেটেস্ট স্ন্যাপড্রাগন ৮৮৮ প্রসেসর ব্যবহার করা হয়েছে এবং এটি ৮ জিবি LPDDR5 র‌্যাম ও ১২৮ জিবি/ ২৫৬ জিবি UFS 3.1 ফ্ল্যাশ মেমরি সহ এসেছে। ফলে ফোনটি যে দ্রুত এবং নির্ভরযোগ্য পারফরম্যান্স সরবরাহ করবে তাতে কোনো সন্দেহ নেই!

তবে এটির ক্যামেরা বা সাউন্ড কোয়ালিটিও ইউজারকে নিরাশ করবে না, কারণ এই ফোনে ট্রিপল রিয়ার ক্যামেরা সেটআপ (১০৮ মেগাপিক্সেলের প্রাইমারি সেন্সর, ১১৯ ডিগ্রির আল্ট্রাওয়াইড অ্যাঙ্গেল ক্যামেরা এবং ৫ মেগাপিক্সেলের টেলিম্যাক্রো ক্যামেরা) দেওয়া হয়েছে যার সাহায্যে ‘প্রো’ লেভেলের ফটোগ্রাফি করা যাবে বলে নির্মাতা সংস্থার দাবি। সেলফি ও ভিডিও কলের জন্য মি ১১ আই ফোনে আছে ২০ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরা। আবার নতুন ফ্ল্যাগশিপ স্মার্টফোনটিতে ডলবি অ্যাটমোস এবং ডুয়াল স্পিকার রয়েছে; আছে অডিও জুমিং অপশনও। ফলে এতে উন্নত অডিও এক্সপিরিয়েন্সও পাওয়া যাবে।

ফোনটি অ্যান্ড্রয়েড ১১ বেসড এমআইইউআই ১২ কাস্টম স্কিনে চলবে। তদুপরি, ফোনটিতে ৪,২৫০ এমএএইচের ব্যাটারি এবং ৩৩ মিনিটের ফাস্ট চার্জিং টেকনোলজি দেওয়া হয়েছে। কোম্পানির দাবি ফোনটি ৫২ মিনিটের মধ্যে ফুল চার্জ হয়ে যাবে এবং এটি সারা দিন নির্বিঘ্নে ব্যবহার করা যাবে। তাছাড়াও, ফোনটিতে প্রতিক্রিয়াশীল এবং শক্তিশালী হ্যাপটিকের জন্য একটি এক্স-লিনিয়ার মোটর দেওয়া হয়েছে; রয়েছে আইআর (IR) ব্লাস্টার এবং NFC সাপোর্টও। এই প্রসঙ্গে বলে রাখি, সব ফিচার মিলিয়ে Mi 11 Pro-এর সাথে কম-বেশি কিছু মিল থাকলেও Redmi K40 Pro-এর Plus সংস্করণটির থেকে Mi 11i-কে আলাদা করা বেশ অসম্ভব। তবে এর দাম Redmi K40 সিরিজের ফোনটির থেকে অনেকটাই বেশি।

Xiaomi Mi 11i-এর লভ্যতা

এই ফোনটির ১২৮ জিবি স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্টটির দাম ধার্য করা হয়েছে ৬৪৯ ইউরো (ভারতীয় মূল্যে প্রায় ৫৬,০০০ টাকা), যেখানে ২৫৬ জিবি মডেলটি ৬৯৯ ইউরো (প্রায় ৬০,০০০ টাকা)-র বিনিময়ে বিক্রি হবে। Mi 11i ফোনটি সেলেস্টিয়াল সিলভার, ফ্রস্টলি হোয়াইট এবং কসমিক ব্ল্যাক কালার অপশন পাওয়া যাবে এবং খুব শীঘ্রই এটি Xiaomi-র অফিসিয়াল চ্যানেলে কেনার জন্য উপলব্ধ হবে বলে জানা গিয়েছে।

হোয়াটসঅ্যাপে খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন

A person who enjoys creating, buying, testing, evaluating and learning about new technology.