হটস্টারের সাথে হাত মিলিয়ে Mi TV গ্রাহকদের জন্য ফার্স্ট ডে ফার্স্ট শো আনলো Xiaomi

mi-tv-users-will-enjoy-first-day-first-show-as-xiaomi-partners-with-disneyhotstar

বর্তমানে করোনা ভাইরাসের কারণে সকলে বাড়িতে বসে মোবাইলে এবং তাদের স্মার্টটিভিতে সিনেমা ও ওয়েব সিরিজ দেখছে। সমীক্ষায় দেখা গেছে কেবল ও ডিটিএইচ ছাড়াও মানুষ ভীড় জমাচ্ছে ওটিটি প্ল্যাটফর্মগুলিতে। এর মধ্যে অন্যতম Disney+Hostar। সম্প্রতি মুক্তিপ্রাপ্ত সুশান্ত সিং রাজপুত অভিনীত সিনেমা ‘দিল বেচারা’ এই প্ল্যাটফর্মে ঝড় তুলেছিল। এই সিনেমার পরেও লুটকেস, ভূজ এর মত মুভি এই প্ল্যাটফর্মে মুক্তির অপেক্ষায় রয়েছে। এবার এই প্ল্যাটফর্মের সাথে হাত মেলালো চীনা স্মার্টফোন কোম্পানি Xiaomi। এখন থেকে Mi TV তে Disney+Hotstar এর সমস্ত কনটেন্ট আগে ভাগে দেখা যাবে। আসুন এই সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নিই।

Mi TV ব্যবহারকারীদের জন্য আবার একটি আকর্ষণীয় অফার নিয়ে হাজির হলো Xiaomi। Disney+Hotstar এর সঙ্গে একটি চুক্তির পরিপ্রেক্ষিতে Xiaomi শুক্রবার ঘোষণা করেছে যে, Mi TV ব্যবহারকারীরা Disney+Hotstar মাল্টিপ্লেক্স প্ল্যাটফর্মে ৬টি বলিউড মুভি রিলিজ হওয়ার ২ ঘন্টা আগে দেখতে পারবেন। অর্থাৎ Mi TV ব্যবহারকারীরা ফার্স্ট ডে ফার্স্ট শো দেখার সুযোগ পাবেন।

এই নতুন অফার শুরু হতে চলেছে কুণাল খেমু অভিনীত সিনেমা ‘লুটকেস’ থেকে। ৩১ জুলাই এই মুভি রিলিজ করা হয়েছে। এই মুভি বাকি সকলের জন্য সন্ধে ৭ টা ৩০ মিনিটে রিলিজ করা হলেও Mi TV ব্যবহারকারীরা এই মুভি ৫ টা ৩০ মিনিট থেকে দেখতে পারছেন। এর পরবর্তী মুভিগুলিও একই ভাবে ২ ঘন্টা আগে দেখতে দেওয়া হবে Mi TV ব্যবহারকারীদের।

অন্যন্য বেশ কয়েকটি মুভির মধ্যে রয়েছে – Laxmmi Bomb, Bhuj: The Pride of India, Sadak 2। এই সব ফিল্ম এম আই টিভির হোম স্ক্রীনের প্যাচ ওয়ালে ফিচার করা হবে। এর ফলে আপনারা আগেভাগেই এই সিনেমাগুলোর আনন্দ নিতে পারবেন।

এবিষয়ে Mi TV র ভারতের ক্যাটাগরি লিড ঈশ্বর নিলকান্তন জানিয়েছেন, এই নতুন ফিচার নিয়ে আসার মাধ্যমে শাওমি তাদের ব্যবহারকারীদের ফার্স্ট ডে ফার্স্ট শো এর আনন্দ দিতে চাইছে। যদিও এখনও জানা যায়নি যে, এই আগামী ৬ টি মুভির পরে এই সার্ভিস চালানো হবে কিনা। এমনকি মনে করা হচ্ছে যে করোনা ভাইরাস পরিস্থিতি শেষ হয়ে গেলে শাওমি এই সার্ভিস বন্ধ করে দিতে পারে। এর মূল কারণ হলো সিনেমা হল খুলে যাওয়া। করোনা সংকট কেটে গেলেই এর পরে সমস্ত বলিউড মুভি সিনেমা হলে রিলিজ করবে। তার পরেই OTT প্ল্যাটফর্মের এই সার্ভিস বন্ধ করে দেওয়া হবে বলে মনে করছে সংশ্লিষ্ট মহল।