বৃদ্ধ ‘Internet Explorer’ ওয়েব ব্রাউজারকে বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নিল Microsoft

Microsoft to shut down internet-explorer-on-june-15-2022-ays-live-on-in-edge

দীর্ঘকাল ধরে কোমায় থাকার পর অবশেষে আমাদের বহুপরিচিত ইন্টারনেট এক্সপ্লোরারের (Internet Explorer) মৃত্যু নিশ্চিত করল Microsoft। সম্প্রতি একটি ব্লগে উইন্ডোজ অপারেটিং সিস্টেম নির্মাতাটি জানিয়েছে যে, বহুদিন ধরে অস্তিত্বের জন্য সংগ্রাম করার পর, অবশেষে Microsoft Edge-এর পথকে সুপ্রশস্ত করার জন্য ১৫ জুন, ২০২২ তারিখে ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার ব্রাউজারকে পাকাপাকিভাবে বন্ধ করে দেওয়া হবে।

প্রসঙ্গত জানিয়ে রাখি, Microsoft প্রথম ১৯৯৫ সালে উইন্ডোজে ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার চালু করে। নড়বড়ে মাউস হাতে ইন্টারনেট এক্সপ্লোরারই হয়তো প্রথম মানুষকে বইমুখো থেকে ওয়েবমুখো করেছে। কিন্তু Google Chrome-এর মতো প্রতিযোগীদের সংখ্যা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ইউজারদের কাছে জনপ্রিয়তা হারাতে থাকে IE। সময়ের সাথে সাথে আপডেটেড টেকনোলজি ইন্টারনেট এক্সপ্লোরারে সাপোর্ট না করায় অন্যান্য ব্রাউজার বরাবরই একে টেক্কা দিয়ে এসেছে।

Microsoft দীর্ঘদিন ধরেই এই ঘটনাটি লক্ষ্য করে আসছিল, এবং তাই, Microsoft Edge-কে তার প্রাইমারি ওয়েব ব্রাউজার হিসাবে আনার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল। ২০১৫ সালে মাইক্রোসফট এজ-এর আত্মপ্রকাশের পর ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার, মাইক্রোসফট ব্যবহারকারীদের জন্য নিজের যথাযথ কার্যকারিতা ও জনপ্রিয়তা হারিয়ে একটি “কম্প্যাটিবিলিটি সলিউশন”-এ পরিণত হয়। আর তাই দীর্ঘ ২৫ বছরের বেশি সময়ের কর্মজীবনের পর ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার-এর কফিনে শেষ পেরেকটা লাগানোর সিদ্ধান্ত নিতেই হল মাইক্রোসফটকে। এমনকি সংস্থাটি অ্যাপের এই ফেজ-আউটের জন্য একটি টাইমলাইনও শেয়ার করেছে।

জানা গেছে, মাইক্রোসফট এই বছরের ১৭ আগস্ট Microsoft 365 এবং অন্যান্য অ্যাপ এবং Internet Explorer 11-এর জন্য সাপোর্ট বন্ধ করবে। গত বছরই প্রথম এর আঁচ পাওয়া গিয়েছিল, কারণ তারপর থেকে এটি IE 11- এর জন্য Microsoft Teams সাপোর্ট বন্ধ করে দেয়। অন্যদিকে IE 11-এর ডেস্কটপ অ্যাপ্লিকেশনের জন্য সাপোর্ট আগামী বছর বন্ধ করা হবে।

Microsoft তার ব্লগে আরও বলেছে, উইন্ডোজ ১০-এ ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার-এর ভবিষ্যৎ হতে চলেছে মাইক্রোসফট এজ। সংস্থাটি এর একাধিক কারণও উল্লেখ করেছে। প্রথমত, এজ, ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার ১১-এর চেয়ে ভালো সামঞ্জস্য সরবরাহ করে। এজ-এ একটি ডুয়েল ইঞ্জিন অ্যাডভান্টেজ আছে, যা লেগ্যাসি এবং মডার্ন ওয়েবসাইট উভয়ই সাপোর্ট করে। ফলে এটি ইন্টারনেট এক্সপ্লোরারে ওয়েবসাইট এবং অ্যাপ্লিকেশনগুলির জন্য বিল্ট-ইন লেগ্যাসি ব্রাউজার সাপোর্টের তুলনায় অধিক ফলদায়ক। এছাড়াও সংস্থাটি মাইক্রোসফট এজ-এর বেশ কয়েকটি নতুন ফিচারও তুলে ধরেছে যা ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার-এর তুলনায় অনেক বেশি প্রোডাক্টিভিটি অফার করে। মাইক্রোসফ্ট আরো জানিয়েছে যে, এই ব্রাউজারটি ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার ১১-এর চেয়ে অনেক বেশি সুরক্ষিত।

এছাড়াও, Microsoft বর্তমানে ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার ব্যবহারকারীদের মাইক্রোসফট এজ-এ শিফট করার পরামর্শ দিয়েছেন। ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার থেকে সমস্ত পাসওয়ার্ড, ফেভারিটস এবং অন্যান্য ব্রাউজিং ডেটা সমেত এই ট্রান্সফারটি খুব সহজেই করা যাবে বলে সংস্থার পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে। এর পাশাপাশি সংস্থাটি আরও উল্লেখ করেছে যে, মাইক্রোসফট এজ-এ একটি বিল্ট-ইন ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার মোড রয়েছে; তাই ব্যবহারকারীরা এখনও এটি অ্যাক্সেস করতে পারেন যদি তারা এমন কোনো ওয়েবসাইটের সন্ধান পান যেটি ওপেন করার জন্য ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার প্রয়োজন।

হোয়াটসঅ্যাপে খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন

টেকগাপের মেম্বাররা ও সদ্য যোগ দেওয়া লেখকরা এই প্রোফাইলের মাধ্যমে টেকনোলজির সমস্ত রকম খুঁটিনাটি আপনাদের সামনে আনে।